আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
রাজনীতি

খালেদার গৃহবন্দিত্বের শঙ্কায় বিএনপি

ওমেন আই :
গত ২৪ ডিসেম্বর গুলশান কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে আগামী ২৯ ডিসেম্বর রবিবার ‘মার্চ ফর ডেমোক্রেসি’ কর্মসূচি ঘোষণা করেন বিএনপি চেয়ারপারসন ও ১৮ দলীয় জোট নেত্রী খালেদা জিয়া।

কর্মসূচি ঘোষণার পর ওই রাত থেকেই বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয় খালেদা জিয়ার বাড়ির সামনে। যদিও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে নিরাপত্তা বাড়ানোর জন্য এটি করা হয়েছে। কিন্তু দেখা গেছে, বুধবার সকাল থেকেই বিএনপি নেতাদেরকে দলের চেয়ারপারসনের সঙ্গে দেখা করতে দেয়া হচ্ছে না। ইতোমধ্যে কয়েকজন নেতাকে তার বাড়ির সামনে থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে বিএনপি নেতারা আশঙ্কা করছেন আগামী ২৯ ডিসেম্বরের ‘মার্চ ফর ডেমোক্রেসি’ কর্মসূচি এবং ৫ জানুয়ারির একতরফা নির্বাচন করতে বিরোধী দলীয় নেত্রীকে গ্রেফতার বা গৃহবন্দি করতে পারে সরকার।

৫ দফা দীর্ঘ অবরোধের পর মোটামুটি শান্তিপূর্ণ এই কর্মসূচি ঘোষণা করলেও একে কেন্দ্র করে বেশ অস্বস্তিতে রয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। সরকার মনে করছে, বিরোধী দল সারাদেশ থেকে লক্ষাধিক সমর্থক রাজধানীতে জড়ো করতে পারলে অনাকাঙ্ক্ষিত যেকোনো পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে। সেই পরিস্থিতি সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরেও চলে যেতে পারে। এই আশংকা থেকেই কর্মসূচি ঘোষণার পরপরই এটি প্রতিহত করার ঘোষণা দেন আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা।

বৃহস্প্রতিবার রাতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান এক ভিডিও বার্তায় বলেন, গণতন্ত্র রক্ষার জন্য বিরোধী দল ঘোষিত ২৯ ডিসেম্বরের কর্মসূচিকে ব্যাহত করতে সরকার সারা দেশের বিএনপির নেতাকর্মীকে বেগম খালেদা জিয়ার কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন করে রাখতে সব ধরনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

এরপর এটিএন টাইমসকে তিনি বলেন, সরকার বিরোধী দলীয় নেত্রীর সঙ্গে যে আচরণ করছে তা সকল রাজনৈতিক শিষ্টাচার ভঙ্গ করছে। খালেদা জিয়ার প্রতি সরকারের এই আচরণ ‘গৃহবন্দিত্বের শামিল’ বলেও মন্তব্য করেন এই নেতা।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান এটিএন টাইমসকে বলেন, সরকার ইতিমধ্যে বিএনপি চেয়ারপারসনকে গৃহবন্দিই করে রেখেছে। দলের কোনো নেতাকর্মীকে তার সঙ্গে দেখা করতে দিচ্ছে না। এমনকি তার আইনজীবীরাও তার সঙ্গে দেখা করতে পারছেন না। তার বাড়ির সামনে যিনিই যাচ্ছেন তাকেই বিনা কারণে গ্রেফতার করা হচ্ছে।

তিনি অভিযোগ করেন, সরকার আতঙ্কিত হয়ে সারা দেশে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের স্বাভাবিক চলাচলও করতে দিচ্ছে না। তবে বিএনপি চেয়ারপারসনকে গৃহবন্দি এবং দলের সিনিয়র নেতাদের গণগ্রেপ্তার করেও সরকারের শেষ রক্ষা হবে না। বিরোধী দলের আন্দোলন সফল হবে বলে মন্তব্য করেন বিএনপির এই শীর্ষ নেতা।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close