আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
সারাদেশ

অস্ট্রেলিয়া যোন বাংলাদেশের হয়েই প্রতিশোধ নিল!

bangladesh-fansওমেনআই : ফাইনালে ওঠার লড়াই। সিডনিতে মুখোমুখি স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া ও ভারত। দুই দলের সমর্থকের পূর্ণ স্টেডিয়ামের গ্যালারি। তবে এই লড়াইয়ের ঝাঝ একটু বেশীই যেন ছিল বাংলাদেশেও। সিডনি নয়, যেন নিজ ঘরে বসে অস্ট্রেলিয়ানদের জয়ের জন্য মনে-প্রাণে জপছিল বাংলাদেশী সমর্থকরা। সবার চাওয়া যেন একটাই, কোনভাবেই যেন ফাঁক গলে মহেন্দ্র সিং ধোনির দল সেমিফাইনালের গন্ডি না পেরুতে পারে।

শেষ পর্যন্ত ভারতের আর ফাইনালে ওঠা হয়নি। আর তাতেই যেন গত কয়েকটি দিন দম বন্ধ-করা অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেল বাংলাদেশি সমর্থকরা। উমেশ যাদবের উইকেটটি মিচেল স্টার্ক উপড়ে ফেলার সঙ্গে-সঙ্গে সিডনির মতো যেন গোটা বাংলাদেশও ভারতের পরাজয়ের উৎসবে মেতে ওঠে।

অথচ প্রতিবেশি দেশ হিসেবে ভারতের সমর্থন করার কথা ছিল বাংলাদেশের সমর্থকদের। কিন্তু কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই ধোনির দল বাংলাদেশীদের জন্য শত্রুতে পরিণত হয়েছিল। পাকিস্তানের আলিম দার এবং ইংল্যান্ডের ইয়ান গোল্ড নামক দুই ব্যক্তি সুকৌশলে ভারতকে জেতাতে সেদিন যা-যা করার সবকিছুই করেছিলেন।

কারণ সেদিন পুরো বাংলাদেশীদের স্বপ্ন ছিনিয়ে নিয়েছিল ভারত, আম্পায়ারদের বদান্যতায়। তারপর থেকেই যেন মহেন্দ্র সিং ধোনির দলের পরাজয়ের দিনক্ষণ গুনেছে টাইগার সমর্থকরা। আর তাইতো ঘর-বাড়ি থেকে শুরু করে রাস্তা-ঘাট, সব জায়গায় ছিল একটিই আলোচনা। ভারত কি হারতে যাচ্ছে? উত্তরার এক চায়ের দোকানদার সালাম বলেন, ‘দেখেছেন ভাই আমাদের সঙ্গে কোয়ার্টার ফাইনালে কি চুরিটাই না আম্পায়ারা করলেন। আজ তো আর ভারতের সঙ্গে আম্পায়াররা ছিল না, ফলে পরিনামটা হারে হারে টের পেল ওরা (ভারত)।’

শ্যামলী থেকে উত্তরায় যাওয়ার পথে বাসচালক মুসা মিয়া তার হেলপারের কাছে জানতে চাচ্ছেন? কিরে আজ কী দুই মোড়লের খেলা। আম্পায়াররা আজ কারে জেতায় দেখাবানে। ভারতের বিপক্ষে আম্পায়ারদের এমন বিতর্কিত সিদ্ধান্তে রিক্সাচালক থেকে শুরু করে একজন সাধারণ দর্শকও কতোটা সোচ্চার হয়েছিল, তা সবাই দেখেছে মাশরাফি বাহিনীর পরাজয়ের পর। স্কুল ছাত্র জুয়েল মাহমুদও বিশ্বাস করেন, ভারতের বিপক্ষে সেদিন ওই ধরণের বাজে সিদ্ধান্ত না দিলে খেলার ফলাফলটা অন্যরকম হলেও হতে পারত।

শেষ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার কাছে ভারত ৯৫ রানের বড় ব্যবধানে হারায় যেন খুশির জোয়ারে ভেসে যাবার অবস্থা সাহেদ আলম-মাসুদ হাসানদের মতো ক্রিকেট প্রেমীদের। তাইতো এই দুই তরুণ ক্রিকেট সমর্থক অকপটে বললেন, ‘ভাই আজ যে পরিমাণে খুশি হয়েছে তাতে করে মনে হচ্ছে রাতের ঘুমটা ভালোই হবে। কারণ ভারতের কাছে হারার পরের দিন থেকে মনটা খুবই খারাপ ছিল। সেই সঙ্গে ভালো মতো রাতের ঘুমও হতো না। অস্ট্রেলিয়া আজ ভারতকে হারানোয় মনে হচ্ছে বুকের ওপর থেকে পাথরটা সরে গেল।’

বৃহস্পতিবার ভারতকে ৯৫ রানে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে অস্ট্রেলিয়া। তবে সাত সমুদ্দুর তেরো নদীর ওপারে থাকা গোটা বাংলাদেশে যেন স্বস্তির আবেশ। সবার মনে একই কথা, যাক আসল শিক্ষাটা পেয়েছে ভারত।
ঢাকা, ২৭ মার্চ (ওমেনঅাই)/এসএল/

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close