আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
প্রযুক্তি

স্মার্টফোনে চার্জ ধরে রাখার ৯ উপায়

smartphone1434441169ওমেনঅাই: স্মার্টফোন মানেই নানা আকর্ষণীয় ফিচারের সমারোহ। পাশাপাশি লোভনীয় সব অ্যাপ-এর দুনিয়া। আর এসব ব্যবহারের ফলে স্মার্টফোনের চার্জ শেষ হয় দ্রুত। তবে স্মার্টফোনে চার্জ ধরে রাখার বিভিন্ন উপায়ও রয়েছে। সম্প্রতি এ নিয়ে টাইমস অব ইন্ডিয়ার বাংলা সংস্করণে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে।

জেনে নিন স্মার্টফোনে চার্জ ধরে রাখার বেশ কিছু উপায়। যেগুলো মেনে চললে স্মার্টফোনে চার্জ ধরে রাখা যাবে আগের চেয়ে আরো বেশি।

* স্ক্রিন ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখা বা অটোমেটিক মোডে রাখা: স্মার্টফোনের ব্যাটারি লাইফে অনেকটাই প্রভাব রয়েছে স্ক্রিন ব্রাইটনেসের। স্ক্রিনের আলো যত উজ্জ্বল করবেন, ততই চাপ পড়ে ব্যাটারির ওপর। চার্জ ফুরিয়ে যায় দ্রুত। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, স্ক্রিন ব্রাইটনেস অটোমেটিক মোডে রাখুন। যদি ম্যানুয়াল মোডে রাখেন, তাহলে ৫০ শতাংশের কাছাকাছি ব্রাইটনেস রাখার চেষ্টা করুন। স্ক্রিনের ঔজ্জ্বল্য কমিয়ে রাখলে ব্যাটারি লাইফ বেড়ে যায়।

* প্রয়োজন না হলে ব্লুটুথ ও ওয়াই-ফাই বন্ধ রাখুন: এই বিষয়টি নিয়ে অনেকেই মাথা ঘামায় না। অনেকেরই স্মার্টফোনে দিনভর ব্লুটুথ ও ওয়াই-ফাই চালু করা থাকে। ব্যাটারি লাইফের ক্ষেত্রে যা অত্যন্ত নেতিবাচক। এই দুইটি ফিচারই ব্যাপক হারে ব্যাটারি লাইফ কমিয়ে দেয়। ফলে আপনার অজান্তেই দ্রুত চার্জ ফুরিয়ে যায়। সুতরাং দরকার না হলে ব্লুটুথ ও ওয়াই-ফাই বন্ধ রাখুন।

* লোকেশন বা জিপিএস ট্র্যাকিং লক্ষ্য রাখুন: ব্লুটুথ ও ওয়াই-ফাই এর মতোই লোকেশন ট্র্যাকিং ফিচারেও (যেমন গুগল ম্যাপস) ব্যাপক হারে ব্যাটারি লাইফ ক্ষয় হয়। তাই শুধুমাত্র যখন দরকার, তখনই লোকেশন ট্র্যাকিং ফিচার অন রাখুন রাখুন। অন্য সময় এই ফিচার বন্ধ রাখলে আখেরে ব্যাটারির লাভ। দ্রুত চার্জ শেষ হয়ে যাওয়ার ঝামেলা থেকে নিস্তার মিলবে।

* স্ক্রিন টাইম-আউট: স্ক্রিন টাইম-আউট হল, কল শেষে বা ব্যবহারের পর যে কোনো স্মার্টফোনের স্ক্রিন স্বয়ংক্রিয় ভাবেই স্লিপ মোডে চলে যায়। অনেকেই স্লিপ মোডে যাওয়ার সময় বাড়িয়ে রাখেন। অর্থাৎ ব্যবহারের পর অনেকটা সময় ফোন অ্যাকটিভ থাকবে। অথচ স্ক্রিনের টাইম-আউট যত বাড়াবেন, ব্যাটারির ওপর তত চাপ পড়ে। তাই স্ক্রিন টাইম-আউট পারলে একেবারে ন্যূনতম করে দিন। দেখবেন ব্যাটারির চার্জও থাকবে অনেকক্ষণ।

* অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ ও নোটিফিকেশন: স্মার্টফোন আছে মানেই একগুচ্ছ অ্যাপ রাখতেই হবে, এর কোনো মানে হয় না। অনেক অ্যাপ আমাদের প্রয়োজন হয় না। কিন্তু সেই অ্যাপগুলো থাকলে প্রচুর নোটিফিকেশনও আসতে থাকে অনবরত। চেক করে দেখুন, ওই অ্যাপগুলো আসলেই আপনার দরকার কিনা। দরকার না থাকলে অ্যাপগুলো বন্ধ করে দিন। এতে ফোনের ব্যাটারি লাইফ বাড়বে। চার্জও থাকবে দীর্ঘ সময়।

* র‌্যাম খালি করুন: র‌্যামে প্রচুর জায়গা আছে মানেই একগুচ্ছ অ্যাপ আর ফিচারে ভর্তি করে রাখতে হবে, এরকম অভ্যাস ত্যাগ করাই ভালো। স্মার্টফোনে র‌্যাম যত খালি হয়, ব্যাটারি লাইফও তত বাড়ে। অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ আন-ইনস্টল করে দিলে ব্যাটারি লাইফ অনেকটাই বেড়ে যায়। চার্জও থাকে দীর্ঘ সময়।

* ফোন গরম হচ্ছে না তো?: বর্তমানে বেশিরভাগ স্মার্টফোনই স্লিম বা পাতলা। ওই পাতলা কভারের নীচে থাকে শক্তিশালী হার্ডওয়্যার সিস্টেম। লক্ষ্য করে দেখবেন স্মার্টফোন প্রায়ই গরম হয়ে যায়। তার কারণ ওই জটিল হার্ডওয়্যার সিস্টেম। অনেক্ষণ সূর্যের তাপে থাকলে বা পকেটে থাকলে ফোন গরম হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। তাই চেষ্টা করুন সরাসরি সূর্যের তাপে যাতে ফোন বেশিক্ষণ থাকে এবং পকেটে যেন দীর্ঘক্ষণ না থাকে। কারণ ফোন যত গরম হয়, চার্জও ততই ফুরোতে থাকে।

* ফ্ল্যাশ লাইট কম ব্যবহার করুন: ছবি তোলার সময় ফ্ল্যাশ লাইট যতটা সম্ভব কম ব্যবহার করুন। প্রয়োজন না হলে ফ্ল্যাশ লাইট বন্ধই রাখাই ভালো। কারণ এলইডি ফ্ল্যাশ ব্যবহার করতে ভালো লাগলেও, প্রচুর ব্যাটারিও ফুরোয়। চার্জ কমে যায় দ্রুত।

* ব্যাটারি চার্জ দেওয়ার সময় খেয়াল রাখুন: যখন ইচ্ছে চার্জ না দেওয়াই ভালো। স্মার্টফোনে বারবার চার্জ দিলে ব্যাটারি লাইফ কমে যায়। সম্পূর্ণ চার্জ না কমলে চার্জ দেবেন না। আর চার্জে দেওয়াকালীন ডিসচার্জ করাও ঠিক নয়। তাতে ব্যাটারির ওপর চাপ পড়ে।

ঢাকা, ১৭ জুন (ওমেনঅাই)//এসএল//

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close