আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
রাজনীতি

শপথে সংবিধান লঙ্ঘণ হয়েছে: মির্জা ফখরুল

ওমেন আই:
বর্তমান সংসদের মেয়াদ শেষের আগেই সংসদ সদস্যদের শপথগ্রহণে সংবিধান লঙ্ঘিত হয়েছে বলে দাবি করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শপথ পড়িয়ে স্পিকার এবং এসব সদসের দ্বারা নির্বাচিত সংসদ নেতাকে সরকার গঠনের আমন্ত্রণ জানিয়ে রাষ্ট্রপতিও সংবিধান লঙ্ঘনের দোষে দুষ্ট হয়েছেন বলে তিনি মনে করেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পাঠানো এক সংবাদ বিবৃতিতে দলের পক্ষে এই বক্তব্য তুলে ধরেন মির্জা ফখরুল।

সংবিধানের ১২৩ (ক) অনুচ্ছেদ তুলে ধরে বিবৃতিতে বলা হয়, “৫ জানুয়ারির তথাকথিত নির্বাচনে নির্বাচিত বলে কথিত কোন ব্যক্তি সংবিধানের এই বিধান অনুযায়ী আগামী ২৪ জানুয়ারি অর্থাৎ বর্তমান সংসদের মেয়াদ উর্ত্তীণ না হওয়া পর্যন্ত কার্যভার নিতে পারেন না। “অথচ আজ সংসদ সদস্য হিসাবে শপথ গ্রহণের মাধ্যমে তারা কার্যভার গ্রহণ করেছেন। এটা সংবিধানের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।”

বৃহস্পতিবার সকালে জাতীয় সংসদের শপথ কক্ষে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নির্বাচিত সাংসদদের শপথ পড়ান স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।

বিবৃতিতে ফখরুল বলেন, “ গণবিচ্ছিন্ন ক্ষমতাসীন সরকার বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সদস্য হিসাবে ১৫৩ জনকে কোন ভোট ছাড়াই মনোনীত করার প্রকল্প বাস্তবায়িত করেছে।

“ভোটারবিহীন নির্বাচনী তামাশার মাধ্যমে অবশিষ্ট ১৪৭ জন সদস্যের মধ্যে ১৩৯ জনকে নির্বাচিত দেখিয়েছে সরকারের আজ্ঞাবহ এবং এদেশের ইতিহাসের সবচেয়ে নতজানু নির্বাচন কমিশন।”

এই নির্বাচনকে বিদেশিদের কাছে গ্রহণযোগ্য করতে নির্বাচন কমিশন ‘গায়েবি ভোটারদের কাল্পনিক হিসাব’ দেখিয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

“সরকারের পছন্দের স্থানীয় পর্যাবেক্ষকরাও এই হিসাবকে অতিরঞ্জিত তথা বানোয়াট বলেছে।”

শুধু সরকার ও নির্বাচন কমিশনই নয় শপথ পড়ানোর মাধ্যমে স্পিকার ও শপথ নেয়া সদস্যদের নেতাকে সরকার গঠনের আমন্ত্রণ জানিয়ে রাষ্ট্রপতিও সংবিধানের বিচ্যুতি ঘটিয়েছেন বলে মন্তব্য করেন তিনি।

সকালে শপথের পর আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদ নেতা নির্বাচিত হন। সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের নেতা হিসেবে তাকে সরকার গঠনের আহ্বান জানান রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ।

বিবৃতিতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব বলেন, “সংবিধান অনুযায়ী আজ যাদের শপথগ্রহণের কোন সুযোগ ছিল না, তাদেরকে শপথ পড়িয়ে, মাননীয় স্পীকারও সংবিধান লংঘন করেছেন।

“শপথ নেয়া এসব সদসের দ্বারা নির্বাচিত সংসদ নেতাকে সরকার গঠনের আমন্ত্রণ জানালে মহামান্য রাষ্ট্রপতির দ্বারাও সংবিধানের বিচ্যুতি ঘটবে বলেও স্পষ্ট বলা যায়।”

তিনি বলেন,“জনগণের ভোটাধিকার হরণ করে এবং ভোটবিহীন কারচুপির মাধ্যমে যারা সংসদ সদস্য হিসাবে শপথ নিয়েছেন তারা শুধু পবিত্র সংসদ ও গণতান্ত্রকেই কলংকিত করেন নাই বরং তারা জনগণের সাথে চরম বিশ্বাসঘতকতা করেছেন। সময় আসবে এবং জনগণ এই প্রহসনের জবাব দিবে।”

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close