আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
সারাদেশ

মেয়েদের বিয়ের বয়স ১৮ থেকে কমানোর চিন্তা

ballo w,mnওমেনআই :বর্তমানে মেয়েদের বিয়ের সর্বনিম্ন বয়স ১৮ বছর। ‘বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন-২০১৪’তে বিয়ের বয়স ১৮ বছরই নির্ধারণ করা হয়েছে।

কিন্তু দেশের সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে মেয়েদের বিয়ের বয়স ১৮ থেকে কমানো যায় কি না তা খতিয়ে দেখতে আইন মন্ত্রণালয় এবং মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

গতকাল সোমবার মন্ত্রিসভা বৈঠকে ‘বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন-২০১৪’ নীতিগত অনুমোদন করা হলেও মেয়েদের বিয়ের বয়স কমানোর কোনো রাস্তা আছে কি না তা খুঁজে বের করতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে জাতিসংঘের বিভিন্ন সনদ, দেশের প্রচলিত বিভিন্ন আইন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার জন্য মন্ত্রিসভা পরামর্শ দিয়েছে।

বৈঠকে উপস্থিত একজন মন্ত্রী জানান, বর্তমানে ১৮ বছরের কম বয়সী নারী এবং ২১ বছরের কম বয়সী পুরুষকে নাবালক ধরা হয়। কিন্তু বিয়ের জন্য নির্ধারিত বয়স কমানো যায় কি না তা পর্যালোচনার জন্য সোমবার মন্ত্রিসভা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোকে অনুশাসন দিয়েছে।

এর কারণ হলো, আমাদের দেশে বয়স ১৮ বছর পূর্ণ হওয়ার আগেই বেশির ভাগ মেয়ের বিয়ে হয়। জলবায়ুগত কারণে এ দেশের নারীরা ১৮ বছরের আগেই বিয়ের উপযুক্ত হয়। এ কারণেই আইনে নারীদের বিয়ের বয়স কমানোর বিধান রাখা যায় কি না তা খতিয়ে দেখা হবে।

তবে কাজটি সহজ নয় বলে জানিয়েছেন ওই মন্ত্রী। তার মতে, বাংলাদেশ জাতিসংঘ ঘোষিত নারীর প্রতি সব ধরনের বৈষম্য বিলোপ সনদ (সিডও) সই করেছে। শিশু অধিকার সনদেও সই করেছে। এর পরও দেশে বিভিন্ন আইন রয়েছে, যেগুলোর সঙ্গে বিষয়টি সাংঘর্ষিক হবে। এর পরও কোনো রাস্তা বের করা যায় কি না তা দেখা হবে। আইন মন্ত্রণালয় বিষয়গুলো দেখে আবার খসড়া আইনটি মন্ত্রিসভায় নিয়ে আসবে। তখনই আইনটির খসড়া চূড়ান্ত করা হবে।

গতকালের মন্ত্রিসভায় সাজা ও জরিমানার পরিমাণ বাড়িয়ে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনের খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। নতুন আইন অনুযায়ী, বাল্যবিবাহের অপরাধের জন্য সর্বোচ্চ সাজা হবে দুই বছর, জরিমানা হবে ৫০ হাজার টাকা। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা এ সাজা দেবেন। তবে বিয়ে বাতিলের বিষয় থাকলে তা করবেন পারিবারিক আদালত। অপরাধী নারী হলে শুধু আর্থিক দণ্ড হবে, কারাভোগ করতে হবে না।

বর্তমান বাল্যবিবাহ আইনটি অনেক পুরনো। ১৯২৯ সালে প্রণয়ন করা হয়েছে এটি। বিদ্যমান আইনে বাল্যবিবাহের অপরাধের জন্য এক হাজার টাকা জরিমানা ও সর্বোচ্চ তিন মাসের সাজার বিধান রয়েছে। যারা বাল্যবিবাহ করেছে, যারা বিয়েটি পরিচালনা করে এবং যারা বাল্যবিবাহের অনুষ্ঠানের সঙ্গে সম্পৃক্ত, তারা এই দণ্ডের আওতায় পড়বে।

ঢাকা, ১৭ সেপ্টম্বর (ওমেনআই)/এলএইচ/

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close