আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
জাতীয়

যে কোনদিন সংরক্ষিত নারী আসনের তফসিল

ওমেন আই : চলতি দশম জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসন পূরণের লক্ষ্যে চলতি সপ্তাহের যে কোনদিন তফসিল ঘোষণা করতে যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সংরক্ষিত নারী আসনের নির্বাচনের জন্য ছয়টি দলের সমন্বয়ে জোট করেছে আওয়ামী লীগ।

রোববার দুপুরে আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য এড. রিয়াজুল কবির কাওছার ইসিতে এ সংক্রান্ত চিঠি পৌঁছান। নারী আসনের নির্বাচনের জন্য ছয় দলের ২৪৮ জন তালিকা নিয়ে জোটের অবস্থান জানাতে নির্বাচন কমিশনে আসেন তিনি।

নির্বাচন কমিশনের চাহিদা অনুযায়ী আওয়ামী লীগ এ তালিকা দিয়ে তাদের জোটের অবস্থান পরিষ্কার করে। এ ব্যাপারে রিয়াজুল কবির কাওছার সাংবাদিকদের বলেন, নির্বাচন কমিশন নারী আসনের তফসিল দেয়ার আগে নির্বাচিত দল ও স্বতন্ত্র সংসদ সদস্যদের তালিকা দিয়ে কারা কোন জোটে থাকবে বা দলের অন্তর্ভুক্ত হবে তা জানাতে বলেছে। আমরা আমাদের জোটভুক্ত ছয় দলের তালিকা দিয়েছি।

আওয়ামী লীগের জোটভুক্ত দলগুলো হলো আওয়ামী লীগ (২৩২ জন), ওয়ার্কাস পার্টি (৬জন), জাসদ (৫জন), জেপি (২ জন) তরিকত ফেডারেশন (২ জন) ও বিএনএফ (১ জন)। সব মিলিয়ে জোটভুক্ত দলের সংসদ সদস্য ২৪৮। নির্বাচন কমিশন এ সংখ্যার ভিত্তিতে নারী আসন বন্টন করে তফসিল ঘোষণা করবে।

ইতোমধ্যে কয়েকটি রাজনৈতিক দল তাদের দলীয় অবস্থান জানিয়ে চিঠি দিয়েছে। কমিশনের বেঁধে দেয়া সময়ের শেষ দিন ছিল আজ।
আজ অথবা কাল এই নির্বাচনের জন্য ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হবে। এর আগে দশম সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী রাজনৈতিক দলগুলোকে দল ও জোট ভিত্তিক পৃথক সংসদ সংদস্যদের তালিকা চেয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু এখনও সকল রাজনৈতিক দলের কাছ থেকে তালিকা পায়নি ইসি।

ইসি কর্মকর্তাদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, সংবিধানের ৬৫ অনুচ্ছেদের ৩ দফা ও চতুর্থ তফসিলের ২৩ অনুচ্ছেদের অধীন সংসদে আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব পদ্ধতিতে নতুন ৫০ জন মহিলা এমপি নির্বাচিত হবেন। সেই হিসেবে আওয়ামী লীগ পাবে ৩৯টি আসন, জাতীয় পার্টি (জাপা) ৬টি আসন, জাসদ একটি, ওয়ার্কার্স পার্টি একটি ও স্বতন্ত্র জোট পাবে তিনটি সংরক্ষিত আসন।

ইসি সচিবালয় সূত্র জানিয়েছে, সংসদ নির্বাচনের ফল গেজেট প্রকাশের ২১ কার্যদিবসের মধ্যে রাজনৈতিক দল ও জোটের পক্ষ নির্বাচন কমিশনকে লিখিতভাবে দলীয় সদস্য সংখ্যার তালিকা দেয়ার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। নির্বাচনের পর কোন সদস্য নতুন কোন দল বা জোট যোগদান করলে সেই তথ্য ইসিকে জানানোর জন্যই এই নিয়ম চালু রয়েছে। ৫ জানুয়ারি নির্বাচনের পর ৮ জানুয়ারি দশম সংসদের ফল গেজেট আকারে প্রকাশ করা হয়। সেই হিসেবে আজই দল ও জোটগুলোকে তালিকা জমা দিতে হবে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে দলগুলো তালিকা না দিলে কমিশনের কাছে নির্বাচনের সময়ের জোট অনুযায়ী যে তালিকা রয়েছে সেটাই প্রকাশ করা হবে। ওই তালিকা প্রকাশের পরপরই কমিশন থেকে ২৯৮ জন এমপি’র ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হবে। যশোর-১ ও যশোর-২ আসনের ফল ঘোষণার গেজেট প্রকাশ স্থগিত করা হয়েছে। আজ দলগতভাবে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সদস্য সংখ্যার তালিকা নির্বাচন কমিশনে পৌঁছে দেয়ার প্রস্তুতি রয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close