আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
জাতীয়

মিথ্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত দম্পতি মুক্ত

ওমেন আই :
মিথ্যা খুনের মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত জামালপুরের এক দম্পতি জামিনে মুক্তি পেয়েছেন। প্রায় সাত মাস কারাভোগের পর গতকাল রবিবার জেলা কারাগার থেকে তারা মুক্ত হন। মুক্তিপ্রাপ্ত দম্পতি হলেন- শাহীন মিয়া(৩৬) ও তার স্ত্রী সাহেরা বেগম সজনী(৩২)।

জানা যায়, জামালপুর শহরের স্টেশন রোডের বাসিন্দা শাহীন মিয়া ২০০৪ সালে শ্রীমঙ্গলে চাকরি করার সময় বাসায় লাকী নামের এক মেয়ে ঝিয়ের কাজ করে আসছিল। হঠাত্ একদিন লাকী পালিয়ে নিরুদ্দেশ হয়। এ লাকীর বাবা তরাজ আলী তার মেয়েকে হত্যা ও গুম করার অভিযোগে শাহীন ও তার স্ত্রী সাহেরাকে চাপ সৃষ্টি করেন। একপর্যায়ে তিনি শাহিনের কাছে মোটা অঙ্কের টাকা দাবি করেন। কিন্তু শাহিন টাকা দিতে অস্বীকার করলে তিনি বাদী হয়ে মেয়ে হত্যা ও গুমের অভিযোগ এনে মৌলভীবাজার জেলায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন কোর্টে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ঐ হত্যা মামলার বিচারক মো: ফজলুর রহমান ২০০৭ সনের ১৩ আগষ্টে রায় ঘোষণা করেন। রায়ে শাহীন মিয়া ও তার স্ত্রী সাহেরাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ আরো ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন। পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে জামালপুর জেলা কারাগারে প্রেরণ করে।

জামালপুর জেলা কারাগারে আটক থাকাবস্থায় হঠাত্ অসুস্থ হয়ে পড়েন শাহিন-সাহেরা দম্পতি। খবর পেয়ে জামালপুরের পুলিশ সুপার নজরুল ইসলাম জেলা কারাগারে পরিদর্শনে যান। এসময় সাহেরা তাকে বলেন, আমরা হত্যা করিনি, আমরা নির্দোষ। আমাদের মিথ্যে মামলায় যাবজ্জীবন হয়েছে।

পুলিশ সুপার নজরুল ইসলাম তাদের সহায়তা করার জন্য আশ্বস্ত করে তাত্ক্ষণিক ঘটনার রহস্য উন্মোচন করার জন্য মৌলভীবাজার পুলিশ সুপারের সহায়তায় কামনা করেন। পুলিশ ব্যাপক অনুসন্ধান চালিয়ে অবশেষে হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল এলাকা থেকে কথিত গুম হওয়া সেই লাকীর সন্ধান পায়। পরে আইনজীবীদের পরামর্শে লাকী ও তার পিতা তরাজ আলীকে আসামি করে শাহীনের খালু সানাউল হাসান জামালপুর সদর থানায় ৪২০ ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন। ঐ মামলায় লাকী ও তার বাবা তরাজ আলীকে আটক করেন হবিগঞ্জ পুলিশ।

গ্রেফতার লাকী তার জবানবন্দীতে উল্লেখ করেন, তিনি একাই পালিয়ে যায় এবং পরবর্তীতে বিয়ে করে স্বামীর সংসার করে আসছিল বলে স্বীকার করে। পরে পুলিশ সুপার নজরুল ইসলাম হাইকোর্টের সহকারী আটর্নি জেনারেল আম্বিয়া বুলবুলিকে বিষয়টি অবহিত করেন। অবশেষে হাইকোর্ট থেকে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত দম্পত্তি জামিন লাভ করে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close