আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
অপরাধ

কিশোরীর আত্মহত্যা

n gonj wmnওমেনআই: প্রেমের সম্পর্কে প্রতারণার শিকার হয়ে ব্যর্থতা আর হতাশায় ভুগে জীবনের সাথে সব লেনদেন চুকিয়ে, অভিমান নিয়ে নিজের মৃত্যু নিশ্চিত করলো স্কুল পড়ুয়া কিশোরী। কিশোরীর দুচোখ ভরা স্বপ্ন জলাঞ্জলি দিয়ে রোববার তার বাবার উদ্দেশ্যে চার পৃষ্ঠার হতাশা ভরা আবেগঘন চিঠি লিখে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে ঐ কিশোরী

বন্দরের কোর্টপাড়া এলাকায় নিজ বাসায় গলায় ওড়না পেচাবার আগে লিখা ঐ চিঠির শিরোনাম ছিলো ‘বাবা, তোমার চোখের পানি আমি সইতে পারিনি। তাই এ পথ বেছে নিলাম।’

আবেগঘন এমন চারপাতার চিঠি লিখে আত্মহত্যা করেছে সানজিদা আকতার (১৪) নামে নবম শ্রেণীর এক ছাত্রী। রোববার দুপুরে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় শোবার ঘরের সিলিং ফ্যান থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় সানজিদার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পরে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হয়েছে। আত্মহত্যার আগে সানজিদার লেখা ৪ পৃষ্ঠার চিরকুটটি পুলিশ উদ্ধার করেছে।

সানজিদা কোর্টপাড়া এলাকার নুরুল ইসলাম মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া অটোচালক আসলাম মিয়ার মেয়ে। সে নবীগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর বাণিজ্য শাখার ছাত্রী। পরিবারের ৩ বোনের মধ্যে সানজিদা সবার বড়। তার মা মাসুদা বেগম জর্ডান প্রবাসী।

স্থানীয়রা জানায়, মেয়ে সানজিদা, সুরাইয়া ও তানজিলাকে ঘরে রেখে রোববার সকাল ৭টায় অটোরিকশা চালাতে বাইরে যান আসলাম মিয়া। ছোট দুই বোন সুরাইয়া ও তানজিলা সময় মতো স্কুলে গেলেও সানজিদা সবার অজান্তে ওড়না বেঁধে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।

ঘটনার পরে ঘরের দরজা বন্ধ দেখে সানজিদার ফুফু ঝিনুক ও চাচী আমেনাসহ অন্যরা মিলে দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে পড়ে। এ সময় থানায় খবর দেয়া হলে পুলিশ কিশোরীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে।

সানজিদার লেখা চিরকুটের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, চারপৃষ্ঠার চিরকুটে দুজন ছেলের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। পাশে তাদের মোবাইল নাম্বারও লেখা হয়েছে। সানজিদা বাবার উদ্দেশে লিখেছে, তার চোখের পানি ঝরা দেখে সে সইতে পারছিল না। সে এটাও উল্লেখ করেছে বাবার চোখের পানি ঝরতে দেখে এ পথ সে বেছে নেয়।

চিরকুটে শুভ নামে এক ছেলেকে অশুভ আত্মা আর মিনহাজ নামে অপর এক ছেলেকে শয়তান ও মিথ্যাবাদী হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। পাশে একটি মোবাইল নম্বরও লিখা রয়েছে। যার নম্বর ০১৬৮৯৬৮৭০০৩।

ঘটনাস্থলে যাওয়া বন্দর থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) আইয়ুব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। চিরকুটে উল্লেখ করা দুই যুবক শুভ ও মিনহাজের বিরুদ্ধে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে।

ঢাকা, ১০ ফেব্রুয়ারি (ওমেনআই)/এসএল/

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close