আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
সারাদেশস্লাইড

অনেকেই জানেন না, নারীর সিটে বসলে দণ্ড

ওমেনআই ডেস্ক : ফার্মগেট থেকে মিরপুর যাচ্ছে বাস। বেশ কিছু আসন ফাঁকা। ফার্মগেটের যাত্রীরা নেমে যাওয়ার পরে কয়েকজন উঠলেন। একজন পুরুষ যাত্রী বাসে উঠেই নারীদের জন্য সংরক্ষিত আসনে বসে গেলেন। চালকের সহকারী বললেন, ‘ভাই, মহিলার সিটে বইসেন না। পেছনে খালি আছে।’

ওই যাত্রী কিছুটা খেপে গিয়ে বললেন, ‘মহিলার সিট তো কী হইছে! পুরুষদের সিটে মহিলারা বসে না?’ এক যাত্রী তাঁকে বোঝানোর চেষ্টা করলেন যে বাসে পুরুষের সিট বলে কিছু নেই। তখন ওই যাত্রী গাঁইগুঁই করে অন্য সিটে গিয়ে বসলেন।
রাজধানীতে বিভিন্ন গণপরিবহনে এমন চিত্র অহরহই দেখা যায়। নারীদের সংরক্ষিত আসনে পুরুষ যাত্রীরা বসে যান। বিষয়টি যাতে না ঘটে, এ জন্য তৎপর হয়েছে সরকার। বাসে নারী, শিশু ও প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য সংরক্ষিত আসনে কেউ বসলে বা তাঁদের বসতে দিলে এক মাসের কারাদণ্ড বা পাঁচ হাজার টাকা জরিমানাসহ আরও কিছু বিধান যুক্ত করে সড়ক পরিবহন আইন ২০১৭-এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। গত সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এ আইনের খসড়ার অনুমোদন দেওয়া হয়।
নারীদের আসনে বসলে জেল ও জরিমানার বিষয়টি এখনো অনেকে জানেন না। আজ বুধবার সকালে ফার্মগেটে গাবতলী থেকে যাত্রাবাড়ীগামী বাসে উঠে দেখা গেছে, গাবতলী গন্তব্যে যাওয়ার সময় বাসটিতে নারীদের সংরক্ষিত আসনে নারীর পাশাপাশি পুরুষও বসছেন। এক নারী এ নিয়ে প্রতিবাদ করলে চালক তাঁকে বলেন, ‘সিট খালি ছিল, বইসা পড়ছে। এতে তো খারাপ কিছু দেখি না।’
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই নারী জানালেন, তিনি একটি গার্মেন্টসে কাজ করেন। বাড়িতে মা অসুস্থ, তাই গ্রামে যাচ্ছেন। তিনি জানান, নারীর আসনে প্রায় সব সময় তিনি পুরুষদের বসতে দেখেন। কিন্তু এ নিয়ে প্রতিবাদ করলে চালক বা সুপারভাইজার কেউ কিছু বলেন না। বাধ্য হয়ে চুপ থাকতে হয়। মুকুল মিয়া নামের ওই বাসের চালককে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, বাসে চলতে গেলে নারী-পুরুষ মানলে চলে না। আইনের খসড়ার বিষয়ে জানেন কি না—জানতে চাইলে তিনি বলেন, তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেন না।
মিরপুর থেকে গুলিস্থান গন্তব্যের ইটিসিএল পরিবহনের একটি বাসে উঠে দেখা গেল, বাসের অন্য আসন থাকার পরও দুজন পুরুষ নারীদের সংরক্ষিত আসনে বসলেন। পরে তাঁদের এই সিটে বসার কারণ জানতে চাইলে যাত্রীদের একজন জানালেন, সামনেই নামবেন তিনি। পরে অবশ্য ভুল বুঝতে পেরে অন্য আসনে বসলেন তাঁরা।
একটি বেসরকারি ব্যাংকের চাকরিজীবী শর্মী জানালেন, বাসে উঠে অনেক সময় দেখা যায়, নারীদের আসনে পুরুষ বসে আছেন। সে সময় আসন ছাড়তে বলা হলে অনেকেই ছেড়ে দেন। মাঝেমধ্যে অনেকে তর্ক জুড়ে দেন। তবে আগের চেয়ে মানুষ অনেকটা সচেতন হয়েছেন বলে তিনি জানালেন। আরেক বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবী ঝুমা রহমান জানালেন, তাঁর অফিস ফার্মগেটের কাছে। তিনি অনেক সময় মতিঝিল থেকে আসা বিআরটিসি বাসে মোহাম্মদপুরে যেতে ফার্মগেট থেকে বাসে ওঠেন। উঠেই দেখেন, নারীর আসনে পুরুষ। অনেকে আসন ছেড়ে দিলেও কেউ কেউ ছাড়েন না। অনেকে যুক্তি দেখান, তিনি মতিঝিল থেকে আসছেন, তাই আসন ছাড়বেন না। বাধ্য হয়ে দাঁড়িয়েই থাকতে হয়।
আরেক চাকরিজীবী শিমুল বলেন, অনেক সময় নারীদের আসনে পুরুষেরা বসে থাকলে তাঁদের উঠতে বলা হলেও জোর করে বসে থাকেন। উঠতে বলা হলে জানতে চান, সংরক্ষিত কথা কোথায় লেখা আছে। লেখা দেখালে আর কোনো কথা বলেন না আবার উঠতেও চান না। এর সমাধান কী?

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close