আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
জাতীয়

বইমেলা উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

ওমেন আই :
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জাতিসংঘের দাফতরিক ভাষা বাংলা করার বিষয়ে সরকার উদ্যোগ নিয়েছে। শনিবার বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে অমর একুশে বইমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ভাষা আন্দোলনে জন্য বারবার গ্রেফতার হয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। জেলে থেকেই তিনি ভাষা আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশকে দক্ষিণ এশিয়ার শান্তিপূর্ণ দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে কাজ করছে সরকার।

বাংলা একাডেমী থেকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে যাতায়াতের সুবিধার্থে একটি আন্ডারপাস বা ওভারপাস নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করার কথাও জানান তিনি।

বইমেলা উদ্বোধন করার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলা একাডেমী সাহিত্য পুরস্কার-২০১৩ বিতরণ করেন। এরপর তিনি মেলা পরিদর্শন করেন।

বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য এবার বাংলা একাডেমির পুরস্কার পেয়েছেন ১১ জন। তাঁরা হলেন—কবিতায় হেলাল হাফিজ, কথাসাহিত্যে পূরবী বসু, প্রবন্ধে মফিদুল হক, গবেষণায় যুগ্মভাবে জামিল চোধুরী ও প্রভাংশু ত্রিপুরা, অনুবাদ সাহিত্যে কায়সার হক, মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সাহিত্যে হারুন হাবীব, স্মৃতিকথা ও ভ্রমণকাহিনি মাহফুজুর রহমান, বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ও পরিবেশ সাহিত্যে শহীদুল ইসলাম এবং শিশুসাহিত্যে যুগ্মভাবে কাইজার চৌধুরী ও আসলাম সানি। এ বছর বাংলা একাডেমির ফেলো হিসেবে বিশেষ সম্মাননাপত্র ও ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয় প্রখ্যাত মূকাভিনয় শিল্পী পার্থ প্রতিম মজুমদারকে।এবারের গ্রন্থমেলাকে সদ্যপ্রয়াত ভাষাসংগ্রামী, লেখক-গবেষক, বাংলা একাডেমির ফেলো, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক প্রধান উপদেষ্টা ও সাবেক প্রধান বিচারপতি মুহাম্মদ হাবিবুর রহমানকে উত্সর্গ করা হয়েছে।

লেখক, প্রকাশক ও পাঠকদের দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে এবার মেলার পরিসর বাড়িয়ে বাংলা একাডেমি চত্বরের পাশাপাশি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের একটা বড় অংশকে যুক্ত করা হয়েছে। মেলার এ সমপ্রসারণ ও নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে বাংলা একাডেমি কর্তৃপক্ষ। সার্বক্ষণিক নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবে পুলিশ, র্যাব, আনসার ও গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা।

গ্রন্থমেলা পহেলা ফেব্রুয়ারি থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ছুটির দিন ব্যতীত প্রতিদিন বিকাল তিনটা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। ছুটির দিন বেলা ১১টা থেকে রাত নয়টা এবং ২১ ফেব্রুয়ারি সকাল আটটা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত মেলা চলবে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close