আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
খেলাধুলাস্লাইড

দ্রুত ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে বাংলাদেশ

ওমেনআই ডেস্ক : টার্গেটটা সীমার মধ্যেই রয়েছে। টস জেতার পর অধিনায়ক মাশরাফি বলেছিলেন স্বাগতিকদের ২৬০-২৮০ রানের মধ্যে বেঁধে ফেলা। কিন্তু এই লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ১০ রানেই গুরুত্বপূর্ণ ৩ ব্যাটসম্যানকে হারিয়েছে বাংলাদেশ। ৪ রানে তামিম ইকবালের বিদায়ের পর ফিরে গেছেন আরেক গুরুত্বপূর্ণ ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমান। ১ রানের ব্যবধানে এলবিডাব্লিউয়ের শিকার হন মি. ডিপেন্ডেবল খ্যাত মুশফিকুর রহিম। এই ৩ উইকেট হারিয়ে এখন ভীষণ চাপে আছে টিম টাইগার। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সফরকারীদের সংগ্রহ ৩.৩ ওভারে ৩ উইকেটে ১১ রান।

বাংলাদেশের ইনিংসের শেষ বলে তামিম ইকবাল ফিরতি ক্যাচ দেন কুলাসেকারাকে। বল হাতে জমিয়ে উল্লাসে আকাশে ছুঁড়তে চেয়েছিলেন বোলার। কিন্তু হাত থেকে বল গেল ফসকে! থার্ড আম্পায়ার কল করা হলো। টিভি রিপ্লেতেও দেখা গেল হাত থেকে ছোটার আগে বল নিয়ন্ত্রণে নিতে পেরেছিলেন কুলাসেকারা। এরপর

এর আগে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে ৭ নম্বর ব্যাটসম্যান থিসারা পেরেরার ব্যাটিং তাণ্ডবে ৯ উইকেটে ২৮০ রান তোলে স্বাগতিকরা। ইনিংসের শুরু থেকেই ব্যাটিং তাণ্ডব শুরু করেন দুই ওপেনার উপুল থারাঙ্গা এবং দানুশকা গুনাথিলাকা। ওপেনিং জুটিতে এসেছে ৭৬ রান। এরপরই বাংলাদেশকে কাঙ্ক্ষিত ব্রেক থ্রু এনে দেন তরুণ স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ। মিরাজের বলে ৩৮ বলে ৩ চার এবং ১ ছক্কায় ৩৪ রান করে মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদের তালুবন্দি হলেন দানুশকা গুনাথিলাকা।

এরপর কম সময়ের ব্যবধানে অসাধারণ এক ডেলিভারিতে বিপজ্জনক উপুল থারাঙ্গাকে বোল্ড করে দেন তাসকিন আহমেদ। এর আগে কয়েকটি শর্ট বল করে ব্যাক ফুটে নিয়ে যান বাঁহাতি ব্যাটসম্যানকে। এরপর দারুণ গতির একটি ফুল লেংথ বলে উড়ে যায় থারাঙ্গার স্টাম্প। এরপর সাকিব আল হাসানের বলে তাসকিন থ্রো আর মুশফিকের দ্রুতগতির আঘাতে রান আউট হয়ে যান ৩৫ বলে ২১ রান করা চান্দিমাল। ২৫ রানের ব্যবধানে আবার একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটে। এবার বদলি ফিল্ডার শুভাগত হোমের থ্রোতে ঝড়ের গতিতে স্টাম্পে বল লাগান মুশফিক। ফিরে যান ১৬ বলে ১২ রান করা শ্রীবর্ধনা। এরপর ৬৬ বলে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন কুশল মেন্ডিস। শেষ পর্যন্ত ৫৪ রানেই মুস্তাফিজের অফ কাটারে মুশফিকের হাতে ধরা পড়ে থামতে হয় তাকে।

এরপর নিয়মিতই উইকেট হারাতে থাকে স্বাগতিকরা। কিন্তু আবারও হাল ধরেন ৭ নম্বরে ব্যাট করতে নামা থিসারা পেরেরা। ইনিংসের শেষ ওভারের পঞ্চম বলে ৪০ বলে ৪ বাউন্ডারি এবং ১ ওভার বাউন্ডারিতে ৫২ রান করে মাশরাফির বলে তাসকিনের তালুবন্দী হন তিনি। ২৩০ রানে ৭ উইকেট হারানোর পর ৮ম উইকেটে জুটি হলো ৪৫ রানের। প্রথম উইকেটে ৭৬, তৃতীয় উইকেট ৪৯ রানের পর এটাই লঙ্কানদের তৃতীয় বড় জুটি। আর পেরেরা দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক।

বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট তুলে নিলেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। অবশ্য রানও বেশি দিয়েছেন তিনি। ১০ ওভারে ৬৫ রান। ১০ ওভারে ৫৫ রানে ২ উইকেট নিয়েছেন ফর্মে ফেরার চেষ্টায় থাকা কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। আর ১টি করে উইকেট নিয়েছেন মেহেদী মিরাজ আর তাসকিন আহমেদ।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close