আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
বিনোদন

যেসব বলিউড তারকা দেউলিয়া হয়েছেন

saj-15ওমেনঅাই:মুম্বাই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি মানেই অর্থবিত্তের ছড়াছড়ি। শত শত কোটি টাকার বিনিয়োগ আর মুনাফা হয় সেখানে প্রতিনিয়ত, যার বিরাট একটি অংশ পকেটে পোরেন তারকারা।

তাদের কি আবার টাকাকড়ির অভাব হতে পারে? জানলে অবাক হবেন, তারকাদের রীতিমতো অর্থাভাবে কঠিন রকম দুর্দশাও হতে পারে!

বলিউডের বেশ কয়েকজন বড় তারকার দেনার দায়ে এমনই দশা হয়েছিল যে ব্যাংক তাদের দেউলিয়া পর্যন্ত ঘোষণা করেছিল! এদের কেউ কেউ অবশ্য সেই পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হয়েছেন। এমটিভি ইন্ডিয়া জানিয়েছে এমনই সাত তারকার কথা।

১. প্রীতি জিনতা
ফিল্মি ক্যারিয়ার ছাড়ার পর নিজের ক্রিকেট দল নিয়েই ব্যস্ত হয়ে পড়েছিলেন প্রীতি জিনতা। সেটি নিয়েই যদি থাকতেন, তাহলেই বুঝি ভালো করতেন! নিজের প্রোডাকশন হাউস থেকে ‘ইশক ইন প্যারিস’ নির্মাণ করে ভয়াবহভাবে ব্যর্থ হন প্রীতি। ব্যাংকের দেনায় পড়ে যান। ছবির চিত্রনাট্য নির্মাতা আব্বাস টায়ারওয়ালাও প্রীতির বিরুদ্ধে নালিশ ঠুকবার হুমকি দেন। সালমান খানের সহায়তায় এই বিপদ থেকে রক্ষা পান প্রীতি।

২. জ্যাকি শ্রফ
সিনেমার কাজ ছাড়তে না ছাড়তেই অর্থনৈতিক টানাপড়েন ঘিরে ধরে জ্যাকিকে। নিজের প্রোডাকশন হাউস সমানে লোকসানে ডুবে যাচ্ছিল। ২০০৮ সালের দিকে তাঁর অবস্থা এতটাই খারাপ হয়ে যায় যে সাজিদ নাদিয়াদওয়ালার থেকে বেশ বড় অঙ্কের টাকা ধার করেন। কিন্তু সেটি শোধও করতে পারছিলেন না। এখানেও সালমান খান এসে উদ্ধার করেন জ্যাকিকে। আর সালমানের কারণে সাজিদও বিশেষ কোনো অভিযোগ আনেননি জ্যাকির বিরুদ্ধে।

৩. অনুপম খের
এই প্রতাপশালী অভিনেতা নিজেই স্বীকার করেছেন তাঁর একসময়কার দুরবস্থার কথা। টাকা-পয়সা সব খুইয়ে ফেলার কারণেই নাকি তিনি নিজের বিখ্যাত অভিনয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ‘দি অ্যাক্টর প্রিপেয়ারস’ চালু করেন মাত্র ১২ শিক্ষার্থীকে নিয়ে। এখন প্রতিষ্ঠানটি দেশের সেরা অভিনয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর একটি।

৪. শ্বেতা বসু প্রসাদ
‘ইকবাল’ বা ‘মাকড়ি’র মতো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জেতা ছবির অভিনেত্রী তিনি। টেলিভিশন শোতেও পরিচিত মুখ ছিলেন। অথচ হায়দরাবাদে একটি প্রস্টিটিউশন র‍্যাকেটের সঙ্গে ধরা পড়েছেন এই অভিনেত্রী! জানা যায়, পরিবারের অভাব-অনটন মেটাতেই নাকি এই পেশায় যেতে বাধ্য হয়েছিলেন।

৫. অমিতাভ বচ্চন
কেবল সিংহাসন হারিয়েছিলেন তা নয়, নিজের স্বপ্নের প্রতিষ্ঠান দেনার দায়ে যখন দেউলিয়া ঘোষিত হয়, অমিতাভের একেবারেই সর্বস্বান্ত অবস্থা হয়েছিল। এতটাই খারাপ অবস্থা হয়েছিল যে নিজের বাড়িটি পর্যন্ত বন্ধক রাখতে বাধ্য হন তিনি। কিন্তু মোটেও আটকে যাননি অমিতাভ, ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’ দিয়ে দুর্দান্ত কামব্যাক করেন তিনি। তার পর তো নতুন অমিতাভের উত্থান সবাই দেখেছেন, এখনো দেখছেন।

৬. এ কে হাঙ্গাল
প্রবীণ এই অভিনেতা এতটাই আর্থিক কষ্টে পড়েছিলেন যে নিজের চিকিৎসার টাকাও ছিল না তাঁর কাছে। পরিবারের পক্ষ থেকেও কিছুই জোগাড় করা সম্ভব হয়নি। হঠাৎ করেই কিছুটা মিডিয়া কভারেজ পেলে বলিউডের বেশ কিছু তারকা তাঁকে সাহায্য করেন। ৯৫ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন এই অভিনেতা।

৭. গোবিন্দ
বলিউডের এই জনপ্রিয় নায়কের নাকি মাঝে এমন অবস্থা হয়েছিল যে অটোরিকশায় চড়ার টাকাও ছিল না তার কাছে! এমনই অবস্থায় আবারো ত্রাণকর্তা সালমান। সল্লুর একান্ত প্রচেষ্টা এবং সহায়তায় দুজনে মিলে করেন ‘পার্টনার’। আর ছবিটির দারুণ সাফল্য গোবিন্দকে উদ্ধার করে এই দুর্দশা থেকে।

ঢাকা, ৩১ অক্টোবর(ওমেনআই২৪ডটকম)//এসএল//

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close