আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
জাতীয়

খালেদা গ্রেপ্তার না গৃহবন্দি, স্পষ্ট করার দাবি বিএনপির

ওমেন আই :

বিরোধী দলীয় নেতা খালেদা জিয়াকে সরকার তার বাসায় ‘অন্যায়ভাবে অবরুদ্ধ’ করে রেখেছে অভিযোগ করে তিনি গ্রেপ্তার না গৃহবন্দি- তা স্পষ্ট করার দাবি জানিয়েছে বিএনপি।

বিএনপির সাংসদদের ৮ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল শুক্রবার বিকালে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে এই দাবির বিষয়টি তুলে ধরে।

বিকাল তিনটা ২৮ মিনিটে বিরোধী দলীয় প্রধান হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুকের নেতৃত্বে বিএনপি নেতারা বঙ্গভবনে প্রবেশ করেন।

৪৪ মিনিট বৈঠকের পর বঙ্গভবন থেকে বেরিয়ে ফারুক সাংবাদিকদের বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দিয়ে বিরোধী দলীয় নেতাকে তার বাসায় অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। কাউকে তার সঙ্গে দেখা করতে দেয়া হচ্ছে না। তাকে তার কার্যালয়েও যেতে দেয়া হচ্ছে না।

“বিরোধী দলীয় নেতাকে গ্রেপ্তার, না-কি গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে- সরকার তা স্পষ্ট করেনি। এ বিষয়ে আমরা রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন জানিয়েছি।”

ফারুক বলেন, তারা চান, বিরোধী দলীয় নেতাকে তার কার্যালয়ে যেতে দেয়া হোক। তার বাসভবনের সামনে থেকে কড়াকড়ি তুলে নেয়া হোক।

“আমরা রাষ্ট্রপতির কাছে মৌলিক অধিকার রক্ষার বিষয়টিও তুলে ধরেছি। রাষ্ট্রপতি আমাদের আশ্বস্ত করেছেন, সরকারের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলবেন।”
রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ৪৪ মিনিট কথা হয়েছে জানালেও নির্বাচন ও বিএনপির আন্দোলন নিয়ে কোনো কথা হয়েছে কি-না সে বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি ফারুক।

বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া নয়া পল্টনে যেতে চাইলেও পুলিশের বাধায় ওইদিন তিনি গুলশানের বাসা থেকে বের হতে পারেননি। তার বাসার সামনে এখনো কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা রেখেছে পুলিশ।

এই পরিস্থিতিতে বিএনপির দাবি, তাদের চেয়ারপার্সনকে ‘কার্যত গৃহবন্দি’ করে রাখা হয়েছে, যদিও সরকারের পক্ষ থেকে বিষয়টি অস্বীকার করা হচ্ছে।

একই বিষয়ে বৃহস্পতিবার স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে দেখা করে স্মারকলিপি দেন বিএনপির সাংসদরা।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “আন্দোলন সংগ্রাম অব্যাহত আছে, তা চলবে। এ বিষয়ে জোটের পক্ষ থেকে বলা হবে। আমরা কথা বলব না।”

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাতের বিষয়ে অবহিত করতে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করার চেষ্টা করবেন বলেও সাংবাদিকদের জানান বিরোধী দলীয় প্রধান হুইপ।

অন্যদের মধ্যে বিএনপির সাংসদ এবিএম আশরাফ উদ্দিন নিজান, নাজিম উদ্দিন আহমেদ, হারুনুর রশিদ, নিলোফার চৌধুরী মনি, রেহানা আক্তার রানু, সৈয়দা আশিফা আশরাফী পাপিয়া এবং রাশেদা বেগম হীরা এই প্রতিনিধি দলে ছিলেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close