আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
আন্তর্জাতিক

দিল্লি-ওয়াশিংটন স্নায়ুযুদ্ধ, কুটনীতিককে গ্রেফতারের ঘটনা

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে একজন ভারতীয় কূটনীতিককে গ্রেফতারের ঘটনা দিল্লি-ওয়াশিংটন স্নায়ুযুদ্ধের রূপ দিয়েছে। গত সপ্তাহে দেবযানী খোবরাগাড়ে নামে ওই কূটনীতিককে গ্রেফতারের পর ভারত উদ্বেগ প্রকাশ করে। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র আরো কঠোর ভাষায় জানিয়ে দেয় যে মার্কিন আইনে তার বিচার হবে। ভারত এতে চরম ক্ষুব্ধ হয় এবং অভিযোগ করে, দেবযানীর সাথে মার্কিন পুলিশ এমন কিছু আচরণ করেছে যা কুটনৈতিক শিষ্টাচারের লংঘন।

অভিযোগে বলা হয়, ওই নারী কুটনীতিককে সাধারণ অপরাধী এবং সন্ত্রাসীদের মতো বিবস্ত্র করেও দেহ তল্লাশি করেছে পুলিশ। এমনকি তাকে আটকের পর মাদকসেবনের দায়ে আটককৃতদের সাথে একত্রে রাখা হয়েছিল। দিল্লি একে ‘যা খুশি তা করা’ উল্লেখ করে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছে। ভারত সরকার বলেছে, দেবযানীকে অভিযোগ থেকে মুক্তি দিয়ে ভারতে পাঠিয়ে না দেয়া পর্যন্ত দিল্লি তার অবস্থান বদলাবে না।

যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে পাল্টা পদক্ষেপের অংশ হিসেবে গতকাল মঙ্গলবার দিল্লিস্থ মার্কিন দূতাবাসের সামনে থেকে নিরাপত্তা ব্যারিকেড বুলডোজার দিয়ে গুড়িয়ে দেয়া হয়। মার্কিন দূতাবাসকে ভারত আর সর্বোচ্চ ক্যাটাগরির নিরাপত্তা দেবে না। এখন থেকে সেখানে শুধু পুলিশ পিকেট থাকবে। নয়াদিল্লির পুলিশ দুটো ট্রাক এবং বুলডোজার দিয়ে মার্কিন দূতাবাসের সামনের কংক্রিট বেষ্টনী ভেঙে ফেলে। দূতাবাসের বাইরের রাস্তায় গাড়ি চলাচল নিয়ন্ত্রণের জন্য এ বেষ্টনী ব্যবহার করা হতো।

নিরাপত্তা দূর্বল করা ছাড়াও প্রত্যাহার করা হচ্ছে মার্কিন কূটনীতিবিদদের এয়ারপোর্টের পাস। এখানেই শেষ নয়, ভারতে অবস্থানকারী সকল মার্কিন কূটনীতিবিদদের পরিচয় পত্র জমা দিতে নির্দেশ দিয়েছে দিল্লি। কনস্যুলেটদের পরিবারকেও দেয়া হয়েছে একই নির্দেশ। বিরোধ এতটাই তুঙ্গে পৌঁছেছে যে মার্কিন কংগ্রেসের এক প্রতিনিধিদলের সঙ্গে প্রস্তাবিত বৈঠকও বাতিল করে দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুশীল কুমার সিন্ধে ও কংগ্রেস সহ-সভাপতি রাহুল গান্ধী।

উল্লেখ্য, দেবযানীর বিরুদ্ধে জাল ভিসার সাহায্যে সঙ্গীতা রিচার্ড নামে এক ভারতীয় পরিচারিকাকে আমেরিকা নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ তুলেছে মার্কিন প্রশাসন। গত বৃহস্পতিবার সকালে মেয়েকে স্কুলে দিয়ে যাওয়ার পথে তাকে গ্রেফতর করে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close