আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
অর্থনীতি

সাদা পতাকা হাতে ব্যবসায়ীদের ‘প্রতিবাদ-বন্ধন’ (ভিডিও)

ওমেন আই : হরতাল, অবরোধ ও সহিংসতার প্রতিবাদে সাদা পতাকা হাতে রাজপথে নেমে শান্তি, ঐক্য ও রাজনৈতিক সমঝোতা চাইলেন ব্যবসায়ীরা। রোববার জামায়াতে ইসলামীর হরতাল-নাশকতার মধ্যেই নিরাপত্তার দাবি নিয়ে রাজধানীসহ সারা দেশে এই কর্মসূচি পালন করেন ব্যবসায়ীরা। ব্যবসায়ীরা এ কর্মসূচিকে বলছেন ‘প্রতিবাদ-বন্ধন’।

রোববার সকাল ১১ টায় তৈরি পোশাক রপ্তানিকারকদের শীর্ষ সংগঠন বিজিএমইএ ভবনের সামনে মানববন্ধনের পর ব্যবসায়ীদের একটি মিছিল বের হয়। মিছিলটি শেষ হয় মতিঝিলের এফবিসিসিআই ভবনের সামনে গিয়ে। একই সময়ে সাদা পতাকা হাতে মিছিল হয় রাজধানীর উত্তরা ও মিরপুরেও।

এফবিসিসিআই ভবনের সামনে এক সমাবেশে ব্যবসায়ীদের এই শীর্ষ সংগঠনের সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, এই কর্মসূচির মধ্য দিয়ে প্রধান দুই দলের কাছে একটা বার্তা গেল। আমরা বলতে চাই, ব্যবসায়ীরা শান্তি চায়। শান্তি প্রতিষ্ঠা না হলে ব্যবসায়ীরা আরো কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবে।

আকরাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, দুই দল সমঝোতায় এলে জাতির জন্য শান্তি আসবে। সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠানও সম্ভব হবে। আমরা হরতাল-অবরোধমুক্ত বাংলাদেশ চাই, আমরা সবার জন্য শান্তি চাই, সব সহিংসতার অবসান চাই। হরতাল-অবরোধেও সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখা হবে জানিয়ে সরকারের কাছে নিরাপত্তা চান এফবিসিসিআই সভাপতি। দেশের এই পরিস্থিতিতে ব্যবসায়ীরা দারুণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন, অনেকেই ঋণের কিস্তি শোধ করতে পারছেন না। কোনো ব্যবসায়ী ঋণের কিস্তি শোধ করতে ব্যর্থ হলে আপাতত তাকে ঋণখেলাপী ঘোষণা না করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

বিজিএমইএ এর পরিচালক শেখ আতিয়ার রহমান বলেন, চলমান রাজনৈতিক অচলাবস্থার কারনে বাংলাদেশের রপ্তানির বৃহত খ্যাত গার্সেন্টস চরম ঝুকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। যে কেন মুহুর্তে এ খ্যাত বন্ধ হয়ে যাবে। রাজনৈতিক কারনে এ অচলাবস্থার মুক্তি চাই। এ জন্য নিয়মিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে সাদা পতাকা নিয়ে কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে বলে জানান তিনি। ব্যাবসায়ীদের বিভিন্ন সংগঠন ছাড়াও বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন, কাভার্ড ভ্যান ট্রাক পণ্যপরিবহন মালিক সমিতি ও গার্মেন্টস কর্মকর্তাদের জোটও কর্মসূচিতে অংশ নেন। রাজধানীর ছাড়াও দেশের অন্যান্য জেলা শহরগুলোতেও একই কর্মসূচি পালন করছেন ব্যাবসায়ীরা।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close