আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
নারী সংগঠন

বৈবাহিক সম্পর্কের মধ্যে যৌন নির্যাতনঃ নারীপক্ষের আলোচনা

ওমেন আই:
বাংলাদেশে স্বামীর দ্বারা স্ত্রীর যৌন নির্যাতনের ওপর আগামী ৮ মার্চ বিশ্ব নারী দিবসে আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে নারীপক্ষ। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় ধানমন্ডির ছায়ানট মিলনায়তনে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।
বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো’র “নারীর প্রতি সহিংসতা জরিপ ২০১১” অনুযায়ী, শতকরা ৮৭ ভাগ নারী নির্যাতন ও সহিংসতার শিকার হন। নির্যাতিত নারীদের অনেকে বলেছেন স্বামী কর্তৃক যৌন নির্যাতনের কথা। অথচ বাংলাদেশের ফৌজদারী আইনে বিয়ের মধ্যে যৌন নির্যাতন ও সহিংসতা অপরাধ হিসাবে গণ্য হয় না।

ধর্মীয়, সামাজিক ও আইনী প্রেক্ষাপটে বিয়ে নারী-পুরুষের যৌন সম্পর্ককে বৈধতা দেয়। স্বামীরা ইচ্ছেমতো যখন যেভাবে খুশি এই চাহিদা পূরণে স্ত্রীকে বাধ্য করে। এ ক্ষেত্রে নারীর ইচ্ছা-অনিচ্ছা বা সম্মতি-অসম্মতির বিষয়টি আমলে নেয়া হয় না। সিদ্ধান্ত নেয়ার অধিকার যেন পুরুষের জন্মগত, আর নারী তা মেনে নিতে বাধ্য। তালাক বা পরিত্যাক্ত হওয়ার আশঙ্কায় স্ত্রীরা এই অন্যায় চাহিদা মেনে নেয়।

অনেক স্বামী যৌন সম্পর্ককে নিয়ন্ত্রণ ও দমনের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে এবং রাগ ও প্রতিহিংসা প্রকাশ বা নিজের কর্তৃত্ব ও ক্ষমতা প্রয়োগের সহজ উপায় মনে করে। কারো ইচ্ছের বিরুদ্ধে যৌন সম্পর্ক স্থাপন যৌন নির্যাতন ও সহিংসতা। বিবাহিত সম্পর্কের মধ্যে হলেও সেটি নির্যাতন ও সহিংসতা।

স্বামী-স্ত্রীর যৌন সম্পর্ক হতে হবে উভয়ের সম্মতিতে। সম্পর্কের দোহাই দিয়ে স্ত্রীর ওপর জবরদস্তি করা অপরাধ। যৌন নির্যাতন ও সহিংসতা থেকে সুরক্ষা পাওয়া নারীর মৌলিক অধিকার। দাম্পত্য সম্পর্কে যৌন জীবন হোক পারস্পরিক শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় ভরপুর।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close