আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
রাজনীতি

খালেদা জিয়া পহেলা মার্চ থেকে ১৩ জেলা সফরে যাচ্ছেন

ওমেন আই :
আবারো আন্দোলনের পথে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে বিএনপি। চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া দল পুনর্গঠন ও তৃণমূল নেতা-কর্মীদের উজ্জীবিত করতে মার্চের পয়লা দিন থেকে মাঠে নামছেন। তার টার্গেট মাঠ চাঙ্গা করে আবারো বড় ধরনের আন্দোলন গড়ে তোলা। দলের কয়েকজন সিনিয়র নেতার সঙ্গে আলাপকালে তারা বললেন, কৌশল পাল্টিয়ে সময় নিয়ে, গুছিয়ে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে রাজপথে লড়াইয়ে ফের অবতীর্ণ হতে চান তারা। এর প্রথম ধাপ হিসাবে দলের একটি অংশের বিরোধিতাকে আমলে না নিয়ে মাঠ নেতা-কর্মীদের হতাশা কাটাতে উপজেলা নির্বাচনে গেছে হাইকমান্ড। এখন আগামী টানা ২ মাস সারাদেশে সাংগঠনিক সফর করবেন বেগম জিয়া। অতঃপর সংলাপের জন্য চূড়ান্ত সময় বেঁধে দিতে চান তিনি । তা সম্ভব না হলে ফের রাজপথের আন্দোলনকেই বেছে নেবে বিএনপি। সে লক্ষ্যে একটি রোডম্যাপ প্রস্তুত করা হয়েছে। বেগম জিয়া তার বিশ্বস্ত কয়েকজন নেতার সঙ্গে আলাপ করে এই রোডম্যাপ প্রণয়ন করেছেন।

আপাতত: গণসংযোগকে প্রাধান্য দিচ্ছে দলটি। দেশের ১৯ টি জেলায় সফরের প্রস্তুতি নিতে সংশ্লিষ্ট জেলা নেতাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে কেন্দ থেকে। এই জেলাগুলোর কয়েকটিতে নির্বাচনের আগে-পরে যৌথবাহিনীর অভিযান চলেছে। নেতা-কর্মীরা হত্যার শিকার হয়েছে। ফলে তাদের মানসিক অবস্থা স্বাভাবিক করতে খালেদা জিয়া ঐ জনপদগুলো সফরে গুরুত্ব দিতে চাচ্ছেন। রাজবাড়ি জেলা সফরের মধ্য দিয়েই তিনি এই জনসংযোগ শুরু করবেন। আগামী ১ মার্চ শনিবার রাজবাড়ির শহীদ খুশি রেলওয়ে ময়দান মাঠে ১৯ দলীয় জোটের উদ্যোগে আয়োজিত সমাবেশে বক্তব্য রাখবেন তিনি। এর আগে ২০১৩ সালে চার বার জনসভার সফরসূচি ঘোষণা করেও পরে তা স্থগিত করেন তিনি। রাজবাড়িতে তার সমাবেশ ও সফর সফল করতে ইতোমধ্যে প্রস্তুতি শুরু করেছে স্থানীয় ১৯ দলীয় জোটসহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠন। রাজবাড়ি জেলা বিএনপির সভাপতি আলী নেওয়াজ মাহমুদ খৈয়ম জানান, আমরা জনসভা সফল করতে ব্যাপক প্রস্তুতি নিচ্ছি।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, রাজবাড়ি জেলা সফরের পরপরই তিনি ঢাকার আশ-পাশের ২ টি জেলায় সমাবেশ করবেন। ২৬ মার্চের আগে কিশোরগঞ্জে সমাবেশ করতে পারেন তিনি। ময়মনসিংহ, রাজবাড়ী, ঠাকুরগাঁও, নাটোর, নোয়াখালী, লক্ষীপুর, চাঁদপুর,সাতক্ষীরা,যশোর প্রায় চূড়ান্ত। জানা গেছে,চট্টগ্রাম ও বরিশাল বিভাগের কয়েকটি জেলায় তিনি সফর করবেন। গত বছরের আগস্ট মাসে দলের সাংগঠনিক গতিশীলতা বাড়াতে একইভাবে জেলা সফর করেছিলেন খালেদা জিয়াসহ কেন্দ ীয় নেতারা। তখন খালেদা জিয়া নরসিংদী, বগুড়া, রংপুর, রাজশাহী, যশোর, খুলনা এবং সিলেটে জনসভায় বক্তব্য রাখেন।

দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া জানান, সফরের সময় বেগম জিয়ার আহ্বানে বিগত দিনে গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নিহত নেতা-কর্মীদের পরিবারের সদস্যদেরকে তিনি সমবেদনা জানাবেন। বিএনপি নেতা লে.জে (অব.) মাহবুবুর রহমান বলেন, আমরা বেগম জিয়ার নেতৃত্বে দলের সাংগঠনিক কাঠামো মজবুত করার পাশাপাশি চূড়ান্ত আন্দোলনের প্রস্তুতি নেব।

তিনি বলেন, তৃণমূল থেকে দলকে গোছানোর সময় আন্দোলনের মাঠ একদম ফাঁকা রাখা হবে না। ইস্যু তৈরি হলে তাত্ক্ষণিকভাবে সিদ্ধান্ত নিয়ে কর্মসূচি বাস্তবায়ন করবে বিএনপি। তিনি বলেন,উপজেলায় বিএনপি ভাল ফলাফল করেছে। বেগম জিয়া সারাদেশে গণসংযোগ করার পর রাজধানীতেও জনসংযোগের চিন্তা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close