আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
রাজনীতিস্লাইড

‘হেফাজতের সঙ্গে কোনো জোট করেনি আ.লীগ’

ওমেনআই ডেস্ক : হেফাজতে ইসলাম বা কোনো সাম্প্রদায়িক শক্তির সঙ্গে আওয়ামী লীগ কখনও আপস করবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করে না। হেফাজত বা আলেমদের সঙ্গে কোনো জোটও করেনি। আলেমদের সঙ্গে আলোচনায় শুধু কওমী মাদ্রাসার শিক্ষার স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে, কোনো বিষয়ে আপস হয়নি।’ আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সেতুমন্ত্রী এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরের সময় বিভিন্ন সমঝোতা স্মারক ও চুক্তি নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সংবাদ সম্মেলনের পাল্টা জবাব দিতে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে আওয়ামী লীগ। প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনের বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, যেকোনো মানদণ্ডে প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর ছিল অত্যন্ত কার্যকরি, ফলপ্রসূ ও সমগ্র জাতির জন্য মর্যাদাপূর্ণ। কিন্তু বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এই সফর সম্পর্কে গতানুগতিক মিথ্যাচার ও অন্তঃসার শূন্য বিভ্রান্তিমূলক বক্তব্য উপস্থাপন করেছেন। জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির জন্য বিএনপির এ ধরনের অসত্য, বানোয়াট ও দূরভিসন্ধিমূলক বক্তব্যের তীব্র নিন্দা এবং বিএনপি নেত্রীকে কোনো কিছু না জেনে, না বুঝে ‘অন্ধকারে ঢিল ছুড়ে মারার’ অপরাজনীতি থেকে বিরত থাকারও আহ্বান জানান তিনি। হেফাজতে ইসলামের সনদে স্বীকৃতি দেওয়া ও হাইকোর্টের সামনের ভাস্কর্য সরানোর দাবিতে তাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর একমত পোষণ করায় আলোচনা হচ্ছে, সরকার হেফাজতে ইসলামের সঙ্গে সমঝোতা করছে কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, বাস্তবতা বিবেচনা করে রাজনীতি করা হচ্ছে। দেশে রাজনৈতিক ও সামাজিক যে বাস্তবতা রয়েছে এবং জাতির যে অনুভূতি রয়েছে, তাতে আমরা যারা রাজনীতি করি, তাদের সেই বাস্তবতা নিয়ে এগোতে হবে। বাস্তবতা মেনে যারা সিদ্ধান্ত নিতে পারেন, তারাই প্রগতিশীল রাজনীতি করেন। আমরা সেটা মেনে নিয়ে রাজনীতি করছি। ভারতের সঙ্গে সামরিক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সমালোচনার জবাবে দলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘চীনের সঙ্গেও খালেদা জিয়া সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছিলেন। তখন তো তা নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি। সংসদে বা সংসদের বাইরে কোনো রাজনৈতিক দল বা ব্যক্তি সে সময় সমালোচনা করেননি। ভারতের সঙ্গে একই সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করায় কেন এই সমালোচনা? ভারত তো আমাদের বন্ধুপ্রতিম দেশ। মুক্তিযুদ্ধের সময় সহযোগিতা করেছে। মুক্তিযুদ্ধের সরাসরি বিরোধিতা করেছে—এমন দেশের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক সই করার সময় তো সমালোচনা হয়নি।
সাধারণ সম্পাদক জানান, ভারতসহ ১৩টি দেশের সঙ্গে এ ধরনের সামরিক সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে। কোনো কোনো দেশের সঙ্গে চুক্তির প্রক্রিয়া চলছে। এটা শুধু ভারতের সঙ্গে হচ্ছে না।
সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুর রাজ্জাক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ ও জাহাঙ্গীর কবির নানক, দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, প্রচার সম্পাদক হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক বাহাউদ্দিন নাছিম, আহমদ হোসেন ও এনামুল হক শামীম, উপদপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close