আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
সারাদেশস্লাইড

সিটিং সার্ভিস বন্ধ :‌ ‘সড়কে শৃঙ্খলা না আসা পর্যন্ত অভিযান চলবে’

ওমেনআই ডেস্ক : রাজধানীতে সিটিং সার্ভিস বন্ধে আজ রোববার সকাল থেকেই অভিযান চলছে। সড়কে শৃঙ্খলা না আসা পর্যন্ত এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।
আজ রোববার সকাল ৯টার দিকে তেজগাঁও সাতরাস্তার মোড়ে অভিযানের কার্যক্রম পরিদর্শনে এসে এ কথা বলেন সেতুমন্ত্রী। এর আগে সাতরাস্তা মোড়ে সকাল ৮টা থেকেই নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ আবদুস সালামের নেতৃত্বে বাম্পার অপসারণের কাজ শুরু হয়। এ সময় কিছু গাড়ি চালককে অনিয়মের দায়ে জরিমানাও করা হয়। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী নিজে উপস্থিত থেকে বেশ কয়েকটি ট্রাকের বাম্পার অপসারণ করান। পুরো অভিযানের কার্যক্রমও পরিদর্শন করেন ওবায়দুল কাদের। এ সময় সেতুমন্ত্রী বলেন, সিটিং সার্ভিস বন্ধে রাজধানীতে বিআরটিএ’র অভিযান শুরু হয়েছে। বাম্পার অপসারণ ও অন্যান্য অনিয়ম বন্ধে এ অভিযান শুরু হয়েছে। এটা পরিবহন খাতে শৃঙ্খলা ফিরে না আসা পর্যন্ত চলবে। মন্ত্রী বলেন, আইনের মাধ্যমেই পরিবহন খাতের বিশৃঙ্খলা সমাধান করে শৃঙ্খলা আনা হবে। এখানে কাউকে কোনো ছাড়া দেওয়া হবে না। ‘সিটিং সার্ভিস’ বন্ধের ফলে যাত্রী হয়রানির আশঙ্কা আছে কিনা- এমন এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলে, নিয়মের মধ্যে সবাই এলে কোনো সমস্যাই হবে না। যাত্রীদের ভোগান্তি রোধেই আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি। মানুষের ভোগান্তি বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত আমরা কাজ করব। এ সময় বিআরটিএকে অভিযানের কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার বিষয়েও তাগিদ দেন সেতুমন্ত্রী। জানা গেছে, সিটিং সার্ভিস বন্ধে রোববার সকাল থেকে অভিযানে নেমেছে বিআরটিএ’র পাঁচটি ভিজিলেন্স টিম। পরিবহন মালিক সমিতি ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের সমন্বয়ে গঠিত এ টিম সপ্তাহে তিনদিন রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় বিশেষ অভিযান চালাবে। প্রতিদিন সকাল ১১টায় আসাদগেট থেকে এই অভিযান শুরু হবে।
বিআরটিএ’র চেয়ারম্যান মো. মশিয়ার রহমান জানান, রাজধানীতে সিটিং সার্ভিসের কোনো অনুমোদন নেই। অননুমোদিত যানবাহনের বিরুদ্ধে তারা অভিযান শুরু করছেন। তিনি বলেন, শুধু সিটিং সার্ভিস বন্ধ নয়, যাত্রী হয়রানি রোধে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
রোববার রাজধানীর পাঁচটি স্থানে অভিযান পরিচালনার সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানান বিআরটিএ চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, রাজধানীর আসাদগেট, বিমানবন্দর বাসস্ট্যান্ডে সড়কের পশ্চিম পাশে, রমনার ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশনের সামনে, আগারগাঁওয়ে (আইডিবি ভবন), যাত্রাবাড়ী চাইপাই রেস্টুরেন্টের সামনে বিআরটিএ’র ভ্রাম্যমাণ আদালত থাকবে। সপ্তাহে তিনদিন এই অভিযান চলবে।
এর আগে গতকাল শনিবার সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্যাহ জানিয়েছিলেন, ঢাকায় সিটিং সার্ভিস বন্ধে অভিযান কাল থেকে। সরকার নির্ধারিত ভাড়ায় বাস চলা শুরু করবে। তিনি বলেন, মনিটরিংয়ে থাকবে পরিবহন মালিক সংগঠনের ভিজিলেন্স টিম। ঢাকায় ৫টি পয়েন্টে সড়কে মনিটরিং করা হবে। বিষয়টি নিয়ে কয়েকটি গণমাধ্যম ভুল সংবাদ প্রচার করে জনমনে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ করে খোন্দকার এনায়েত উল্যাহ বলেন, পহেলা বৈশাখ থাকায় জনগণের কথা চিন্তা করে আগামীকাল রোববার থেকে সিটিং সার্ভিস বন্ধ কার্যকর করা হচ্ছে। সিটিংয়ের পরিবর্তে লোকাল সার্ভিসের ভাড়া বিআরটিএ চার্ট করা তালিকায় চলবে। গত ৪ এপ্রিল রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ সার্ভিস বন্ধ ঘোষণা করেন ঢাকা পরিবহন মালিক সমিতি। বিআরটিএ নির্ধারিত চার্ট অনুসরণ করে ভাড়া আদায়ের কথা বলা হয় গণপরিবহনগুলোকে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close