আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
নারী নির্যাতনস্লাইড

কোরবানির গরু যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা

ওমেনআই ডেস্ক : শ্বশুর বাড়ি থেকে কোরবানির গরু যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে বেদম মারধর করে হাতের আঙুল ভেঙে দিয়েছে স্বামী। এমনকি গলাটিপে হত্যার চেষ্টাও করা হয়। এমন অভিযোগ এনে গত শনিবার রাতে চট্টগ্রাম মহানগরীর কোতোয়ালী থানায় মামলা দায়ের করেন স্ত্রী দিনা আক্তার (২৫)।

চট্টগ্রাম মহানগরীর কোতোয়ালী থানার মিয়াখান নগরে স্বামী মো. ইলিয়াছের (৪০) বাসায় ঈদের একদিন পর শুক্রবার বিকেলে এই বেদম মারধর করা হয়। এতে গুরুতর আহত হয়ে স্ত্রী দিনা আক্তার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়।
এ ঘটনায় স্বামী মো. ইলিয়াছকে একমাত্র আসামি করে মামলা করেন স্ত্রী দিনা আক্তার।

তবে মামলার খবর জানাজানির পর আসামি মো. ইলিয়াছ আত্মগোপনে চলে গেছে। তাকে গ্রেপ্তারের চেস্টা চলছে বলে জানান কোতোয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন।
ওসি জানান, দিনা আক্তার স্বামীর মারধরে গুরুতর আহত হয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে একদিন চিকিৎসা নেওয়ার পর থানায় এসে মামলা করেন। তার শরীরের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তার বাম হাতের একটি আঙুল ভাঙা।
স্ত্রী দিনা আক্তার জানান, দেড় বছর আগে ডালিমের সঙ্গে সামাজিকভাবে বিয়ে হয় তার। বিয়ের সময় ইলিয়াছকে সংসারের যাবতীয় উপকরণ যৌতুক হিসেবে দেয়া হয়েছে। তারপরও বিয়ের পর থেকে যৌতুকের জন্য চাপ দেয় সে।
তিনি বলেন, যৌতুকের জন্য বিভিন্ন সময় মারধর করত ইলিয়াছ। সংসারের কথা ভেবে সব কিছুই সয়ে যেতাম। তবে এবারের ঈদে কোরবানির জন্য গরু না দেয়ায় ঈদের তৃতীয় দিন গত শুক্রবার বিকেলে আমাকে বেধড়ক মারধর করে এবং একপর্যায়ে আমাকে হত্যার চেষ্টা চালায়।
দিনার স্বজনরা জানান, দিনাকে বাড়িতে নেয়ার পর থেকেই যৌতুকের জন্য মারধর করে আসছে ইলিয়াছ। দিনা প্রথমে আমাদেরকে বিষয়টি জানায়নি। তবে এবার ইলিয়াস হত্যার চেষ্টা করলে খবর পেয়ে পুলিশের সহায়তায় দিনাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছি।
এই ব্যাপারে জানতে চাইলে মো. ইলিয়াছ বলেন, বিষয়টি নিয়ে এ মূহুর্তে আমি কিছু বলতে পারব না। আমার মানসিক অবস্থা ভাল নেই।
চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ-সিএমপির কোতোয়ালী জোনের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, নির্যাতনের শিকার দিনা আক্তার নিজেই বাদী হয়ে শনিবার বিকালে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। পারিবারিক হওয়ায় পুলিশ সতর্কতার সঙ্গে বিষয়টি দেখছে।
চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী বলেন, এটা খুবই নিন্দনীয় কাজ। স্ত্রীর গায়ে হাত তোলা কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close