আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
মতামত

‘যাদের কোপানোর কথা তাদেরকে নয় নিরীহ মানুষ কোপাচ্ছে ফ্রাংকেনস্টাইন’

toslimaতসলিমা নাসরিন: ব্লগার নিলাদ্রী চট্টোপাধ্যায়কে (নিলয় নীল) হত্যার ঘটনায় ফেসবুকে ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত বাংলাদেশের নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিনও তার নিজ ফেসবুক পাতায় ব্লগার নিলয় হত্যা বিষয়ে এক স্ট্যাটাস দিয়েছেন। স্ট্যাটাসে তিনি মন্তব্য করেছেন, দেশটাকে দেশের সরকারগুলোই পুরো নষ্ট করে দিয়েছে। যে ফ্রাংকেনস্টাইন তাঁরা তৈরি করেছেন, সেটি তাঁদের কোপানোর কথা। তবে তাঁরা এতই নিরাপত্তার মধ্যে নিজেদের রাখেন যে তাঁদের কোপাতে না পেরে নিরীহ জনগণকে কোপাচ্ছে তাঁদের ফ্রাংকেনস্টাইন।
তসলিমা নাসরিনের স্ট্যাটাসটি হুবহু নিচে তুলে ধরা হলো-

আহমেদ রাজিব হায়দার (থাবা বাবা)।
অভিজিৎ রায়।
ওয়াশিকুর রহমান বাবু।
অনন্ত বিজয় দাস।
নীলাদ্রি চট্টোপাধ্যায় (নিলয় নীল।)

এরপর কে? আমরা জানি না এরপর কে। অনেক ব্লগার দেশ ছেড়েছে। যারা আছে দেশে, তাদের কুপিয়ে মেরে ফেলা হবে। একজন ইসলাম-সমালোচকেরও অস্তিত্বও দেশে রাখা হবে না। ওপরের পাঁচজন যাদের নৃশংস ভাবে হত্যা করা হয়েছে, তাদের মধ্যে তিনজনই হিন্দু পরিবারের। দেখে শুনে মনে হচ্ছে, হিন্দু পরিবারের ইসলাম-সমালোচকদের ওপর রাগটা একটু বেশি।

বাংলাদেশ কোনও ইসলাম-সমালোচককে নিরাপত্তা দেবে না। হাসিনা বিবি ভয় পাচ্ছেন, নাস্তিকদের নিরাপত্তা দিলে তাঁকে না আবার নাস্তিক বলে ভাবা হয়। নাস্তিক বলে ভাবলে তাঁর তো আবার মুসলমানের ভোট জুটবে না।
ইসলাম-সমালোচকদের যারা খুন করেছে, তাদের বিরুদ্ধে হাসিনা কোনও পদক্ষেপ নেবেন না, কারণ ওই একটিই, পদক্ষেপ নিলে যদি আবার তাঁকে ইসলাম-সমালোচকদের বন্ধু বলে ভাবা হয়। তাহলেও তো মুসলমানের ভোট তাঁর জুটবে না।

দেশটাকে দেশের সরকারগুলোই পুরো নষ্ট করে দিয়েছে। যে ফ্রাংকেনস্টাইন তাঁরা তৈরি করেছেন, সেটি তাঁদের কোপানোর কথা। তবে তাঁরা এতই নিরাপত্তার মধ্যে নিজেদের রাখেন যে তাঁদের কোপাতে না পেরে নিরীহ জনগণকে কোপাচ্ছে তাঁদের ফ্রাংকেনস্টাইন।
যে ক’জন ইসলাম-সমালোচক অবশিষ্ট আছেন দেশে, দেশ ছাড়ুন। আজই। এক্ষুণি। দেশের চেয়ে জীবন বড়। এক দেশ গেলে আরেক দেশ পাবেন। জীবন গেলে জীবন পাবেন না।

সূত্র: ফেসবুক স্ট্যাটাস

ঢাকা, ০৮ আগস্ট(্ওমেনঅাই)//এসএল//

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close