আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
সারাদেশস্পট লাইট

রাজস্থানে তসলিমাকে নিয়ে ভক্তের বই!

toslimaওমেনআই: রাজস্থানের উদয়পুরের এম কে বহরা ২০ বছর ধরে পড়ছেন তসলিমা নাসরিনের বই। তসলিমার কোন বই প্রকাশিত হলে বহড়া বইটি একাধিকবার পড়েন।

তসলিমার বইয়ের লাইন পর লাইন, প্যারার পর প্যারা মুখস্ত বলে দিতে পারেন তিনি। নিজের ফেসবুক পেজে দেয়া এক স্ট্যাটাসে এ কথা জানিয়েছেন তসলিমা। অবাক করা বিষয় গলো পাঠক এবার নিজেই লিখেছে প্রিয় লেখককে নিয়ে।

নিজের স্ট্যাটাসে তসলিমা লিখেছেন, ‘কুড়ি বছর ধরে তিনি আমার বই পড়ছেন। এক বই একবার নয়, একাধিকবার পড়েন। যখনই আমার নতুন কোনও বই বেরোয়, তার প্রধান কাজ সেই বই যোগাড় করা, পড়ে ফেলা এবং বই সম্পর্কে তার মতামত লিখে ফেলা। তার লেখা রিভিউ বিভিন্ন পত্রিকায় ছাপানো হয়। এসবের খবর রাখা খুব স্বাভাবিক কারণেই আমার হয়ে ওঠে না। উদয়পুর থেকে আমার সঙ্গে দেখা করার একটা সুযোগ মিললেও মিলতে পারে এরকম একটা আশ্বাস পেয়ে তিনি চলে এসেছেন। ’

তসলিমার স্ট্যাটাস আরও জানান, এম কে বহরার বয়স এখন ৭৬। এক চোখের জ্যোতি আর নেই। তবে তসলিমার বই থেকে লাইনের পর লাইন মুখস্ত বলে যেতে পারেন তিনি। বইয়ের ওপর রোদ পড়লেই কেবল তিনি কিছুটা পড়তে পারেন। লোক রেখে তিনি তসলিমার শেষ ২ বই পড়েছেন। তবে তসলিমাকে নিয়ে লিখতে অসুবিধা হচ্ছে তার। লেখায় খুব কাটাছেড়া করার অভ্যেস আছে বলে এই সমস্যা হচ্ছে বলে তসলিমাকে জানিয়েছেন তিনি।

তসলিমাকে নিয়ে যে বইটি তিনি লিখছেন , তা হবে ৫০০ পাতার।

এমন একজন ভক্তকে পেয়ে মুগ্ধ হয়েছেন লেখক তসলিমা নাসরিন। স্ট্যাটাসে ফুটে উঠেছে সেই আনন্দের অভিব্যক্তি।

তিনি লিখেছেন, ‘আজ মনে হয়েছে আমার একটা পেনটিং এর সামনে দাঁড়িয়ে এক বোদ্ধা আর্ট-ক্রিটিক ঘন্টার পর ঘণ্টা বলে যাচ্ছেন পেনটিংটা নিয়ে। আমি তো পাখির চোখে পৃথিবীটা দেখি। আজ মনে হয়েছে কেউ পাখির চোখে আমাকে দেখছে।’

ঢাকা, ১২ এপ্রিল (ওমেনঅাই)/এসএল/

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close