আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
শিক্ষা

পরীক্ষায় চাপ কমাতে…

ওমেনআই ডেস্ক : পরীক্ষা দিয়ে তবেই একটি সার্টিফিকেট অর্জন সম্ভব। এই যোগ্যতা অর্জন করতে প্রত্যেকেই জীবনে নানা পরীক্ষার সম্মুখীন হতে হয়। আপনার সন্তানও এর ব্যতিক্রম নয়। বড়দের মতো ছোটদেরও পরীক্ষার সময় একটা ভীতি কাজ করে। এই ভীতির কারণে বেশিরভাগই পরীক্ষায় ভালো করতে পারে না। অনেকে আবার মা-বাবার চাপের কারণেও ভালো করতে পারে না। যাহোক, পরীক্ষায় কাঙ্খিত ফল পেতে চাইলে সবার আগে আপনার সন্তানের পরীক্ষা ভীতি দূর করা আবশ্যক। এ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন মা-বাবা।
‘টাইমস অব ইন্ডিয়া’ অবলম্বনে জেনে নিন পরীক্ষায় শিশুদের ভীতি দূর করতে কী করবেন-

তুলনা নয়
আপনার সন্তানকে কখনোই অন্য বাচ্চাদের সঙ্গে তুলনা করবেন না। এটি করলে বাচ্চাদের তো ভালো হয়ই না, বরং তাদের অনেক ক্ষতি হয়। তুলনায় বাচ্চাদের মনে হয়, তারা শুধু মা-বাবার টাকা পয়সা নষ্ট করছে। এতে সবসময় তাদের মধ্যে হতাশা কাজ করে। ফলে পরীক্ষায়ও তারা ভালো করতে সক্ষম হয় না। এখানেই শেষ নয়, হতাশা এবং উদ্বেগ থেকে আপনার সন্তার অসুস্থও হয়ে যেতে পারে।

উৎসাহ দিন
সন্তানদের বোঝান, একাডেমিক পরীক্ষাই সবকিছু নয়। তাকে বলুন, পরীক্ষায় ৯৫ নম্বর পেলে ভালো। আর যদি তুমি ৭০ নম্বরও পাও তাতেও ক্ষতি নেই। তুমি তো ভালোভাবেই পাস করেছ। আপনার সন্তানকে কখনোই পড়ার জন্য চাপ দিবেন না। এমনকি তারা যে কাজগুলো (সাতার কাটা, মাছ ধরা) করতে চায় আপনার অপছন্দনীয় হলেও তা করতে বাঁধা দিবেন না। তার মানে এই নয় যে, আপনি আপনার সন্তানকে নিয়ন্ত্রণ করবেন না। শুধু খেয়াল রাখবেন, তারা যেন কুসর্গে না মেশে এবং কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ফোন, সিনেমা দেখে বেশি সময় না কাটায়।

এখনো তোমাকে ভালোবাসি
সন্তান পরীক্ষায় যা-ই করুন না কেন তাকে সবসময় বলুন, আপনি এখনো তাকে ভালোবাসেন। তাকে বলুন, কম নম্বর পেয়েছো বলেই তোমার সবকিছু শেষ হয়ে যায়নি। এ থেকে শিক্ষা নিয়ে ভবিষ্যতে আরও ভালো করার চেষ্টা করো।

বিকল্প পথ
শুধু পড়াশুনায় যে ভালো হতে হবে এমন কোন কথা নেই। পড়াশুনা ছাড়া খেলাধুলাসহ আরও অনেক ক্ষেত্রে আছে সন্তানদের সেসব পথে যেতেও উৎসাহিত করুন।

ভালো নম্বর পেলেই ভালো চাকরি নয়
সন্তানকে এটা বোঝান যে ভালো নম্বর পেলেই সবসময় ভালো চাকরি নাও হতে পারে। দুটো ক্ষেত্র আলাদা। তাকে বলুন, ভালো চাকরি পেতে হলে আরও অনেক দক্ষতা অর্জন করতে হয়। এ ক্ষেত্রে তাদের সেই দক্ষতা অর্জনে সহযোগিতা করুন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close