আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
আন্তর্জাতিক

বিশ্বের শীর্ষ ৫ টিনএজ মিলিয়নিয়র

worldওমেনঅাই:বিশ্বের সর্বোচ্চ ধনীদের তালিকা সচরাচর আমরা দেখি। তাদের কাঠখড় পোড়ানো লাইফস্টাইল পড়ে বিস্মিত হই আমরা। তবে কিশোর বয়সেই সর্বোচ্চ ধনীদের তালিকায় নাম লেখানো কিন্তু চাট্টিখানি কথা নয়।এমনি পাঁচ কিশোর-কিশোরী আছেন যাদের বয়স এখনো বিশ পার হয়নি, অথচ তাদের সম্পত্তির মূল্য মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার৷

নিক ডি’আলোয়িসিয়ো: ইংল্যান্ডের প্রোগ্রামার৷ লন্ডনে জন্ম ১৯৯৫ সালের ১ নভেম্বর, সুতরাং বয়স এখনো ২০ বছরও হয়নি৷ এ বয়সেই তার রয়েছে মোট ৩০ মিলিয়ন ডলার মূল্যমানের সম্পত্তি৷ যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ২৩৪ কোটি টাকা। ঘরে বসে নিক তৈরি করেছিলেন ‘সামলি’নামের এক ‘অ্যাপ’। তা চড়াদামে কিনে নেয় ইয়াহু৷ ২০১৪ সালে ‘অ্যাপল ডিজাইন অ্যাওয়ার্ড’-ও জিতেছেন নিক ডি’আলোয়িসিয়ো৷

বিশ্বের শীর্ষ ৫ টিনএজ মিলিয়নিয়র
অ্যাবিগেইল ব্রেসলিন: যুক্তরাষ্ট্রের অভিনেত্রী৷ জন্ম নিউইয়র্কে, ১৯৯৬ সালের ১৪ এপ্রিল৷ অভিনয়ের সূত্রেই খুব কম বয়সে তারকাখ্যাতি অর্জন এবং অর্থ উপার্জন শুরু৷ মাত্র ৬ বছর বয়সে অভিনয়ে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন ব্রেসলিন৷ বয়স ১৯ হতে এখনো কয়েক দিন বাকি, কিন্তু এরই মাঝে ১২ মিলিয়ন ডলারের সম্পত্তির মালিক হয়ে গেছেন ‘জম্বিল্যান্ড’ এবং ‘দ্য কল’ চলচ্চিত্রের জন্য তারকাখ্যাতি পাওয়া হলিউডের এই অভিনেত্রী৷ যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় একশ কোটি টাকা।

বিশ্বের শীর্ষ ৫ টিনএজ মিলিয়নিয়র
জেডেন স্মিথ: জেডেন স্মিথও যুক্তরাষ্টের নাগরিক৷ জন্ম ১৯৯৮ সালের ৮ জুলাই৷ একাধারে ব়্যাপার, অভিনেতা এবং ডান্সার হিসেবে খ্যাতি পেলেও অভিনয়ই তাঁর মূল পেশা৷ ‘দ্য পারস্যুট অফ হ্যাপিনেস’এবং ‘দ্য কারাটে কিড’ খ্যাত অভিনেতা জেডেন স্মিথের নিজস্ব সম্পত্তির বাজার মূল্য এখন ৮ মিলিয়ন ডলার৷ বাংলাদেশি টাকায় যা ৬২ কোটি টাকার বেশি।

বিশ্বের শীর্ষ ৫ টিনএজ মিলিয়নিয়র
ক্লোয়ি গ্রেস মরেত্স: ক্লোয়ি গ্রেস মরেত্স-এর জন্ম আটলান্টায়, ১৯৯৭ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি৷ ‘কিক অ্যাস’ ছবিতে মিন্ডি হয়ে এবং ‘ইফ আই স্টে’ছবির নাম ভূমিকায় অভিনয় করে খুব কম বয়সেই খ্যাতির আকাশে জায়গা করে নিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের এই কিশোরী৷ তাঁর সম্পত্তির দামও ৮ মিলিয়ন ডলার৷

এলে ফ্যানিং: তার জন্ম ১৯৯৮ সালের ৯ এপ্রিল, যুক্তরাষ্টের জর্জিয়াতে৷ তিনিও অভিনেত্রী৷ অভিনয় সূত্রে ৫ মিলিয়ন ডলারের সম্পত্তির মালিক হয়ে সবচেয়ে ধনী টিনএজারদের তালিকায় নিজের বোন ডাকোটা ফ্যানিংকে পেছনে ফেলেছেন তিনি৷ অ্যাঞ্জেলিনা জোলি অভিনীত ‘মেলফিসেন্ট’আর কমেডি মুভি ‘ড্যাডি ডে’ দেখলেই বুঝতে পারবেন এলে ফ্যানিং অভিনেত্রী হিসেবে কেমন৷ বাংলাদেশি টাকায় ফ্যানিং প্রায় ৪০ কোটি টাকার মালিক।

ঢাকা, ১৯ মার্চ (ওমেনঅাই)/এসএল/

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close