আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
সারাদেশ

নারীর ক্ষমতায়নে এখনো পিছিয়ে বাংলাদেশ

naroiওমেনঅাই: বাংলাদেশ জনসংখ্যার চাপ, দুর্নীতি, গুম-হত্যা ও নারী নির্যাতনসহ বিভিন্ন সমস্যা ক্রমাগতভাবে কাটিয়ে উঠছে। সম্প্রতি, জতিসংঘের দেয়া তথ্য মতে, ‘মধ্যম আয়ের’ দেশে পরিণত হয়েছে বাংলাদেশ। আগামীতে দেশটি ‘উন্নত’ রাষ্ট্রের সমপর্যায়ে চলে আসবে, এমন ধারণাও করা হচ্ছে। তবে, জেন্ডার সমতা ও নারীর ক্ষমতায়ন ইস্যুতে দেশটি এখনো ‘শিশুকাল পার করছে’। বিবিসি বাংলার প্রতিবেদনে উঠে এসেছে, শুধুমাত্র শিক্ষাক্ষেত্রে জেন্ডার সমতা অর্জিত হয়েছে।

বিবিসি বাংলার প্রতিবেদন: সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষমাত্রা বা এমডিজির তৃতীয় লক্ষ্য জেন্ডার সমতা ও নারীর ক্ষমতায়নের যে লক্ষ্যটি রয়েছে সেক্ষেত্রে বাংলাদেশ খুব সামান্যই অর্জন করতে পেরেছে। শুধুমাত্র শিক্ষাক্ষেত্রে জেন্ডার সমতা অর্জিত হয়েছে বলে ওই প্রতিবেদনে জাতিসংঘের বরাতে জানানো হয়েছে।
গেলো পনেরো বছরে কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে শতকরা ৫০ ভাগ নারীর অন্তভুর্ক্তির লক্ষ্যমাত্রা ছিল কিন্তু অর্জিত হয়েছে শতকরা কুড়ি ভাগ। রাজনীতিতেও নারীর অংশগ্রহণ আশানুরূপ বাড়েনি। নীতিনির্ধারণেও নারীর অবদান সামান্যই।

একজন নারী উদ্যোক্তা তাসলিমা মিজি যিনি একসময় সাংবাদিকতা করতেন তাঁর মতে, ‘নারীর ক্ষমতায়ন যদি একটা মানুষ হয় তাহলে সেটি মাত্র তার শিশুকাল পার করছে। মাত্র তার জন্ম হয়েছে, সেটাকে যত্ন করতে হবে সবাই মিলে। তারপরে হয়তো পরিপূর্ণ মানুষ অর্থাৎ ক্ষমতায়নটা হতে পারে।’

তাসলিমা মিজি বলেছেন, নারীকে এখনও অত্যাচার নির্যাতন, অবমূল্যায়নসহ নানামুখী সমস্যা পার করতে হয়। ক্ষমতায়ন আমার কাছে মনে হয় একটা বায়বীয় ধারণা। একটা মেয়ে হয়তো নিজের মানসিক শক্তির কারণে এগিয়েছে, কেউ হয়তো তার পরিবারের সাপোর্টের কারণে কিছুটা এগিয়েছে। কিন্তু সামগ্রিক একটা সিস্টেমেটিক ডেভেলপমেন্টের কথা যে বলা হয় যেটা সমগ্র সোসাইটিকে টেনে নিয়ে যেতে পারবে সেরকম কোন পরিবর্তন চোখে পড়ছেনা।’
বাইরে কাজ করতে গেলে এখনও অনেক নারীকে তার পরিবারেই অনেক কথা শুনতে হয়। পরিবারের কাজগুলো সেরে তারপর বাইরে বের হতে হয়। আর বাইরের কাজেও বাজে অভিজ্ঞতার মুখে পড়তে হয় বলেও জানান তাসলিমা মিজি।

একটি কম্পিউটার বিক্রির প্রতিষ্ঠান চালাচ্ছেন তাসলিমা মিজি। তিনি বলছিলেন, ব্যবসাক্ষেত্রে নারী এটা অনেক পুরুষ সহজ দৃষ্টিভঙ্গীতে দেখেনা। তারপর বিশ্বাসের ক্ষেত্রে ক্লায়েন্টরাও নানাভাবে অপদস্ত করে।
নারীদের সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে জানিয়ে মিজি বলেন, মেয়েরা সবধরনের কাজ করবে পরিবার সমাজে সবকিছুতে সমান ভূমিকা রাখবে এই মানসিকতা এখনও মানুষের মনে তৈরি হয়নি। তবে আমাদের হাল ছাড়লে হবেনা।

সূত্র: ওয়েব সাইট

ঢাকা, ০৬ জুলাই (ওমেনআই)//এসএল//

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close