আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
উদ্যোক্তা

নারী উদ্যোক্তার পাশে ইসলামী ব্যাংক

uddokta_615264552ওমেনঅাই:কুষ্টিয়ার কুমারখালীর গৃহবধূ হালিমা খাতুন। ছোটবেলা থেকেই তিনি একটু ব্যতিক্রম চিন্তা করতেন। স্বপ্ন আঁকতেন কর্মব্যস্ত জীবনের, সম্ভাবনার। পড়াশোনা শেষ করে চাকরির পেছনে না ছুটে চেষ্টা করেছেন স্বাবলম্বী হতে। উদ্যোক্তা হওয়ার অদম্য ইচ্ছে ছিল তার। প্রতিভাও কম ছিল না। নিজ উদ্যোগে সুই-সুতোর কাজ শিখে ২০০৫ সালে ঘরোয়াভাবে শুরু করেন হস্তশিল্পের কাজ। নাম দেন ‘মৃদুলা হস্তশিল্প’। তাকে উৎসাহ যোগায় তার স্বামী। সংসারে আসে বাড়তি রোজগার। পর্যায়ক্রমে গ্রামের কর্মহীন নারীদের এ কাজের সাথে সম্পৃক্ত করেন হালিমা। তাদের নিপুণ হাতের বাহারি কাজের সুনাম ছড়িয়ে পড়ে চারদিকে। বিয়ে-শাদি বা কোনো উৎসব পার্বণ এলেই মৃদুলা হস্তশিল্পের পণ্যই চাই। দিন দিন তার পণ্যের চাহিদা বাড়তে থাকে। এ অবস্থায় ব্যবসার পরিসর বাড়ানোর বিকল্প নেই। কিন্তু তিনি পুঁজি পাবেন কোথায়?

এরপর হালিমা ইসলামী ব্যাংকের কুমারখালী শাখায় যান। ২০১১ সালে নারী উদ্যোক্তা উন্নয়ন স্কিমের আওতায় তাকে প্রাথমিকভাবে সাড়ে ৩ লাখ টাকা দেয়। এ দিয়ে তিনি তার ব্যবসা প্রসার করেন। শুরু হয় হালিমা বেগমের সফলতার নবতর যাত্রা।

বর্তমানে ১২ লাখ টাকা ব্যাংকের বিনিয়োগসহ তার ব্যবসায়ের মোট মূলধন অর্ধকোটি টাকা। ১৬ জন নিয়মিত কর্মীসহ ৪ শতাধিক নারী তার প্রতিষ্ঠানে কাজ করছে। তার তৈরি বিয়ের শাড়ি, নকশি শাড়ি, মডেলিং শাড়ি, ওড়না, লেহেঙ্গা, কারুকাজ করা পাঞ্জাবি ও গৃহসজ্জা সামগ্রীসহ রকমারি পণ্য এখন স্থানীয় মার্কেটের গণ্ডি পেড়িয়ে ঢাকা ও বিভাগীয় শহরের বৃহৎ বিপণীগুলোতে শোভা পাচ্ছে। হালিমা খাতুন এখন সফল নারী উদ্যোক্তা। দেশীয় উদ্যোক্তাদের মাঝে হালিমা আজ প্রেরণার উৎস।

হালিমা খাতুনের মতো দেশের ৬৩ হাজার উদ্যোক্তাকে সফল এসএমই উদ্যোক্তায় পরিণত করেছে ইসলামী ব্যাংক। এদের মাধ্যমে ৯ লাখ মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়েছে যার উল্লেখযোগ্য অংশ অসহায় নারী। সেপ্টেম্বর ২০১৫ পর্যন্ত এসএমই খাতে এ ব্যাংকের বিনিয়োগের পরিমাণ সাড়ে ১৮ হাজার কোটি টাকা, যা দেশের মোট এসএমই বিনিয়োগ বিতরণের ২৭ শতাংশ। এসএমই’র মাধ্যমে দেশের টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভূমিকা পালন করছে বেসরকারি খাতের এ ব্যাংকটি।

দেশের উন্নয়নের ইঞ্জিন হিসেবে বিবেচিত এসএসই খাতের উপর বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে ইসলামী ব্যাংক নারী উদ্যোক্তা বিনিয়োগ প্রকল্প, ক্ষুদ্র শিল্প বিনিয়োগ প্রকল্প, যানবাহন বিনিয়োগ প্রকল্প, ক্ষুদ্র ব্যবসা বিনিয়োগ প্রকল্প, প্রবাসী উদ্যোক্তা বিনিয়োগ প্রকল্পের মত বেশ কিছু এসএমই প্রোডাক্ট চালু করেছে।

পল্লী উন্নয়ন প্রকল্প ও ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা বিনিয়োগ প্রকল্পের মাধ্যমে এ ব্যাংক তৃণমূল পর্যায় থেকে উদোক্তা সৃষ্টি এবং পর্যায়ক্রমে তাদেরকে এসএমইতে উন্নীত করছে। খাদ্য, কৃষিজাত, চামড়া, বস্ত্র, হস্তশিল্প, ইলেক্ট্রনিক্স, পুনঃপ্রক্রিয়াজাতকরণ, আমদানি ও রপ্তানি খাতসহ পাইকারি ও খুচরা ব্যবসা, টেলিকমিউনিকেশন, ট্রান্সপোর্ট, ইনফরমেশন টেকনোলজি, হোটেল ও রেস্টুরেন্ট, ওয়ার্কশপ ইত্যাদিতে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এসএমই বিনিয়োগ প্রদান করা হয়।

দেশব্যাপী ইসলামী ব্যাংকের সকল এসএমই সেবা ও বিনিয়োগ পাওয়া যাচ্ছে। গ্রাহকগণ ব্যাংকের যে কোনো শাখা ও ইসলামী ব্যাংক কন্ট্যাক্ট সেন্টার ১৬২৫৯ নম্বরে ফোন করেও সেবা সংক্রান্ত তথ্য পেতে পারেন।

ঢাকা, ০৯ নভেম্বর (ওমেনঅাই২৪ ডটকম)//এসএল//

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close