আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
আপন ভুবন

প্রতিটা দিনই হোক নারীর জন্য মর্যাদার

জিশান সরকার :
আজ বিকেলটা অনেক সুন্দর। শেষ বিকেলের মিষ্টি রোদ প্যারিস রোডের বিশাল বৃক্ষের মাঝে খেলা করছে। পশ্চিম আকাশের সূর্যটা ডুবি ডুবি করছে। রক্তিম আভায় ছেয়ে গেছে চারপাশ। এমন সময় এক জরুরি কাজে বের হতে হল নাবিলাকে।প্রিয় মতিহারের সবুজ শ্যামল মনোরম পরিবেশ যে কোনও মানুষকে কবি বানিয়ে দেয়। কিন্ত হল থেকে বের হয়ে রিক্সাওলার সাথে একচোট ঝামেলা হয়ে গেলো। একলা মেয়ে দেখলেই যেন দিগুণ ভাড়া হাকাতে হবে। অগত্যা হাঁটতে শুরু করলো নাবিলা।

এক সময় পথ একা হাঁটতে তার মন ভয়ে কেঁপে উঠত । স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে পাড়ার বখাটে ছেলেরা যখন নানা কটূক্তি করতো । এদিকে ঘরে বাবামার সারাক্ষণ হাহুতাশ একটা ছেলে থাকলে এই বয়সে রোজরোজ বাজারে যেতে হতোনা।নাবিলার কিশোরী মন বুঝতনা আসলে দোষটা কি তারই- নারী হয়ে জন্মানো ? সেই বয়ঃসন্ধিকাল পেরিয়ে নাবিলা আজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী।কিন্তু আজও রাস্তাই একা বের হলে ভয়ে তার মন দুরুদুরু কাঁপে। উচ্চ শিক্ষার সর্ব উচ্চ পিঠে একা হাঁটতে গেলেও পিছন থেকে নানা মন্তব্য কানে আসে।শুনেও না শোনার ভাণ করে চলতে হয় প্রায় সব মেয়েকে।নারীরা শিক্ষিত হচ্ছে, চাকরি করছে কিন্তু নারীর চলার পথ নিরাপদ হয়নি।

নাবিলা হয়তো অনেক ভাগ্যবতী কারণ কিশোর বয়সের হাজারো লাঞ্ছনা শুনেও তাকে মাহিমা মিমিদের মত আত্মহত্যার পর্যায়ে যেতে বাধ্য হতে হয়নি। সব ধর্মই নারীদের অনেক মর্যাদা দিয়েছে কিন্তু বাস্তবে বর্তমান সমাজে তার বাস্তবায়ন কতটুক হচ্ছে। শিক্ষিত অশিক্ষিত ধনী গরিব সব সমাজেই যৌতুকের মত অনাচার বয়ে চলেছে যুগ যুগ ধরে। ভোগবাদী সমাজ তাকে যেভাবে দেখতে চেয়েছে নারী নিজেকে সেভাবে উপস্থাপন করে ধন্য হয়েছে। এখনও প্রাপ্য মর্যাদার জন্য তাকে লড়াই করতে হচ্ছে। শুধু বছরের একটা দিন নারীর জন্য মর্যাদার নয়, জীবনের প্রতিটা দিনই হোক নারীর জন্য মর্যাদার আজকের দিনে এই নাবিলার আকাংক্ষা ।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close