আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
জাতীয়

তনুর এক বন্ধুকে সিআইডির জিজ্ঞাসাবাদ

স্টাফ রিপোর্টার: সোহাগী জাহান তনু হত্যার ঘটনায় তাঁর এক বন্ধুকে রোববার জিজ্ঞাসাবাদ করেছে সিআইডি। তাঁর নাম পেয়ার আহমেদ (২১)। তিনি ঢাকার এক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ প্রথম সেমিস্টারের ছাত্র। তনু ও এই ছেলেটি একই এলাকায় বড় হয়েছেন এবং তাঁদের মধ্যে মোবাইলে যোগাযোগ ছিল বলে তদন্তসংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো থেকে জানা গেছে। এ ছাড়া কুমিল্লার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের (সিএমএইচ) একজন গাইনি চিকিৎসক এবং সিএমএইচে তনুর প্রথম সুরতহালের সময় উপস্থিত নার্সদের জিজ্ঞাসাবাদ করেছে সিআইডি। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর একটি সূত্র জানায়, পেয়ার একজন অনারারি লেফটেন্যান্টের ছেলে। তিনি ও তনু কুমিল্লা সেনানিবাস এলাকায় একসঙ্গে বড় হয়েছেন। দুজনের মধ্যে যোগাযোগ ছিল। যে কারণে তাঁকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তনু হত্যার দিন পেয়ার ঢাকায় ছিলেন বলে তাঁর পারিবারিক সূত্রগুলো দাবি করছে। তনুর মা আনোয়ারা বেগম গত ২৭ মার্চ বলেছিলেন, পেয়ার ও তনু কাছাকাছি বয়সের। তাঁরা একই এলাকায় বড় হয়েছেন। একে অন্যকে চেনেন। কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম মনজুর আলম সকাল ১০টার দিকে পেয়ারকে কুমিল্লা সেনানিবাস এলাকা থেকে শহরে সিআইডির কার্যালয়ে নিয়ে আসেন। বেলা দুইটা পর্যন্ত তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ করেন তনু হত্যা মামলার তদন্ত-সহায়ক দলের প্রধান সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার আবদুল কাহার আকন্দ, বিশেষ পুলিশ সুপার নাজমুল করিম খান ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক গাজী মো. ইব্রাহীম। পরে সিআইডির তদন্ত দলটি পেয়ারকে নিয়ে কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডের গেস্ট হাউসে যায়। সেখানে পরে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় কুমিল্লা সিএমএইচের একজন গাইনি চিকিৎসক ও প্রথম সুরতহালের সময় উপস্থিত নার্সদের। এর আগে সিআইডি গত দুই দিনে কুমিল্লা সেনানিবাসের একজন সার্জেন্ট ও একজন সৈনিককেও জিজ্ঞাসাবাদ করে। এই দুজনের বাসায় তনু টিউশনি করতেন। এসব জিজ্ঞাসাবাদের বিষয়ে সিআইডির কর্মকর্তারা এখনই কিছু বলতে রাজি হননি। তবে তদন্তসংশ্লিষ্ট একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, তনু নিয়মিত ডায়েরি লিখতেন। তাঁর লাশ উদ্ধারের পর বাসা থেকে ওই ডায়েরি একটি সংস্থার লোকজন নিয়ে গেছেন। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনু গত ২০ মার্চ খুন হন। ওই দিন রাত সাড়ে ১০টার দিকে সেনানিবাসের পাওয়ার হাউসের অদূরে কালভার্টের পাশের ঝোপ থেকে তাঁর লাশ উদ্ধার করা হয়।

ঢাকা,৪ এপ্রিল (ওমেনআই২৪ডটকম)//এসএল//

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close