আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
আন্তর্জাতিক

রসায়নে নোবেল পেলেন দুই নারী

ওমেনআই ডেস্ক : এ বছর যৌথভাবে রসায়নে নোবেল পুরস্কার জিতেছেন ফরাসি বিজ্ঞানী ইমানুয়েল কার্পেন্টার ও মার্কিন বিজ্ঞানী জেরিফার এ ডৌডানা। জিন প্রকৌশলের মাধ্যমে ডিএনএ সম্পাদনার ‘সূক্ষ্মতম’ কৌশল উদ্ভাবনের স্বীকৃতি স্বরূপ এই দুই নারীকে নোবেল পুরষ্কার দেওয়া হলো। গত বুধবার সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে রয়াল সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্সের মহাসচিব গোরান হ্যানসন দুজনের নাম ঘোষণা করেন। পুরুষ সহকর্মী ছাড়া রসায়নে শুধু দুই নারীর যৌথভাবে নোবেল পুরস্কার পাওয়ার ঘটনা এটাই প্রথম।
‘ফ্রেঞ্চ প্রফেসর’ নামে পরিচিত ৫১ বছর বয়সী ইমানুয়েল কাজ করছেন জার্মানির বার্লিনের ম্যাক্স প্লাঙ্ক ইউনিট ফর দ্য সায়েন্স অব প্যাথোজেন্সে। তিনি বার্লিনের ম্যাক্স প্লাঙ্কের ইনস্টিটিউট ফর ইনফেকশন বায়োলজির ডিরেক্টর হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। মাইক্রোবায়োলজি, জেনেটিক্স এবং বায়োকেমিস্ট্রিতে তার গবেষণা বহুল স্বীকৃত। অন্যদিকে ৫৬ বছর বয়সী মার্কিন প্রাণরসায়নবিদ জেনিফার যুক্তরাষ্ট্রের বার্কলির ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে একাধারে আণবিক জীববিজ্ঞান, কোষ জীববিজ্ঞান ও রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক।
২০১২ সালে ইমানুয়েল এবং জেনিফার সর্বপ্রথম ব্যাক্টেরিয়ার ব্যবহৃত এনজাইম ক্রিসপার/ক্যাস৯ যে মনুষ্য নকশাকৃত জিন সম্পাদনায় ব্যবহার করা যেতে পারে, সে ব্যাপারে প্রস্তাবনা রাখেন। এই আবিষ্কার জীববিজ্ঞানের ইতিহাসে অন্যতম বৈপ্লবিক আবিষ্কার হিসেবে স্বীকৃত।
এর আগে, গতকাল মঙ্গলবার পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল জয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। পদার্থবিজ্ঞানে বিশেষ অবদানের জন্য এ বছর তিনজনকে নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। তারা হলেন রবার্ট পেনরোজ, রেইনহার্ড গেনজেল এবং আন্দ্রে ঘেজ। এর মধ্যে রজার পেনরোজ পেয়েছেন পুরস্কারটির অর্ধেক এবং বাকি দুজন পেয়েছেন বাকি অর্ধেকের অর্ধেক করে।
প্রতিবছর বিজ্ঞান, সাহিত্য ও শান্তিতে বিশেষ অবদানের জন্য এই পুরস্কার দেওয়া হয়। রয়্যাল সুইডিশ অ্যাকাডেমি অব সায়েন্সেস বুধবার এই তিন বিজ্ঞানীর নাম ঘোষণা করে। এ পর্যন্ত ১৮৩ জনকে রসায়নে নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। ২০১৮ সালে রসায়নশাস্ত্রে অবদানের জন্য নোবেল পুরস্কার জেতেন আমেরিকার বিজ্ঞানী ফ্রান্সেস এইচ আরনল্ড, জর্জ পি স্মিথ এবং যুক্তরাজ্যের বিজ্ঞানী স্যার গ্রেগরি পি উইন্টার।

সা/৮/১০/২২.২৬

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close