আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
অপরাধ

রমজানে হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে নব্য জেএমবি

ওমেনআই ডেস্ক : রমজান মাসেই বড় ধরনের জঙ্গি হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন পলাতক নব্য জেএমবির সদস্যরা। গত বছর রমজানে (১ জুলাই) গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় জঙ্গি হামলা চালিয়েছিল জঙ্গিরা। সংগঠনটির প্রধান সমন্বয়ক তামিম চৌধুরীর দিকনির্দেশনায় ওই হামলা চালানো হয়। বর্তমানে তামিম চৌধুরী না থাকলেও ঠিক একই কায়দায় তারা আবার হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে। আর এই হামলার নীলনকশা করেছেন নব্য জেএমবির বর্তমান আমির আইয়ুব বাচ্চু। বিষয়টি ভাবিয়ে তুলেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে। জঙ্গিরা যেন কোনো হামলা করতে না পারে সেজন্য প্রো-অ্যাকটিভ পুলিশিং শুরু করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

এ ব্যাপারে ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম বিভাগের প্রধান ডিআইজি মনিরুল ইসলাম আমাদের সময়কে বলেন, কয়েক মাস ধরে টানা অভিযান চালিয়ে নব্য ধারার জেএমবিকে অনেকটাই দুর্বল করা সম্ভব হয়েছে। সংগঠনটির অনেক গুরুত্বপূর্ণ নেতা গ্রেপ্তারের পাশাপাশি অভিযানকালে নিহত হয়েছেন। যারা পলাতক আছেন তাদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান চলছে। যে কোনো ধরনের পরিস্থিতি মোকাবিলায় কাউন্টার টেরোরিজম বিভাগের সদস্যরা প্রস্তুত রয়েছেন বলেও জানান তিনি।

সূত্র জানায়, তামিম চৌধুরী, তানভীর কাদেরী, মেজর জাহিদুল ইসলাম, নুরুল ইসলাম মারজান, আকাশসহ আরও বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা নিহত হওয়ার পরই মাইনুল ইসলাম মুসা নব্য জেএমবির হাল ধরেন। এর পর গত বছর ডিসেম্বর থেকে সংগঠনকে নতুন রূপে সংগঠিত করার কাজ শুরু করেন। মুসা নেতৃত্ব গ্রহণ করার পর জেএমবির শক্তি বাড়াতে বড় আকারের বোমা তৈরির কাজ শুরু করেন। লক্ষ্য, বড় ধরনের হামলা চালিয়ে নতুন করে নব্য জেএমবিকে সামনে আনা। এরই অংশ হিসেবে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরকদ্রব্য মজুদ করেন মুসা। চাঁপাইনবাবগঞ্জ, ঝিনাইদহ, সাভার, মৌলভীবাজার, সিলেট, রাজশাহীসহ দেশের কয়েকটি জেলায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা জঙ্গি আস্তানায় ৫ থেকে ১০ কেজি ওজনের একেকটি বোমা তৈরি ও মজুদ করতে থাকে। ঝিনাইদহের দুটি আস্তানা, চাঁপাইনবাবগঞ্জের জঙ্গি আস্তানা, মৌলভীবাজারের ২টি জঙ্গি আস্তানা, সিলেটের আতিয়া মহল ও কুমিল্লার জঙ্গি আস্তানায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ বোমা ও বোমা তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করে। এখনো বেশ কয়েকটি জঙ্গি আস্তানায় বোমা ও বোমা তৈরির সরঞ্জাম মজুদ রয়েছে। মৌলভীবাজারের আস্তানায় মুসা মারা যাওয়ার পর নব্য জেএমবির হাল ধরেন আইয়ুব বাচ্চু (সাংগঠনিক নাম)। তিনি বড় ধরনের জঙ্গি হামলার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এই হামলা রমজান মাসেই চালাতে চায় জেএমবি সদস্যরা।
এদিকে পুলিশের একাধিক সূত্রে জানা গেছে, মৌলভীবাজারের জঙ্গি আস্তানা পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম বিভাগের সদস্যরা ঘিরে ফেলার পর মুসা বুঝতে পারেন এবার আর এই আস্তানা থেকে তার পালানোর কোনো রাস্তা নেই, তখন ঢাকায় থাকা আইয়ুব বাচ্চুসহ বেশ কয়েকজন জঙ্গিকে ফোন করেন। তার অবর্তমানে সংগঠন কীভাবে চলবে তার দিকনির্দেশনাও দিয়ে যান। কীভাবে জিহাদের পথে টিকে থাকতে হবে তারও বর্ণনা দিয়ে গেছেন অডিও বার্তায়। কীভাবে সুইসাইডাল ভেস্ট বানাতে হবে তার একটি ভিডিও রেখে যান মুসা। মৌলভীবাজার আস্তানা থেকে পাওয়া কিছু ইলেকট্রনিক ডিভাইসের ফরেনসিক পরীক্ষা করে মুসার অডিও বার্তা ও ভিডিও ফুটেজ পেয়েছে পুলিশ।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close