আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
শিক্ষা

ইডেনে দলীয় নেত্রীকেই পেটালো ছাত্রলীগ নেত্রী!

edenওমেনঅাই: দলীয় কোন্দলের জের ধরে রাজধানীর ইডেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির প্রচার সম্পাদক মুনমুন নাহার বৈশাখীকে পিটিয়েছে কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইসরাত জাহান অর্চি।

রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কলেজের রাজিয়া হলে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, শনিবার রাত ১২টার দিকে কলেজ সভাপতি নিপা, সাধারণ সম্পাদক অর্চি, লাবনী, রুমানা ও মিশু মিলে বৈশাখীকে বকুলতলায় ডাকেন এবং হুমকি ধমকি দিয়ে রুমে পাঠিয়ে দেন।

পরে রোববার সকাল ১০টার দিকে আবারো বৈশাখিকে ডাকতে ১০-১২ জন মেয়ে পাঠান অর্চি। ঘুম থেকে উঠে প্রস্তুত হয়ে অর্চির সাথে দেখা করতে যাবার আগেই সাড়ে দশটার দিকে অর্চি বৈশাখীর কক্ষে আসে এবং দরজা আটকে মারধর করে। একপর্যায়ে রাজিয়া হলের ৩০৭ নম্বর কক্ষে এনে আটকে রেখে আবারো মারধর করা হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বৈশাখী বলেন, ‘আমি আগে অর্চি আপুর সঙ্গে একই কক্ষে থাকতাম। আমাদের খুবই ভালো সম্পর্ক ছিল। কিন্তু হঠাৎ কেন তিনি মারধর করলেন বুঝতে পারছি না। তবে কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নিঝুম আপুর বাসায় যাবার কারণে তিনি ক্ষিপ্ত হতে পারেন বলে মনে হচ্ছে।’

ছাত্রলীগের কয়েকজন নেত্রীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত একবছর ধরেই ইডেন ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত। কিন্তু তারপরও সেখানকার সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকই এখনো হর্তাকর্তা। তুচ্ছ অজুহাতেই হলের পদবীধারী নেত্রীদের পেটানোর অভিযোগ আছে দু’জনের বিরুদ্ধেই।

এছাড়া আগামী ২৫-২৬ জুলাই ছাত্রলীগের জাতীয় সম্মেলনের পর অনেককেই হল থেকে বের করে দেয়ারও হুমকি দিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেন নেত্রীরা।

অভিযোগ অস্বীকার করে অর্চি বলেন, ‘আমি কাউকে মারধর করিনি, হুমকিও দেইনি। শুধু ডেকে কথা বলেছি। এসব আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র।’

কলেজ প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক হোসনে আরা বেগম বলেন, ‘বিষয়টি আমি শুনেছি, খোঁজ নিয়ে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

উল্লেখ্য, এর আগেও গত ২৫ জুন এক ছাত্রীকে সারারাত রুমে আটকে রেখে মারধর করার অভিযোগ উঠে ইডেন কলেজ সভাপতি নাজনীন নাহার নিপার বিরুদ্ধে। এছাড়া আরো ৬ ছাত্রীকে মারধর করে কলেজ থেকে বের করে দেয়ারও অভিযোগ আছে।

ঢাকা, ০৬ জুলাই (ওমেনআই)//এসএল//

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close