আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
সারাদেশ

পঞ্চগড় থেকে শুরু হচ্ছে স্মার্টকার্ডের কার্যক্রম

Smartcard_wmnওমেনঅাই: সংসদীয় আসনকে প্রাধান্য দিয়ে নাগরিকদের উন্নতমানের জাতীয় পরিচয়পত্র বা স্মার্টকার্ড সরবরাহের সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

এক্ষেত্রে পঞ্চগড় থেকে শুরু করে পর্যায়ক্রমে দেশের অন্যান্যস্থানে কার্ড বিতরণের কাজ শেষ করা হবে।

জানা যায়, নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল মোবারকের প্রস্তাবের ভিত্তিতে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসি। ফলে সংসদীয়
আসনের ভিত্তিতে জেলায় জেলায় স্মার্টকার্ড দেওয়া হবে। ইতোমধ্যে বিষয়টিতে অনুমোদন দিয়ে সংশ্লিষ্ট বিভাগকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতেও বলেছে কমিশন।

২০১৩ সালে ইসি প্রকাশিত গেজেট থেকে দেখা যায়, পঞ্চগড়-১ আসন থেকে সংসদীয় আসনের ক্রমবিন্যাস হয়েছে। যা
শেষ হয়েছে টেকনাফে, কক্সবাজার-৪ আসনের মধ্যে দিয়ে। তবে পার্বত্য চট্টগ্রামের তিন আসন সংসদীয় আসন বিন্যাসের সব শেষে থাকলেও এসব এলাকার জন্য পৃথক পরিকল্পনা নেওয়া হবে।

নির্বাচন কমিশন তাই পঞ্চগড় থেকে টেকনাফ পর্যন্ত পর্যায়ক্রমে উন্নতমানের কার্ডটি বিতরণ করবে। আর দুর্গম এলাকা
হিসেবে পার্বত্য চট্টগ্রামে বিশেষ কার্যক্রম চলবে। এদিকে উদ্বোধনী অংশ হিসেবে ঢাকার দুই সিটিতেই কার্যক্রম শুরু হবে।

রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের দিয়ে কার্ড বিতরণের কাজ উদ্বোধন করবে ইসি। এছাড়া দুর্যোগপূর্ণ এলাকাকে প্রাধান্য দিয়ে অগ্রসর-অনগ্রসর জনপদকে বিবেচনায় রাখা হবে।

এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের পরিকল্পনা গ্রহণে জাতীয় পরিচয়পত্র অনুবিভাগের মহাপরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল সুলতানুজ্জামান মো. সালেহ উদ্দীনকে সম্প্রতি নির্দেশনাও দিয়েছে ইসি। নির্দেশনাটি পাঠিয়েছেন ইসির সিনিয়র সহকারী সচিব মো. শাহ আলম।

এতে উল্লেখ আছে, দুর্যোগপূর্ণ এলাকার কথা বিবেচনায় রেখে অগ্রসর-অনগ্রসর এলাকা মিলিয়ে জেলাভিত্তিক পঞ্চগড় থেকে শুরু করে পর্যায়ক্রমে স্মার্টকার্ড বিতরণ করা হবে। এক্ষেত্রে নতুন ও পুরাতন ভোটারদের স্মার্টকার্ড যুগপৎভাবে প্রিন্টও বিতরণ করা হবে। এক্ষেত্রে ২০১৪ সালের ভোটাররা অগ্রাধিকার পাবেন, যাদের এখনও কোনো পরিচয়পত্র দেয়নি ইসি।

প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ভাণ্ডারে স্থাপিত নয়টি মেশিনে কার্ড ছাপানো হবে। আর ইসলামিক ফাউন্ডেশন ভবনে স্থাপিত ইসির জাতীয় পরিচয়পত্র অনুবিভাগে বসানো একটি মেশিনে শুধুমাত্র জরুরি সেবা পাবেন নাগরিকরা।

আরও জানা যায়, স্মার্টকার্ড বিতরণের জন্য ইউনিয়ন পরিষদ, আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়, সিটি করপোরেশন ও
পৌরসভার ওয়ার্ড কার্যালয় ইত্যাদি স্থানে ক্যাম্প করা হবে। আর এ সময় কেউ স্মার্টকার্ড সংগ্রহের জন্য এলে তার
হাতের দশ আঙ্গুলের ছাপ ও চোখের আইরিশের প্রতিচ্ছবি নেবে ইসি। এদিকে ক্ষেত্র বিশেষে জরুরি ভিত্তিতে লেমিনেটেড কার্ডও বিতরণ করা হবে।

এ বিষয়ে ইসি সচিব সিরাজুল ইসলাম বলেন, স্মার্টকার্ড ছাপানো ও বিতরণের জন্য কমিশন ইতোমধ্যে সিদ্ধান্ত দিয়েছে। এ
নিয়ে কাজ চলছে।

ঢাকা, ১৫ সেপ্টেম্বর (ওমেনঅাই)// এসএল//

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close