আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
প্রযুক্তি

প্রযুক্তিতে নারীর উপস্থিতি বাড়ছে

indexওমেন আই: প্রযুক্তিনির্ভর চাকরিতে নারীদের অবস্থান এখনও সুসংহত নয়। কিন্তু ইন্টারনেটে নারীদের সরব উপস্থিতি রয়েছে। ওয়েবভিত্তিক বিভিন্ন সার্ভিসে নারীরাই বর্তমানে মূল অনুঘটকের ভূমিকা পালন করছেন। বিশেষ করে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটগুলোতে নারীদের উপস্থিতি এমনকি ছেলেদের চেয়েও বেশি। আজকের বিশ্বে খুব কম লোকই আছেন, যারা ফেসবুক ও টুইটারের মতো সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটের সাথে পরিচিত নন। বর্তমানে বিশ্বে ফেসবুকের সদস্যসংখ্যা ৬০ কোটিরও বেশি। টুইটারে গত বছর সর্বমোট আড়াই হাজার কোটি টুইট পোস্ট করা হয়েছে। এছাড়া টাম্বলারে প্রতি সপ্তাহে ১০০ কোটি পেজ ভিউ হয়। সোশ্যাল গেমিং নেটওয়ার্কিং সাইট ‘জিঙ্গা’ মাত্র ৬ সপ্তাহে ১০ কোটি সদস্য পেয়ে গেছে।
সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটগুলোর সাফল্যের অন্যতম কারণ নারীদের স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতি। বিভিন্ন বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান যেমন- কমস্কোর, নিয়েলসন, মিডিয়াম্যাট্রিক্স ও কোয়ান্টকাস্টের মতে, এসব নেটওয়ার্কিং সাইটের প্রাণ হচ্ছেন নারী। কমস্কোর দেয়া তথ্য অনুযায়ী নারীরা পুরুষদের তুলনায় ৩০ শতাংশ বেশি সময় ব্যয় করেন সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটগুলোতে। অন্যদিকে নিয়েলসনের মতে, মোবাইল সোশ্যাল নেটওয়ার্কিংয়ে নারীদের অবদান ৫৫ শতাংশ।

ইন্টারনেটে ভারতের ৬ কোটি নারী :

বিশ্বের উন্নত দেশগুলোর সঙ্গে উন্নয়শীল দেশগুলোর ইন্টারনেট বৈষম্য ক্রমেই কমে আসছে। তবে এ দূরত্ব কমতে উন্নয়নের গতি ততটা প্রত্যাশিত নয়। ভারতের নারী ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা অন্তত সে কথাই বলছে। তবে দ্রুতই এ অবস্থার পরিবর্তন হচ্ছে তা প্রায় সুস্পষ্ট।
ভারতের ১৫ কোটি ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর মধ্যে ৪০ ভাগ নারী। এর মধ্যে ২ কোটি ৪০ লাখ ভারতীয় নারী প্রতিদিনই কোনো না কোনো প্রয়োজনে ইন্টারনেটের সংস্পর্শে আসেন।
আর স্মার্টফোনেই ইন্টারনেটে সহজলভ্য প্রবেশাধিকার হওয়ায় এ সংখ্যা দ্রুতই বাড়ছে। এ ছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ, অনলাইন শপিং এবং ইমেইলের প্রয়োজন ইন্টারনেটের গুরত্বকে বহুগুণে বাড়িয়ে দিয়েছে।

সব মিলিয়ে ভারতের ৬ কোটি নারী এখন ইন্টারনেট ব্যবহার করেন। সাইবার ক্যাফে, নিজের ঘর, অফিস এবং স্মার্টফোনেই নারী ইন্টারনেট ব্যবহার করেন।
গুগল ইন্ডিয়ার ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাজন আনন্দ বলেন, ব্যক্তি, সংসার এবং সামাজিক প্রয়োজনেই নারীরা ইন্টারনেটমুখী হয়েছে। আর এ সংখ্যা বাড়ছে হু হু করে। নিত্যদিনের প্রয়োজনেই নারীরা ইন্টারনেটের দারস্থ হচ্ছেন।
তবে ভারতের ইন্টারনেট ব্যবহারকারী নারীদের অধিকাংশই বয়সে তরুণী। পরিচালিত গবেষণায় ৭৫ ভাগ নারীর বয়সই ছিল ন্যূনতম ১৫ থেকে সর্বোচ্চ ৩৪।
এর মধ্যে ভারতের ২ কোটি ৪০ লাখ নারী প্রতিদিনই ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন। ইন্টারনেটে নারীদের এ অংশগ্রহণ দেশটির অর্থনৈতিক উন্নয়নের পথেও প্রত্যক্ষ ভূমিকা রাখছে। এ তথ্যই উঠে এসেছে গুগল গবেষণায়।

ঢাকা ৬ মে (ওমেন আই) // এল এইচ //

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close