আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
অপরাধ

না.গঞ্জে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ!

Dhorsonওমেনঅাই: নারায়ণগঞ্জে দুই বোনকে বিদেশে চাকরির লোভ দেখিয়ে ভারতে পাচার করা এবং সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। জেলার আড়াইহাজার উপজেলায় এই ঘটনা ঘটে। অভাবের সংসারে জন্ম দুই বোনের। চাকরি দেয়ার নাম করে শালমদী গ্রামের মানবপাচারকারী আলী হোসেনের ছেলে রশিদ ও তার বোন তাদের ইন্দোনেশিয়াতে নিয়ে যাবার আশা দেয়।
১১ আগস্ট বোম্বে পুলিশের একটি দল ওই পতিতালয়ে হানা দিয়ে বড় বোনকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়। পরে পুলিশ ছোট বোনকে খুঁজতে থাকলে সেখানের এক লোকের মাধ্যমে পালিয়ে বর্ডার পার হয়ে ৭ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে আসেন তিনি। পরে বিভিন্ন লোকের সহযোগিতায় তিনি খুব অসুস্থ অবস্থায় বাড়িতে আসেন।

সুস্থ হওয়ার পর তিনি ১৪ সেপ্টেম্বর বাদী হয়ে আড়াইহাজার থানায় আদমপাচারকারী রশিদ ও তার বোন আবেদার বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও আদমপাচারের অভিযোগ দায়ের করেন।
ছোট বোন অভিযোগ করে বলেন, ২২ জুলাই সন্ধ্যায় খবর দেয় রশিদ। যিনি বিদেশে নিয়ে যাবেন তিনি এসেছেন, তার সঙ্গে দেখা করার জন্য। এ সংবাদ পেয়ে তিনি রাত ১০টার দিকে রশিদের বাড়িতে গেলে তাকে ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করেন রশিদ ও আরেক ব্যাক্তি। বিষয়টি পুলিশকে না জানানোর জন্য প্রাণনাশের হুমকি দেয় এবং না জানালে তাদের দুই বোনকে বিনা খরচে ইন্দোনেশিয়ায় পাঠানোর আশ্বাস দেন।

২৮ জুলাই মানবপাচারকারী ইন্দোনেশিয়া যাওয়ার কাগজপত্র তৈরি করার কথা বলে তাদের দুই বোনকে ঢাকার একটি বাসায় নিয়ে যান। সেখান থেকে ইমরান নামে এক লোক বাসে করে সাতক্ষীরার বর্ডারে নিয়ে যান। সেখানে দু’দিন একটি বাড়িতে আটক করে ইমরানসহ তিনজন মিলে তাদের দুই বোনকে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন। ওই দিন রাতে ইমরান বাবলু নামে অপর একটি লোকের কাছে তাদের দুই বোনকে তুলে দেন। বাবলু বর্ডার পার করে তাদের দুই বোনকে একটি বাড়িতে নিয়ে চার দিন আটকে রাখেন। সেখানেও তাদের দুই বোন বাবলুসহ ৩ জন যুবকের দ্বারা ধর্ষণের শিকার হন। সেখান থেকে বাবলু রকি নামে এক যুবকের হাতে তাদের দুই বোনকে তুলে দেন। ওই স্থান থেকে রকি তাদের ট্রেনযোগে ভারতের মুম্বাইয়ে নিয়ে যার ও একটি পতিতালয়ে বিক্রি করে দেন।
সেই পতিতালয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে তাদের দুই বোনের ওপর চলতে থাকে অমানুষিক পাশবিক অত্যাচার।

ঢাকা, ১৬ সেপ্টেম্বর (ওমেনঅাই)// এসএল//

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close