আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
শিল্প-সংস্কৃতি

‘বাংলাদেশের চেয়ে পশ্চিমবঙ্গের পাঠকরা বেশি মৌলবাদী’

samaresh_93242ওমেনঅাই: বাংলাদেশের পাঠকদের তুলনায় পশ্চিমবঙ্গের হিন্দু পাঠকরা অনেক বেশি মৌলবাদী বলে মনে করেন বিশিষ্ট সাহিত্যিক সমরেশ মজুমদার।
কলকাতার রবীন্দ্রসদন প্রাঙ্গণে রবিবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশি বইমেলায় ‘বইয়ের পাইরেসি’ শীর্ষক একটি আলোচনা চক্রে অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন।
বিশিষ্ট এই সাহিত্যিক বলেন, ‘আমাদের বই যখন বাংলাদেশের পাঠকরা হাতে পান তখন তারা বিচার করেন না কোন ধর্মের লেখক বইটি লিখেছেন। তারা বিচার করেন এটা পাঠযোগ্য কিনা। কিন্তু বাংলাদেশের লেখকদের বইয়ে আম্মা, ফুপা ও নামাজ জাতীয় শব্দগুলো দেখে আমাদের পশ্চিমবঙ্গের হিন্দু পাঠকদের মধ্যে অদ্ভুত প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। এই প্রতিক্রিয়ার কারণেই বাংলাদেশের অনেক লেখকের বই এখানকার পাঠকদের কাছে পৌঁছাচ্ছে না।’

সমরেশ মজুমদার বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গের যারা মুসলমান লেখক ছিলেন তাদের মধ্যে হাতে গোনা কয়েকজনকে ছাড়া এখানকার পাঠকরা কয়জনকে গ্রহণ করতে পেরেছেন? যাদের গ্রহণ করতে পেরেছেন তাদের লেখায় ওই সব মুসলিম শব্দগুলো নেই। ফলে ওদের বই এখানে (পশ্চিমবঙ্গ) এসে পাইরেসি হবে এই সম্ভাবনা খুবই কম। তবু এই জিনিস বন্ধ করতেই হবে।’
সাহিত্যিক সমরেশ মজুমদার ছাড়াও অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশের জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির নির্বাহী পরিচালক কামরুল হাসান শায়ক, পশ্চিমবঙ্গের দৈনিক পত্রিকা ‘খবর ৩৬৫’ এর সম্পাদক পূষণ গুপ্ত, কলকাতা পাবলিশার্স এ্যান্ড বুক সেলার্স গিল্ডের সুধাংশু দে, কলকাতার বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনের কনস্যুলার মনসুর আহমেদ, বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির প্রধান মেসবাহউদ্দিন আহমেদসহ অনেকে।

পাইরেসি ঠেকাতে দুই দেশের মধ্যে বিশেষ করে পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের মধ্যে সংস্কৃতির অবাধ বাণিজ্য চালু করা উচিত বলে অভিমত দেন খবর ৩৬৫ এর সম্পাদক পূষণ গুপ্ত।
তিনি বলেন, ‘যতদিন অবাধ বাণিজ্য চালু না হচ্ছে ততদিন এই পাইরেসি চলতেই থাকবে। একই সঙ্গে কলকাতায় যেমন বাংলাদেশি বই বিক্রির জন্য বাংলাদেশি প্যাভিলিয়নের সৃষ্টি করা হয়েছে, ঠিক তেমনি বাংলাদেশের পশ্চিমবঙ্গের লেখকদের বই পৌঁছে দিতে ইন্ডিয়া প্যাভিলিয়ন তৈরি করা দরকার। এতে কিছুটা হলেও পাইরেসি ঠেকানো সম্ভব বলে মনে করেন তিনি।’
প্রকাশক মেসবাউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘পাইরেসি ঠেকাতে দুই দেশের সরকারকেই উদ্যোগী হতে হবে। পাইরেসি এমন একটা জায়গায় পৌঁছে গেছে যে বাংলাদেশের বই পশ্চিমবঙ্গে প্রকাশিত হচ্ছে আবার পশ্চিমবঙ্গের বই বাংলাদেশে প্রকাশিত হচ্ছে। যেটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক।’
বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল সমিতির সহ-সভাপতি মাজহারুল ইসলামও পাইরেসি ঠেকাতে বইয়ের অবাধ বাণিজ্যের পক্ষে জোর দিয়ে বলেছেন, সারাবিশ্বেই পাইরেসি সন্ত্রাসের আকার ধারণ করেছে। তবে বাংলাদেশে পাইরেসি প্রায় বন্ধের পথে বলে দাবি করেছেন তিনি।

ঢাকা, ১৫ সেপ্টেম্বর (ওমেনঅাই)// এসএল//

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close