আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
ক্যারিয়ার/জব সার্চ

নরওয়েতে উচ্চ শিক্ষার টুকিটাকি

norwoeওমেনঅাই: ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত নরওয়ে ইউরোপ মহাদেশের স্ক্যান্ডিনেভিয়ার দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম। অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ এই দেশটির শিক্ষাব্যবস্থা অত্যন্ত আধুনিক। এখানকার বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ডিগ্রি সব থেকে উন্নত। আন্তর্জাতিক মানের শিক্ষাব্যবস্থা প্রদানে নরওয়ের তালিকা মোটামুটি প্রথম দিকে। এখানে শিক্ষার্থীদের যেমন পড়াশোনায় টিউশন অনেক কম তেমনি পার্টটাইম কাজের যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। তাই বিদেশে উচ্চশিক্ষার তালিকায় নরওয়ে প্রথম সারির একটি। বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরাও ইচ্ছে করলে নিতে পারেন নরওয়ের ডিগ্রি।

# শিক্ষাব্যবস্থা
নরওয়ের পড়াশোনা মোটামুটি আমাদের দেশের মতোই। উচ্চশিক্ষার স্তর বিন্যাসে ব্যাচেলর মাস্টার্স পিএইচডি তথা সব ডিগ্রিই রয়েছে। এখানে ব্যাচেলর কোর্স বা ডিগ্রির মেয়াদ তিন-চার বছর। মাস্টার্স এক-দুই বছর এবং পিএইচডি তিন বছরের। এগুলোর পাশাপাশি এখানে রয়েছে কিছু নন-ডিগ্রি প্রোগ্রাম। এর মেয়াদ সাধারণত ১৫ দিন হতে এক বছর পর্যন্ত।

# পড়াশোনার ভাষা
নরওয়েতে পড়তে চাইলে আপনাকে হয় নরওয়েজিয়ান ভাষা অথবা ইংরেজি ভাষায় পড়তে হবে। আর এজন্য আইইএলটিএস এ লাগবে ৫.৫-৬.০ আর টোফেল হলে সিবিটি-২১৩ আর আইবিটি ৮০।

# পড়ার বিষয়
আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি বা বিজ্ঞানের বিষয় থাকলেও মোটামুটি সব বিষয়েই পড়াশোনার ব্যবস্থা রয়েছে নরওয়েতে। এর মধ্যে অন্যতম বিষয় হলো মেডিসিন, বায়োলজি, ফিজিক্স, ডেন্টিস্ট্রি, আর্টস, এডুকেশন, আইন, থিওলজি, সোশ্যাল সায়েন্স, বিভিন্ন ল্যাঙ্গুয়েজ কোর্স, বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন, নার্সিং, কম্পিউটার সায়েন্স, কমিউনিকেশন, ইঞ্জিনিয়ারিং প্রভৃতি।

# নরওয়েতে বছরে ২টা সেমিস্টারঃ- ফল: আগস্ট-ডিসেম্বর এবং স্প্রিং: জানুয়ারি-জুন।

# পড়াশোনা ও থাকা খাওয়ার খরচ
পড়াশোনার জন্য নরওয়েতে বেশির ভাগ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেই কোন টিউশন ফি দিতে হয় না। তবে প্রাইভেট ইন্সটিটিউট হলে লাগবে। আর সরকারি গুলোতে বড়জোর প্রতি সেমিস্টারে ১০০ ডলার লাগতে পারে। আর থাকা খাওয়ার জন্য মাসে ১২/১৩ শত ডলার লাগবে।

# পার্টটাইম জব
নরওয়েতে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার পাশাপাশি পার্টটাইম জবের ব্যবস্থা আছে। সপ্তাহে ২০ ঘন্টা কাজের সুযোগ আছে। যাতে প্রতি ঘণ্টা ৬/৭ ডলার আয় করা যায়। তবে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের কাছে নরওয়ের আবহাওয়া কিছুটা প্রতিকূল ফলে এখানে কাজ করা কিছুটা কষ্টসাধ্য।

# ভর্তি ও ভিসা প্রসেসিং
নরওয়ের পছন্দকৃত বিশ্ববিদ্যালয়ে যাবতীয় তথ্য পাঠানোর অনুরোধ করে চিঠি বা ই-মেইল করলে তাদের তথ্যের আলোকে কাগজপত্র পাঠিয়ে ভর্তি নিশ্চিত করতে হয়। এখানে ইউনিভার্সিটি অ্যান্ড কলেজেস অ্যাডমিশন সার্ভিস ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পাদন করে। এরপর ভর্তি হয়ে মনোয়নপত্র দেখিয়ে নরওয়ে দূতাবাস থেকে ভিসা সংগ্রহ করতে হয়।

# NORAD-স্কলারশিপ
Nowegian Agency for Development Co-operation (NORAD) প্রায় সব বিষয়ে স্কলারশিপ দিয়ে থাকে। শিক্ষার্থীকে দুই বছরের থাকা-খাওয়ার খরচসহ একটি রিটার্ন প্লেন টিকেট দেয়া হয়। ব্যাচেলর ডিগ্রিধারীরা আবেদন করতে পারেন। প্রত্যেক বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে আবেদন করতে হয়।

ঢাকা, ২৯ এপ্রিল (ওমেনআই)//এসএল/

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close