আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
স্বাস্থ্য

ডায়াবেটিসে স্মার্ট ইনসুলিন

insulin wmnওমেনঅাই: টাইপ ওয়ান ডায়াবেটিসের রোগীদের জীবনযাত্রা বেশ ঝামেলাপূর্ণ হয়ে থাকে। প্রতিনিয়তই রক্তের সুগার লেভেল চেক করা এবং ইনসুলিন নিতে অনেকটা সময় কেটে যায় তাদের। কিন্তু এখন আর সময় অপচয় হবে না। আবিষ্কার হলো এমন এক ‘স্মার্ট ইনসুলিন’ যা শরীরের প্রয়োজনের সময়ে কাজ শুরু করবে।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের জন্য গবেষকেরা বেশ কিছু নতুন প্রযুক্তি বের করেছেন। এর মাঝে আছে নন-ইনভেসিভ স্কিন প্যাচ যেগুলো শরীরের বাইরে থেকে এবং কোনো রকমের ব্যাথা ছাড়াই রক্তের গ্লুকোজ লেভেলের ওপর নজর রাখে।

বর্তমানে এই সমস্যাটিকে অন্য ভাবে মোকাবিলা করার জন্য উদ্ভাবন হলো স্মার্ট ইনসুলিন। একবার গ্রহণের পর রক্তে ২৪ ঘন্টা পর্যন্ত থেকে যেতে পারে এই স্মার্ট ইনসুলিন এবং এই সময়ের মাঝে রক্তের গ্লুকোজের মাত্রা অতিরিক্ত বেড়ে গেলে তা নিজে থেকেই সক্রিয় হয়ে যাবে এবং গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করবে।

টাইপ ওয়ান ডায়াবেটিস এমন একটি পরিস্থিতি যেখানে শরীর নিজেই অগ্ন্যাশয়ের ইনসুলিন-উৎপাদনকারী কোষগুলোকে ধ্বংস করে দেয়। ইনসুলিনের কাজ হলো রক্তের অতিরিক্ত গ্লুকোজ কমিয়ে আনা।

সুতরাং টাইপ ওয়ান ডায়াবেটিসের ক্ষেত্রে রক্তের গ্লুকোজের মাত্রা বিপজ্জনকভাবে বেড়ে যেতে পারে। এ কারণেই তাদের দিনে কয়েকবার করে ইনসুলিন নিয়ে রক্তের গ্লুকোজের মাত্রা স্বাভাবিক রাখতে হয়।

একবারে বেশি ইনসুলিন নিয়ে ফেললে আবার রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা খুব বেশি কমে গিয়ে রোগীর জন্য বিপদের কারণ হতে পারে। হাইপারগ্লাইসেমিয়া বা হাইপোগ্লাইসেমিয়ার কারণে এক সময়ে তাদের অন্ধত্ব এবং নার্ভ ড্যামেজের মতো ক্ষতি হতে পারে। এ কারণে গবেষকেরা এমন ইনসুলিন আবিষ্কারের চেষ্টা করে যাচ্ছিলেন যা কেবল দরকারের সময়েই কাজ শুরু করবে।

MIT এবং ইউনিভার্সিটি অফ উটাহ এর গবেষকেরা এই চিন্তা থেকেই তৈরি করেন তাদের গ্লুকোজ-রেস্পন্সিভ ইনসুলিন। এই ইনসুলিন অনেকটা সময় ধরে রক্তে থেকে যায়। যখন রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা বেড়ে যায় তখনই সে নিজের কাজ শুরু করে।

এখন পর্যন্ত শুধুমাত্র ইঁদুরের ওপর এই ইনসুলিন পরীক্ষা করা হয়েছে। মানুষের ওপরে এটি পরীক্ষা করতে আরো দেরি আছে কিন্তু গবেষকেরা এ বিষয়ে যথেষ্ট আশাবাদী।

ঢাকা, ১৭ ফেব্রুয়ারি (ওমেনআই)/এসএল/

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close