আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
রাজনীতি

সেনাবাহিনীকে জনগণের মুখোমুখি করা হচ্ছে: বিএনপি

সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের মাধ্যমে তাদের জনগণের মুখোমুখি দাঁড় করার ‘চেষ্টা’ হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।
শনিবার বিকালে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, “প্রহসনের নির্বাচনে দেশপ্রেমিক সশস্ত্র বাহিনীকে নিয়োগ করার খবরে আমরা বিস্মিত হয়েছি। অযোগ্য নির্বাচন কমিশন সরকারের ইচ্ছা পূরণের জন্য নিজেরা জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থা নিয়েছে। এখন সেনা বাহিনীকেও জনগণের বিপক্ষে দাঁড় করানোর অপচেষ্টা চালাচ্ছে।”

দশম সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে শুক্রবার নির্বাচন কমিশন আগামী ২৬ ডিসেম্বর থেকে ১৫ দিনের জন্য সারাদেশে সেনা বাহিনী মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেয়।

এর একদিন পর সেনা বাহিনী মোতায়েন নিয়ে প্রতিক্রিয়া এলো ১৮ দলীয় জোটের।

নজরুল বলেন, “যে নির্বাচনে জনগণের অংশগ্রহণ নেই। দেশ-বিদেশের কারো কোনো আগ্রহ নেই। সেই প্রহসনের নির্বাচনে সেনা মোতায়েন অপ্রয়োজনীয় বলে আমরা মনে করি।”

গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে বিকালে অবরোধ কর্মসূচির প্রথম দিনের পরিস্থিতি জানাতে এই সংবাদ ব্রিফিং ডাকা হয়। শনিবার ভোর ৬টা থেকে ১৮ দলের ডাকা পঞ্চম দফা অবরোধ কর্মসূচি শুরু হয়।

সংলাপ সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাম্প্রতিক বক্তব্যকে বিভ্রান্তিকর অভিহিত করে নজরুল ইসলাম খান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে অনেক পূর্ব শর্ত ‘যদি’ ও ‘প্রয়োজনের’ উল্লেখ থেকে স্পষ্টই বলে দেয়া যায়- এটা চলমান আন্দোলনে অংশগ্রহনকারী জনগণকে বিভ্রান্ত এবং ভোটার বিহীন ভোটরঙ্গ মনোনীত সংসদ ও সরকারকে স্থায়ী করার এক অপচেষ্টা মাত্র।”

এর আগে বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী বলেন, আন্দোলন কর্মসূচি বন্ধ করা হলে নির্বাচনের পরে যদি আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতায় আসা যায়, তাহলে প্রয়োজনে সংসদ ভেঙ্গে নতুন নির্বাচন দেয়া যেতে পারে।

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য নাকচ করে দলের স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, “একাদশ কিংবা পরবর্তী কোনো নির্বাচন নিয়ে আলোচনার কোনো অবকাশ কিংবা আগ্রহ আমাদের কোনোদিনও ছিলো না, এখনো নেই।”

নজরুল ইসলাম খান জানান, অবরোধের প্রথম দিনে ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বজলুল করীম আবেদসহ সারাদেশে ৩৮৫ জন গ্রেপ্তার, একজন নিহত এবং ৫২৩ জন বিরোধী নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

সংবাদ ব্রিফিংয়ে অন্যদের মধ্যে দলের আর্ন্তজাতিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন, সহ-দপ্তর সম্পাদক আবদুল লতিফ জনি, শামীমুর রহমান শামীম ও আসাদুল করীম শাহিন উপস্থিত

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close