আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
লাইফ স্টাইল

ওজন কমাতে সেরা ৭ টিপস

fruitওমেনঅাই:ডায়েট কন্ট্রোল ও নিয়মিত ব্যায়াম করেও যদি আপনার ওজন না কমে তবে সেটা খুবই হতাশাজনক। এ ক্ষেত্রে আপনার জন্য সবচেয়ে ভালো পরামর্শ হতে পারে বিপাকীয় প্রক্রিয়াকে আরো সক্রিয় করার মাধ্যমে ওজন নিয়ন্ত্রণ করা। সাপ্লিমেন্টিং ডটকমের পুষ্টি বিষয়ক পরামর্শক এবং দৈহিক রুপান্তর বিশেষজ্ঞ মাইক জ্যাকসনের এই সাতটি পরামর্শ মেনে চললে আপনার শরীরের অতিরিক্ত চর্বি ঝরে পড়ার পাশাপাশি বিপাকীয় প্রক্রিয়াও আরো সক্রিয় হয়ে উঠবে।

১. কম খান, কিন্তু উপোস করবেন না: ডায়েট কন্ট্রোল করতে গিয়ে অনেকে প্রথমেই ব্যাপকভাবে খাওয়া কমিয়ে দিয়ে পরিপাকতন্ত্রের স্বাভাবিক কর্মপ্রক্রিয়া ধ্বংস করেন। প্রতিদিন ১ হাজার ক্যালোরির কম খাবার খেলে আপনার দেহ খাদ্য জমা করে রাখতে শুরু করে এবং উপোস থাকার জন্য পরিপাকতন্ত্রের কর্মপ্রক্রিয়ার গতি কমিয়ে দেয়। ফলে খওয়া কমিয়ে দিলে প্রথমদিকে হয়তো আপনার ওজন কিছুটা কমে আসতে পারে। কিন্তু এরপর পুনরায় বেশি পরিমাণে ক্যালোরি গ্রহণ শুরু করলে ওজন ফের বেড়ে যাবে।

এছাড়া এতে আপনি নিঃশক্তিও হয়ে পড়বেন। যখন আপনার দেহ পুষ্টি জমা করে রাখতে থাকবে তখন শক্তি উৎপাদনের জন্য আর কিছুই অবিশষ্ট থাকবে না। ওজন কমানোর জন্য ক্যালোরি গ্রহণের পরিমাণ কমিয়ে দেওয়াটাও গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু এক্ষেত্রে কখনোই সীমা অতিক্রম করবেন না। তারচেয়ে বরং কম ক্যালোরিযুক্ত স্বাস্থ্যকর খাবার-দাবার খান এবং নিজেকে প্রাণবন্ত রাখুন।

২. সঠিক খাবার খান: প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদানসমৃদ্ধ খাবার খেলে আপনার পরিপাকতন্ত্রও ঠিকমতো কাজ করবে। এজন্য প্রোটিন ও ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার-দাবার বেশি খান। প্রোটিনে মাংসপেশি সুগঠিত হয়; আর মাংসপেশি চর্বি দ্রুত পোড়াতে সহায়ক। ক্যালসিয়ামও পেটের চর্বি পোড়াতে খুবই কার্যকর।

এছাড়া মসলাজাতীয় খাদ্যও পরিপাকতন্ত্রকে সক্রিয় করতে সহায়ক। মসলাজাতীয় খাবারের মধ্যে ঝাল মরিচ সবচেয়ে কার্যকর। পরিপাকতন্ত্রের খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরনের গতি কয়েকগুন বাড়িয়ে দেয় ঝাল মরিচ।

৩. পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করুন: ভারসাম্যপূর্ণ ডায়েটিংয়ের পাশাপাশি আপনাকে প্রচুর পরিমাণ পানিও খেতে হবে। ঠাণ্ডা পানিতে দেহের আভ্যন্তরীন তাপমাত্রায় বদল ঘটে। ফলে শরীর তখন আভ্যন্তরীন তাপমাত্রা বৃদ্ধিতে আরো সক্রিয় হয়ে উঠলে পরিপাকতন্ত্রের কর্মতৎপরতাও বেড়ে যায়। ফলে শরীরের অতিরিক্ত চর্বি পুড়িয়ে শক্তি উৎপাদিত হয়।

৪. ব্যায়ামের ধরণে বদল আনুন: প্রতিদিন একই রুটিনে একই ব্যায়াম করলে আপনার পরিপাকতন্ত্রও বন্ধ্যাবস্থায় পতিত হবে। এছাড়া এতে আপনি একঘেঁয়েমিতেও আক্রান্ত হবেন। ফলে কোনো বিশেষ ধরণের ব্যায়াম করার সময় মাঝে-মধ্যে ভিন্নতা আনুন। যেমন আপনি যদি ওজন কমানোর জন্য প্রতিদিন সকালে হাঁটাহাঁটি করতে অভ্যস্ত হয়ে থাকেন তাহলে প্রতি পাঁচ মিনিট পরপর এক মিনেটের জন্য দৌড়ানোর চেষ্টা করুন। সপ্তাহে অন্তত পাঁচদিন, আর সম্ভব হলে প্রতিদিনই ৩০ থেকে ৬০ মিনিট করে ব্যায়াম করুন।

৫. মাংসপেশি তৈরির জন্য ভারোত্তলন ব্যায়াম করুন: নিয়মিত ব্যায়ামের মাধ্যমে হৃদপিণ্ড সচল রাখার মধ্য দিয়েই শুধুমাত্র আপনি আপনার পরিপাকতন্ত্রের কর্মতৎপরতা বাড়াতে পারেন, তা নয়। ভারোত্তলন ব্যায়ামের মাধ্যমে মাংসপেশি তৈরি করার মধ্য দিয়েও আপনি আপনার পরিপাকতন্ত্রের কর্মতৎপরতা শক্তিশালি করতে পারেন। কারণ মাংসপেশি চর্বির চেয়ে বেশি ক্যালোরি পোড়ায়। এমনকি আপনি যখন বিশ্রাম নেন তখনও মাংসপেশি চর্বি পেড়াতে থাকে।

৬. পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমান: পর্যাপ্ত পরিমাণে না ঘুমালে শারীরিক এবং মানসিক পরিস্থিতির প্রতিটি দিকই ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ ক্ষতি থেকে বাদ যায় না আপনার পরিপাকতন্ত্রও। ঘুমের ব্যাঘাত ঘটলে খাবার হজম প্রক্রিয়া খুব সহজেই বাধাগ্রস্ত হয়। যদিও বলা হয়ে থাকে যে, হজম প্রক্রিয়া সচল রাখতে প্রতিরাতে অন্তত ৭ ঘন্টা ঘুম দরকার তথাপি ৯ ঘন্টা ঘুমে পরিপাকতন্ত্র সবচেয়ে ভালো কাজ করে।

পরিপাকতন্ত্রের কর্মপ্রক্রিয়া সচল রাখার জন্য পর্যাপ্ত ঘুম খুবই জরুরি। কারণ ঘুমের মধ্যেই মানবদেহ রোগ-প্রতিরোধ সিস্টেম থেকে শুরু করে প্রোটিন ভাঙ্গার মতো কর্মপ্রক্রিয়া সচল রাখার জন্য সব গুরুত্বপূর্ণ ও প্রয়োজনীয় হরমোন নিঃসরন করে থাকে। কিন্তু পর্যাপ্ত ঘুম না হলে এসব হরমোনের অভাবে কার্বোহাইড্রেট পোড়ানোর মতো মৌলিক বিপাকীয় কর্মতৎপরতাও বাধাগ্রস্ত হয়।

৭. সার্বিক স্বাস্থ্যের ভারসাম্য রক্ষা করা: মনে রাখবেন পরিপাকতন্ত্রকে সচল রাখাটা ওজন কমানোর তৎপরতার অনেকগুলো দিকের একটি দিক মাত্র। একটি স্বাস্থ্যবান দেহ পাওয়াটাই আপনার সার্বিক লক্ষ্য হওয়া উচিৎ। এতে প্রত্যাশা মতো ক্যালোরি পোড়াতে না পারলেও আপনি সুখী থাকবেন। একটি স্বাস্থ্যবান দেহ অর্জনের জন্য আপনাকে ভারসাম্যপূর্ণ ডায়েট গ্রহণ ও নিয়মিত ব্যায়াম করা এবং পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমাতে হবে। দেহের ওজন ও আকার-আকৃতিতে পরিবর্তন আসলে তা আপনাকে এমন কোনোভাবে চমকে দিবে যা হয়তো আপনি কল্পনাও করেননি।

ঢাকা, ৪ মে (ওমেনঅাই)//এসএল//

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close