আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
অপরাধ

মরে গিয়েও রেহায় পেলেন না আমেনা!

Savar_map_692333304ফাহিম রেজা শোভন :সাভারে আমেনা বেগম (২৬) নামে মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসীর স্ত্রীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার সাভার পৌর এলাকার মধ্যরাজাশন থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। সে ঢাকা জেলা নবাবগঞ্জ থানা এলাকার দুবাই প্রবাসী নাজিম উদ্দিন এর স্ত্রী। পুলিশ ময়না তদন্তের জন্য লাশটি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।
আমেনা বেগমের মারা যাওয়ার ঘটনায় এলাকায় নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। আমেনার মা ও স্থানীয়দের সাথে আলাপকালে জানাগেছে, পিতৃহীন আমেনা বেগমের বিয়ে হয় সাভার ইউনিয়নের কৃষ্টপুর গ্রামের নাজিম মিয়ার সাথে। বিয়ের পর এক সন্তান রেখে নাজিম দুবাইয়ে চলে যান। আমেনা বেগমের পরিবারে তার মা ও মানসিক প্রতিবন্ধী ভাই ছাড়া আর কেউ নেই। বিয়ের পরেও আমেনা মায়ের সংসারে বসবাস করতে থাকে। বিরুলিয়া সড়ক সংলগ্ন তার মায়ের নামে ৪ শতক জমি আছে। যার মূল্য প্রায় কোটি টাকা। এ জমিতে ৩টি দোকান আছে।

অভিযোগ আছে এ জমি দখল করতে সম্প্রতি আমেনার নামে ফৌজদারি একটি আইনে মামলা হয়। মামলায় অভিযোগ করা হয়, আমেনা তার ভাসুরের স্ত্রীকে মারধর করে গুরুতর জখম করে আহত করেছে। প্রকৃত পক্ষে আমেনা বিয়ের পর সে কখনই শ্বশুর বাড়ীতে বসবাস করেনি। এ ছাড়া আমেনাদের জমিতে থাকা ৩টি দোকান ঘর ভাড়া দেয়া আছে। আমেনার মায়ের অভিযোগ, তিনি অসহায় বিধবা নারী। তার মেয়েকে জমি গ্রাস করতে একটি চক্র মেরে ফেলেছে। এদিকে গৃহবধূর আমেনার মৃত্যু নিয়ে এলাকায় রহস্যের হয়েছে। এ জমিতে থাকা একজন দোকানী তাকে প্রায়ই উত্যাক্ত করতো এবং সেই ব্যক্তি নিয়মিত ভাড়া পরিশোধ করেন না। চুক্তি শেষ হওয়ার পরেও এ ব্যক্তি দোকান ছাড়েনি।

বরিশাল এলাকায় বাড়ী এ ব্যক্তির এক বছরের বেশী সময় দোকানের ভাড়া বাকী রেখেছেন। এ নিয়ে প্রায়ই ওই ব্যক্তির ঝগড়া হতো আমেনার মায়ের সাথে। এলাকাবাসী একাধিক ব্যক্তি নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানায়, আমেনা আত্মহত্যা করার মেয়ে নয়। সে দৈনিক ৫ ওয়াক্ত নামাজ পড়তো এবং খোদা ভীরু একজন মহিলা। এদিকে লাশ মর্গে নেয়ার জন্য পরিবহণ বাবদ আমেনার বিধবা মায়ের নিকট থেকে ১৬ হাজার টাকা নিয়েছে পুলিশ। এ টাকা তিনি প্রতিবেশীদের নিকট থেকে ধার দেনা করে দিয়েছেন। তবে পুলিশ টাকা নেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেছে।
পুলিশ জানায়, সকালে নিজ বাড়ীর একটি রুমে ভেতরে দুবাই প্রবাসী নাজিম মিয়ার স্ত্রী আমেনা বেগম গলায় ওড়না জড়িয়ে আত্মহত্যা করে। তবে তার লাশ পুলিশ ঝুলন্ত পায়নি। বাসার ফ্লোরে পেয়েছে বলে জানান, লাশ উদ্ধারকারি এস আই লুৎফর রহমান। তিনি জানান, মৃতদেহ দেখতে পেয়ে পরিবারের লোকজন পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করে। এস আই লুৎফর রহমান আরও জানান, এ ঘটনায় কেউ অভিযোগ না করায় ইউডি মামলা হয়েছে।

ঢাকা,১৭ অক্টোবর (ওমেনঅাই)//এসএল//

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close