আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
আন্তর্জাতিক

যুক্তরাষ্ট্রের সামনে কি টিকে থাকতে পারবে উত্তর কোরিয়া?

ওমেনআই ডেস্ক : কর্মক্ষমতার দিক থেকে উত্তর কোরিয়ার সেনাবাহিনীর অবস্থান বিশ্বে পঞ্চম। আর দেশটির নেতৃত্বের আসনে বসে আছেন কিম জং উনের মতো একজন অস্থির ও আক্রমণাত্মক নেতা। স্বভাবসুলভ আচরণেই যিনি যুক্তরাষ্ট্রকে পারমানবিক বোমা দিয়ে উড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন। তবে পাল্টা জবাব দেয়া হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকেও। পরিস্থিতি এমন যেন ‘যেকোনো সময়’ যুদ্ধ লেগে যাবে।

এই ধরণের হুমকি ও পাল্টা হুমকি নিয়ে এখন উত্তপ্ত আন্তর্জাতিক বিশ্ব। প্রশ্ন এখন একটাই, যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিপক্ষ হিসেবে আসলেই কি টিকে থাকতে পারবে উত্তর কোরিয়া?

বিশ্লেষকরা বলছেন, যেহেতু দেশটির একটি বিশাল বড় সংখ্যার সেনাবাহিনী রয়েছে, তাই তাদেরকে হালকাভাবে নেয়ার সুযোগ নেই। পাশাপাশি যুদ্ধের জন্য বিপুল অস্ত্র-শস্ত্র ও বোমা-বারুদের মজুদও রয়েছে তাদের। শুধু দক্ষিণ কোরিয়ার সীমান্তেই উত্তর কোরিয়ার প্রায় ১৩ হাজার বন্দুকধারী রয়েছে বলে জানা গেছে। উত্তর কোরিয়া যদি দক্ষিণ কোরিয়া বা অন্য যেকোনো প্রতিবেশী রাষ্ট্রকে একবার আক্রমণ করে বসে, তাহলে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই তারা বড় ধরনের ধ্বংসাত্মক অবস্থা সৃষ্টি করতে সক্ষম হবে। যা দেখে হয়তো সেনাবাহিনীর শক্তির দিক থেকে ব্যাপক পরাক্রমশালী রাষ্ট্রগুলোও বিস্মিত হতে পারে।

বলা হচ্ছে, উত্তর কোরিয়ার প্রায় ১০ লাখ ১০ হাজার থেকে ছয় লাখ নব্বই হাজারের মতো কার্যক্ষম সেনাবাহিনী রয়েছে। পাশাপাশি এটিও শোনা যায় যে, দেশটির চল্লিশ লাখ ১০ হাজার থেকে সত্তর লাখ ৭০ হাজার মতো সৈন্য মজুদ রয়েছে। যে কোনো পরিস্থিতিতে তাদের কাজে লাগানো হবে। তাই স্বাভাবিকভাবে উত্তর কোরিয়া একটি হুমকি। তবে তা অবশ্যই সীমিত সময়ের জন্য এবং নিকটবর্তী দেশগুলোর জন্য এ হুমকির মাত্রাটা একটু বেশি।

তবে দেশটির বিমান বাহিনী এবং নৌ-বাহিনী চরমভাবে সেকেলে ও প্রচুর ব্যবহৃত হয়ে থাকে। বিশেষজ্ঞদের বক্তব্যে এ তথ্যও বেরিয়ে এসেছে যে, দেশটি প্রায়ই তেলের স্বল্পতার জন্য তাদের সব উড়োজাহাজ চালাতে পারে না এবং সঙ্গত কারণেই তাদের পাইলটদের আকাশে উড়ার অভিজ্ঞতা একেবারেই কম। একই অবস্থা নৌ-বাহিনীতেও। সেকেলে প্রযুক্তি ও জ্বালানীর অভাব।

উত্তর কোরিয়ার শক্তির এই আলোচনা দিন শেষে এসে গড়াবে দেশটির পারমানবিক সক্ষমতার উপর। সুতরাং মূল প্রশ্নটি হচ্ছে তাদের পারমানবিক বোমা আছে কি না? এক্ষেত্রে উত্তর হচ্ছে -‘না’। উত্তর কোরিয়ার কোনো পারমানবিক বোমা নেই। এখানে বলে রাখা ভালো যে, পারমানবিক বোমার ‘পরীক্ষা’ চালানো আর পারমানবিক বোমা বা অস্ত্র থাকা দুইটি ভিন্ন বিষয়। কারণ বোমা তৈরিতে সফল না হয়েও সফলভাবে এর পরীক্ষা চালানো সম্ভব।

তবে পারমানবিক বোমা তৈরির সকল প্রকার কাঁচামাল উত্তর কোরিয়ার রয়েছে। কারিগরি দুর্বলতার কারণে বোমা তৈরির এ উদ্যোগ দূর পাল্লার টর্পেডোর মধ্যেই সীমাবদ্ধ রয়েছে বলে বিশ্লেষকদের ধারণা। তবে কেউ কেউ দ্বি-মতও পোষণ করেছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close