আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
সারাদেশ

নামি কোম্পানির মোড়কে চীনে তৈরি ভেজাল ওষুধ

ওমেনআই ডেস্ক : ওষুধ শিল্পেও থাবা বসিয়েছে অসাধু চক্র। দেশের নামি কোম্পানির ক্যানসার প্রতিষেধকসহ জীবনরক্ষাকারী দামি ওষুধ নকল করে তা চীনে তৈরি করা হচ্ছে। পরে সেগুলো দেশে এনে ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে বাজারে। এর আগে ভেজাল ওষুধ তৈরির সন্ধান পাওয়া গেলেও এবারই প্রথম বিদেশে তৈরি এসব ওষুধ দেশে আমদানির তথ্য পেল পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।
গত বৃহস্পতিবার পুরান ঢাকার তাঁতীবাজার এলাকা থেকে চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করে সিআইডি। তারা হলেন রুহুল আমিন ওরফে দুলাল চৌধুরী, নিখিল রাজ বংশী ও সাঈদ। তাদের তথ্যের ভিত্তিতে তাঁতীবাজারের একটি গোডাউন থেকে উদ্ধার করা হয় ২১ হাজার পাতা ওষুধ এবং তিন লাখ ৬৪ হাজার টাকা। তাদের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা করা হয়েছে। সিআইডি বলছে, এসব নকল ওষুধ মানুষের জীবননাশের কারণ।
গতকাল দুপুরে সিআইডি সদর দপ্তরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বিশেষ পুলিশ সুপার মোল্যা নজরুল ইসলাম জানান, গ্রেপ্তারকৃতরা প্রায় সময়ই চীনে যাতায়াত করত। সেখানে গিয়ে চাহিদানুযায়ী ভেজাল ওষুধ তৈরির অর্ডার দেয়। নামিদামি জীবনরক্ষাকারী এসব ওষুধ তৈরি হয় ক্যালসিয়াম ক্লোরাইডসহ নিম্নমানের উপাদান দিয়ে। এর পর ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী আমদানির আড়ালে কাস্টমসের কিছু অসাধু কর্মকর্তার সহায়তায় সেগুলো নিয়ে আসত এ চক্র।
সিআইডির এ কর্মকর্তা বলেন, আমরা তাদের কাছে এমটিএক্স, ক্লোমাইড ও রিভোকন নামের তিন ধরনের ভেজাল ওষুধ পেয়েছি। এসব ওষুধ প্রতি পাতা তৈরি এবং আমদানিতে ব্যয় হতো ১২ টাকা। অথচ দেশের বাজারে এর মূল্য ২০০ থেকে ৩০০ টাকা। তবে এজেন্টদের কাছে ৮০ থেকে ৯০ টাকায় বিক্রি করত। চক্রটি চায়না থেকে ভেজাল ওষুধ এনে রাখত তাঁতীবাজারের একটি গোডাউনে। সেখান থেকেই এজেন্টদের মাধ্যমে দেশের বাজারে ছড়িয়ে দিত। জীবন রক্ষাকারী এসব দামি ওষুধে ভেজালের ফলে মানুষ শেষপর্যায়ে এসেও প্রতারিত হচ্ছে।
মোল্যা নজরুল ইসলাম আরও বলেন, গ্রেপ্তারকৃতরা মূলত জুয়াড়ি। বিভিন্ন ক্যাসিনোতে জুয়া খেলতে গিয়েই একে অপরের পরিচয়। এর পর পরস্পরের যোগসাজশে চীনে ভেজাল ওষুধ বানিয়ে আমদানির পরিকল্পনা করে। আমরা এর সঙ্গে জড়িত আরও কয়েকজনের নাম পেয়েছি। গ্রেপ্তারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে ওষুধগুলো কোন কোন পয়েন্টে বিক্রি হয় এবং এ বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাবে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close