আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
নারী সংগঠন

নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারছে না সরকার

IMG_20141012_165709-e1413132327130ওমেনআই:পুরুষতান্ত্রিক রাষ্ট্র ও সরকার ঘরে-বাইরে কোথাও নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারছে না বলে অভিযোগ করেছেন বিপ্লবী নারী সংহতির নেতারা।

রোববার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক প্রতিবাদী মানববন্ধনে এ অভিযোগ করেন বিপ্লবী নারী সংহতির নেতারা।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ‘পত্রিকার পাতায় নারী বিষয়ক খবর মানেই ধর্ষণ হওয়ার খবর, পুড়ে মরার খবর, আর নির্যাতনের খবর। পরিসংখ্যানে দেখা গেছে আমাদের দেশে প্রতি বছর গড়ে ১ হাজার জন নারী ধর্ষিত হচ্ছে। ধর্ষণের আলামত নষ্ট করে ফেলার জন্য ধর্ষিত নারীদের পুড়িয়ে মেরে ফেলা হচ্ছে। এই রাষ্ট্রে শিশু থেকে শুরু করে কোন বয়সের নারীরা নিরাপদ? আমরা দেখছি মেয়ে শিশুদেরও ধর্ষণ করা হচ্ছে।’

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরের মা ও তিন মেয়েকে আগুনে পুড়িয়ে মারার ঘটনায় অভিযুক্ত আসামি জাহাঙ্গীর আলমসহ তার সহযোগীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে এ মানববন্ধনের আয়োজন করে সংগঠনটি।

মানববন্ধনে আরও বলা হয়, ‘মির্জাপুরে নিহত মা হাসনা বেগম এবং তিন মেয়ে মনিরা, মিলি ও মিমকে ঘুমন্ত অবস্থায় ঘরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা করেছে স্থানীয় প্রভাবশালী জাহাঙ্গীর আলম। নবম শ্রেণীর ছাত্রী মনিরা ও তার পরিবারকে দিনের পর দিন উত্যক্ত করেই রেহাই দেয়নি হত্যাকারীরা। শেষ পর্যন্ত পরিবারের সবাইকে পুড়িয়ে মারলো।’

ক্ষোভ প্রকাশ করে বক্তারা বলেন, ‘পরিকল্পিত এ হত্যাকাণ্ডের ৬ দিন পার হয়ে গেলেও জাহাঙ্গীর ও তার সহযোগীদের এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। প্রশাসনের এ ধরনের অবহেলার কারণেই হত্যাকারী-নিপীড়ক-ধর্ষকেরা ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে যাচ্ছে। এ কারণেই নারী নির্যাতন-ধর্ষণের ঘটনা বেড়ে চলেছে। দেশে যে বিচারহীনতার সংস্কৃতি চলছে তাতে অপরাধীরা বিচার বা শাস্তির আওতায় না আসায় নারীরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে।’
সরকারের উদাসীনতাকেই নারী নির্যাতন বৃদ্ধির মূল কারণ বলেও উল্লেখ করেন বক্তারা।

বক্তারা অভিযোগ করেন, ‘পুলিশ বলছে তারা নাকি খুনী জাহাঙ্গীরকে ধরতে পারছে না। আবার তারাই জাহাঙ্গীরকে ধরিয়ে দিতে পারলে ১ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছে। এটা কেমন পরিহাস?’

মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে উপস্থিত ছিলেন ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া ও অধ্যাপক ঝর্ণা রহমান। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বিপ্লবী নারী সংহতির সমন্বয়ক শ্যামলী শীল, সহ-সমন্বয়ক তাসলিমা আখতার লিমা, গণসংহতি আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সদস্য ফিরোজ আহমেদ, প্রতিবেশ আন্দোলনের সমন্বয়ক আবুল হাসান রুবেল, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম সোহেল, বিপ্লবী নারী সংহতির কেন্দ্রীয় সদস্য রেবেকা নীলা।

ঢাকা,১৪ অক্টোবর (ওমেনআই)/এসএল/

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close