আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
অপরাধ

ফের মুখ খুললেন হ্যাপি

happywmnওমেনআই:সম্প্রতি জাতীয় দলের ক্রিকেটার রুবেল হোসেনের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন আইনে মামলা করে আলোচনার ঝড় তুলেছেন চলচ্চিত্র অভিনেত্রী নাজনীন আক্তার হ্যাপি। বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে হ্যাপির বক্তব্য প্রকাশিত হলেও রুবেল যেন কিছুটা নিশ্চুপ। রবিবার রাতে ‘ঢাকা এফএম ৯০.৪’-এর ‘অন্ধকারের গল্প’ অনুষ্ঠানে এসেছিলেন হ্যাপি। সরাসরি এ অনুষ্ঠানে হ্যাপি বলেছেন রুবেলের সঙ্গে ঘটে যাওয়া নানা ঘটনার কথা। হ্যাপির বক্তব্যের কিছু অংশ তুলে ধরা হলো পাঠকদের জন্য :

রুবেল আমাকে বউ বলে ডাকত

আমরা স্বামী-স্ত্রীর মতোই ছিলাম। রুবেল আমাকে মাঝে মাঝেই বউ বলে ডাকত। মামলা করার আগের দিনও আমরা একসঙ্গে ছিলাম। দীর্ঘ ৯ মাস আমাদের সম্পর্ক অনেক ঘনিষ্ঠতায় রূপ নিয়েছিল। আমি প্রায়ই রুবেলের বাসায় যেতাম। রুবেলের বাসায় গিয়ে আমি একাধিকবার থেকেছি।

রুবেল আমার সঙ্গে ৯ মাসের প্রেমের ম্যাচ খেলেছে

আমাদের সম্পর্কটা ৯ মাসের। কিন্তু শেষের দিকে রুবেলের সঙ্গে প্রায়ই ঝগড়া হতো। রুবেল প্রায়ই মদ্যপ হয়ে আমাকে গালিগালাজ করত। বলত, আমাদের মধ্যে আর কোনো সম্পর্ক নেই। আবার পরে নিজেই ক্ষমা চাইত; বলত, ভুল হয়ে গেছে। আমিও ক্ষমা করে দিতাম। প্রেমের টানে আমি এতটাই ঘোরের মধ্যে ছিলাম যে আমি বুঝতেই পারিনি রুবেল আমার সঙ্গে ৯ মাসের প্রেমের ম্যাচ খেলেছে।

সেই রাতে রুবেল আমাকে মারধর করে

রুবেলের বাসায় প্রায়ই বিভিন্ন মেয়েরা আসত। অনেক মেয়ের সঙ্গেই রুবেলের ঘনিষ্ঠতা ছিল। একদিন রাতে মদ্যপ হয়ে রুবেল আমাকে জানায়, সে মেয়ে নিয়ে বাসায় ড্রিংকস করছে। আমি রাতে রুবেলের বাসায় যাই। গিয়ে দেখি সেখানে দুটো মেয়ে রয়েছে। তখন আমাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে সে আমাকে মারধর করে।

রুবেল জানত আমি মোবাইলে রেকর্ড করছি

বিভিন্ন সময় রুবেল খারাপ ব্যবহার করলে তাকে বলতাম, তোমার কথাগুলো রেকর্ড করছি। রুবেল জানত, আমি ওর কথাগুলো মোবাইলে রেকর্ড করছি। ৩টা মোবাইলে রুবেলের সঙ্গে আমার বেশি কথা হতো। মামলা করার আগের দিন আমরা একসঙ্গে ছিলাম। তখন রুবেল আমার কাছ থেকে মোবাইল নিয়ে সব রেকর্ড ডিলিট করে দেয়। কিছু ছবি ছিল, সেগুলোও ডিলিট করে দেয়। এরপর রুবেল বলে, সে আমাকে বিয়ে করবে না। আরও কিছু ঘটনা আছে। সেগুলো এখানে বলতে চাই না।

রুবেলকে জিজ্ঞেস করলাম কেন সে বিয়ে করবে না

রুবেল কয়েক দিন ধরেই আমাদের সম্পর্কটা ভেঙে দিতে চাইছিল। আমি বুঝতে পারতাম না কেন সে সম্পর্কটা ভেঙে দিতে চাইছে। পরে জানলাম বাগেরহাটের একটি মেয়ের সঙ্গে রুবেলের বিয়ে ঠিক হয়েছে। আমি পরে জিজ্ঞেস করলাম, কেন বিয়ে করবে না আমাকে? রুবেল বলে, মিডিয়ার মেয়েরা খারাপ। তার পরিবার আমাকে মেনে নেবে না।

রুবেল আমাকে হুমকি দেয়

আমাদের সম্পর্কটা যখন চূড়ান্তভাবে ভেঙে দিল রুবেল তখন তার ‍বিরুদ্ধে মামলা করার কথা বলি। তখন রুবেল আমাকে বলে, তুমি মামলা করে আমার কিছুই করতে পারবে না। তোমার কাছে কোনো প্রমাণ নেই। অনেক বড় বড় আইনজীবী আমার পক্ষে মামলায় লড়বে। মামলা করার পর শুনলাম সে নাকি আমার নামে জিডি করেছিল।

রুবেলের মতো জানোয়ারকে বিয়ে করতে চাই না

আমি ‍রুবেলকে বিয়ে করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু সম্প্রতি সে যে আচরণ করেছে, ওর মতো একটা জানোয়ারকে আমি আর বিয়ে করতে চাই না।

অনুষ্ঠানের শেষ অংশে সঞ্চালক বলেন, ‘অন্ধকারের গল্প অনুষ্ঠানটিতে আমরা শুধু ঘটনাকে তুলে ধরি। এর বিচার কিংবা সিদ্ধান্ত এখন আদালতের কাছে। আমরা এ বিষয়ে কিছুই বলব না। আমরা শুধু হ্যাপির কথাগুলো তুলে ধরেছি।’

ঢাকা, ২২ ডিসেম্বর (ওমেনআই)/এসএল/

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close