আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
আন্তর্জাতিক

দিল্লির সর্বকনিষ্ঠ মন্ত্রী রাখি বিরলা

ওমেন আই:
দিল্লির সর্বকনিষ্ঠ মন্ত্রী হিসাবে নাম লেখানোর পর রাখি বিরলা নিজেকে একজন বিপ্লবী বলে দাবি করলেন। দিল্লির রাজ্যসভার ২০ বছরের ইতিহাসে তিনিই প্রথম ২৬ বছর বয়সে মন্ত্রী হওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেছেন। আম আদমি পার্টির হয়ে সাবেক এ টেলিভিশন সাংবাদিক সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

ভারতের রাজধানীর একটি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সময় তিনি সাবেক মন্ত্রী এবং কংগ্রেসের প্রবীণ নেতা রাজ কুমার চৌহানকে ১০ হাজারের বেশি ভোটে পরাজিত করেন। রাজনীতির মাঠে প্রবীণ রাজনীতিবিদকে ঘায়েল করার পরও অবশ্য রাখি বিরলা নিজেকে রাজনীতিবিদ হিসাবে দাবি না করে একজন বিপ্লবী হিসাবে দাবি করেছেন।

এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, আমি কখনোই ভাবিনি আমি রাজনীতিতে যোগ দেব। এখনো মনে করি না আমি রাজনীতি করতে এখানে এসেছি। আমি যে দলের হয়ে বিজয়ী হয়েছি তারাও কোন রাজনৈতিক দল নয় বরং এক ধরনের বিপ্লব করতেই এই দলটির উত্থান। এ দলটি দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাবে।

আন্না হাজারের কার্যক্রম দ্বারা তিনি প্রভাবিত হয়েছিলেন উল্লেখ করে বলেন, একজন সাংবাদিক হিসাবে আন্না হাজারের আন্দোলনের প্রতিবেদন করতে আমাকে বেশ কয়েকদিন কাজ করতে হয়েছে। সে সময় আন্না হাজারের মতাদর্শ আমাকে প্রভাবিত করেছে। সমাজকে দুর্নীতিমুক্ত করতে কাউকে না কাউকে এগিয়ে আসতে হবে। আন্না হাজারের এই মতাদর্শ থেকে ২০১২ সালের নভেম্বরের শেষ দিকে আম আদমি পার্টির যাত্রা শুরু হয়। তখন আমি একজন স্বেচ্ছাসেবী হিসাবেই যোগ দেই আম আদমি পার্টিতে।

পরিবারের সমর্থন সম্পর্কে তিনি বলেন, আমার বাবা মা আমাকে ব্যাপক সমর্থন করেছেন বলেই আজ আমি এখানে আসতে পেরেছি। সর্মথকদের থেকেও অনেক সাড়া পেয়েছি। সমর্থকদের থেকে আর্থিক সহযোগিতাও নিতে হয়েছে। আমি মনে করি কারো থেকে সাহায্য নেয়ার মধ্যে কোন লজ্জা নেই যদি আমি তাদের জন্য কাজ করতে পারি।

তারা আমাকে তাদের প্রতিনিধি নির্বাচন করেছেন। এখন আমার দায়িত্ব তাদের সে বিশ্বাসের প্রতিদান দেয়া। আমি নিজের ক্যারিয়ার নিয়ে উগি¦গ্ন নই। জনমানুষের জন্য কিছু একটা করাই আমার মূল লক্ষ্য। আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান। আমার পরিবারের লোকজন সব সময়ই মানুষের জন্য কাজ করে আসছে। এখন আমার পালা সে দায়িত্ব নিজের কাধে তুলে নেয়া। আমি বিশ্বাস করি আমার দল দেশপ্রেম, সততা ও বিশ্বাসের সাথেই কাজ করে যাবে। এনডিটিভি।

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close