আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
উদ্যোক্তা

ইসমাত আরার জীবন বদলে গেছে সিরামিকের গয়নায়

ওমেন আই:
বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল দেশে অর্থনীতিতে নারীর অবস্থান খুব একটি আশাব্যঞ্জক না হলেও ধীরে ধীরে এ অবস্থার পরিবর্তন হচ্ছে। গত কয়েক বছরে অর্থনৈতিক অঙ্গনে নারীদের পথচলা বেড়েছে। আত্মকর্মসংস্থানেও নারীরা এখন বেশ আগ্রহী হয়ে পড়েছে। সংসারের বাড়তি খরচ মেটাতে নারীরা দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিচ্ছেন। এমনি এক উদাহরণ ইসমাত আরা।

নারী উদ্যোক্তা হিসাবে ইসমাত আরা নিজেকে প্রতিষ্ঠা করে তুলেছেন। ক্ষুদ্র কুটির শিল্প গড়ে তুলেছেন নিজ প্রচেষ্টায়। উদ্যোমী এই নারী গয়না বানিয়ে বিক্রি করেন। ঘরেই তার কারখানা। সঙ্গে আছেন সহযোগীও। তার কাজের অর্ডারও প্রচুর। কিন্তু যথেষ্ট পুঁজি না থাকায় চাহিদামত পণ্য সরবরাহ করতে পারেন না। ইসমাত আরা প্রথাগত সোনা বা রূপার গয়না বানান না। তিনি তৈরি করেন সিরামিক পাউডার দিয়ে নানান ধরনের অলংকার।

সিরামিকের গয়নার কারিগর ইসমাত আরা প্রথমে প্রশিক্ষণ নেন এবং পরে নিজেই উদ্যোগী হয়ে গয়না বানাতে থাকেন। থাকেন পুরনো ঢাকার হোসেনী দালান এলাকায়। প্রথমে সিরামিক পাউডার দিয়ে ফুলদানি, ফুলসহ কিছু শোপিস বানানো শেখেন। পরে গয়নার প্রতি আকৃষ্ট হন। হাতের, কানের ও গলার গয়না বানিয়ে নিজেই চমকে যান।

এরপর বিপুল উৎসাহে ইসমাত আরা শুরু করেন বাণিজ্যিকভাবে গয়না বানানোর কাজ। এখন তার স্বামী লতিফ রানাও তাকে সহায়তা করেন, উৎসাহ যোগান। গয়না বিক্রিতে সহযোগিতা করেন তার স্বামী। এভাবেই চলে সংসারের পাশাপাশি গয়নার ব্যবসা। বর্তমানে ঢাকার পাশাপাশি সিলেট ও চট্টগ্রামেও তার গয়নার চাহিদা রয়েছে।

সম্পূর্ণ নিজস্ব উদ্যোগ আর স্বল্প পুঁজি নিয়ে তার পথচলা। স্বল্পসুদে আর্থিক সহায়তা পেলে হয়তো আরো ব্যাপকভাবে তার গয়না সারাদেশে ছড়িয়ে দিতে পারতো। তার মতে, সিরামিকের এ গয়না পর্যটকদের জন্যও হতে পারে আকর্ষণীয় পণ্য। পরিবেশবান্ধব এই গয়না দেশের সর্বত্র ছড়িয়ে দিতে চান এই কর্মঠ নারী।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close