আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
আন্তর্জাতিকস্পট লাইট

৪২ বছর ধরে সংজ্ঞাহীন নার্স অরুণা!

Aruna-Shanbaug20150516112902ওমেনঅাই:মুম্বাইয়ের এক সরকারি হাসপাতালে গত ৪২ বছর আগে এক কর্মচারীর হাতে ধর্ষিতা হয়েছিলেন ওই হাসপাতালেরই নার্স অরুণা শানবাউগ। এরপর থেকেই তিনি কোমায় রয়েছেন। বর্তমানে তার অবস্থা গুরুতর। শনিবার এনডিটিভি’র এক প্রতিবেদনে এ কথা জানানো হয়েছে।

অরুণা চাকরি করতেন মুম্বাইয়ের কেম হাসপাতালে। সেখানেই হাসপাতালের এক কর্মচারী তাকে ধর্ষণ করেন। এ ঘটনায় কোমায় চলে যান ২৪ বছরের তরুণী অরুণা। তখন থেকেই তিনি ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার দেখভাল করছেন ওই হাসপাতালেরই নার্সরা। বর্তমানে ৬৮ বছরের অরুণা এখন নিউমোনিয়ায় ভুগছেন এবং কৃত্রিম উপায়ে তার শ্বাস প্রশ্বাস চলছে।

হাসপাতালের এক চিকিৎসক এনডিটিভি’কে জানিয়েছেন, তাকে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে রাখা হয়েছে। তার প্রয়োজনীয় চিকিৎসার জন্য যাবতীয় ব্যবস্থা নিয়েছে হাসপাতাল।

অরুণা যখন পাশবিকতার শিকার হন তখন তিনি কেম হাসপাতালে জুনিয়র নার্স হিসেবে কাজ করতেন। ওই হাসপাতালেরই ওয়ার্ডবয় সোহানলাল বার্তা বাল্মিকী তাকে ধর্ষণ করেন। শুধু তাই নয়, সে একটি লোহার শিকল দিয়ে অরুণাকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যার চেষ্টা করে। এ কারণেই চিরতরে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় চলে যান অরুণা।

২০১১ সালে লেখক পিঙ্কি ভিরানি নার্স অরুণাকে জোর করে খাওয়ানো বন্ধ করার জন্য সুপ্রিম কোর্টে আপিল করেন। তার যুক্তি ছিল, অরুণা একজন মৃত মানুষ এবং তাকে এভাবে বাঁচিয়ে রাখার প্রয়োজন নেই।

তখন কেম হাসপাতালের বর্তমান এবং সাবেক কর্মচারী এবং নার্স তার এ আপিলের বিরুদ্ধে আইনি লড়াই চালিয়ে যান। পরে তার ওই আপিল বাতিল করে দেন সুপ্রিম কোর্ট।

প্রসঙ্গত, অরুণাকে নিয়ে লেখিকা পিঙ্কি ভিরানির লেখা বইয়ের শিরোনাম ছিল ‘অরুণার গল্প’।

ঢাকা, ১৬ মে (ওমেনঅাই)//এসএল//

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close