আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
রাজনীতি

আসন ভাগাভাগি নয়, প্রতিদ্বন্দ্বিতা চেয়েছি: খালেদা জিয়া

ওমেন আই :
বিএনপি চেয়ারপার্সন ও ১৯ দলের নেত্রী খালেদা জিয়া বলেছেন, জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছে সরকার। আসন ভাগাভাগি চাইনি। প্রতিদ্বন্দ্বিতা চেয়েছি। এর জন্যই নির্দলীয় নির্বাচন দাবি করেছিলাম। তামাশার ও অবৈধ সরকার গঠিত হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে চারটায় রাজধানীর গুলশানের হোটেল ওয়েস্টিনের বলরুমে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, এই সরকার সাধারণ জনগণের ভোটে হয়নি। জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়ে অবৈধ সংসদ গঠন করেছে। তাদের মুখে গণতন্ত্রের কথা শোভা পায় না। এই সংসদ গণতান্ত্রিক হতে পারে না। ৫ জানুয়ারির প্রহসনের নির্বাচন জনগণ বাতিল করেছে। শতকরা ৫ ভাগ ভোট পড়েছে।

খালেদা জিয়া বলেন, দলগুলোকে বাতিল করে সরকার ক্ষমতার থাকতে চাচ্ছে। প্রতিপক্ষকে নিশ্চিহ্ন করার এমন ভয়ভয় তাণ্ডব স্বধীনতার পর সব সন্ত্রাসকে হার মানিয়েছে। বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের হত্য-গুম করেছে সরকার। একের পর এক মামলা দিচ্ছে। নির্যাতন ছাড়াও চলছে গ্রেফতার বাণিজ্য।

তিনি আরো বলেন, গত ২৬ ডিসেম্বর থেকে এক মাসে মাসে প্রায় ৩০০ রাজনীতিক খুন ও গুম হয়েছেন। যারা গুম হয়েছে তারা সবাই। বিএনপি ও স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মী।

গুমের পরিমাণ বেড়ে গেছে। এক সময় র্যাবের ওপর গুমের জন্য দায়ী করা হতো। তিনি বিভিন্ন প্রত্রিকার প্রমাণ তুলে ধরেন গুম ও হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে।

তিনি বলেন, সরকারি সন্ত্রাসীরা খুন, লুটপাট করছে। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। বিচার বিভাগীয় কার্যক্রমেও রাষ্ট্রীয় হস্তক্ষেপ দেখা যাচ্ছে। শান্তিপূর্ণ সমাবেশ ও মিছিলে বাধা দেয়া হচ্ছে। জবরদস্তি ও বেআইনি কার্যক্রমে আমরা নিশ্চুপ থাকবো না। এসব গুম হত্যার বিচারের আহ্বান জানাচ্ছি। দোষীদের শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। বর্জিত নির্বাচন অন্যদিকে ফেরাতে সংখ্যালঘুদের ওপর হামলার সুষ্ঠু তদন্তে বিএনপির পক্ষ থেকে কমিটি গঠন করা হয়েছে। শুধু রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের নয় সরকার সাধারণ মানুষকেও হয়রানি করছে। জনগণের সমর্থন আমাদের একমাত্র শক্তি। তারা জানে কোন সময় কী কী পদক্ষেপ নিতে হয়।

কোন সময় নির্বাচন চান সাংবাদিকের এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, আমরা বলেছি অবাধ, নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য অতি দ্রুত নির্বাচন চাই। নির্বাচনে যাওয়া উচিত ছিল, এর জবাবে তিনি বলেন, বিএনপি না গিয়ে ঠিকই করেছে। আমরা ভুল করেনি। উপজেলা নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীরা অংশ নিচ্ছেন, এ প্রশ্নে তিনি বলেন, এটা জাতীয় নির্বাচন নয়। লোকাল নির্বাচন। আমরা বলেছি জাতীয় নির্বাচন এই সরকারের অধীনে করবো না।

মার্চ ফর ডেমোক্রেসি নিয়ে খালেদা বলেন, তখন সুযোগ দিলে জনস্রোত বয়ে যেত। তা বুঝেই সরকার আমাদের অবরোধ করে রেখেছিল। জামায়াতকে ছেড়ে আসলে আলোচনা করবে আওয়ামী লীগ- এ ব্যাপারে তিনি বলেন, আমরা কার সঙ্গে থাকবো তা আমরা বুঝবো। কারো কথায় বিএনপি চলবে না। কারণ জামায়াত, আওয়ামী লীগের সঙ্গেও ছিল।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close