আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
অর্থনীতি

১ জানুয়ারি বাণিজ্যমেলা

20141224nashirul-islam-360ওমেনআই:প্রতিবছরের মতো এবারও পহেলা জানুয়ারি শুরু হতে যাওয়া মাসব্যাপী ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলার শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতিতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন মালিক ও শ্রমিকরা। বিভিন্ন দেশের ব্যবসায়ী এবং শিল্প উদ্যোক্তাদের পণ্য প্রদর্শনীর সবচেয়ে বড় আসর ২০তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা-২০১৫ (ডিআইটিএফ) শুরু হচ্ছে আগামী ১ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এবং রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) আয়োজিত এবারের মেলায় বিশ্বের চারটি মহাদেশের মোট ১৪টি দেশ অংশ নিচ্ছে।

মেলার প্রস্তুতি পরিদর্শনে গিয়ে দেখা গেছে, বরাবরের মতো এবারও রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের অস্থায়ী মাঠের ৩১ দশমিক ৫৩ একর জায়গাজুড়ে ২০তম আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলার প্রস্তুতির কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। মেলার স্টলের কাঠামোর কাজও শেষ। বাকি রংয়ের কাজ ২৮ তারিখের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে বলে ইপিবি সূত্রে জানা গেছে। চলছে মেলার অভ্যন্তরীণ রাস্তাগুলো গোঁছনোর কাজ।

এবারের বাণিজ্যমেলায় এশিয়া, উত্তর আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া ও ইউরোপ- এই চারটি মহাদেশের মধ্যে পণ্য নিয়ে হাজির হচ্ছে পাকিস্তান, ভারত, যুক্তরাষ্ট্র, থাইল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, সিঙ্গাপুর, তুরস্ক, যুক্তরাজ্য, ইরান, মালয়েশিয়া, চীন, সংযুক্ত আরব আমিরাত, দক্ষিণ কোরিয়া ও জার্মান।

ইপিবি সূত্র জানায়, ১ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে এ মেলার উদ্বোধন করবেন বলে আশা করা হচ্ছে। বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন, বাংলাদেশে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতরাসহ বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও ইপিবির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকবেন। ইতোমধ্যেই বাণিজ্যমেলায় আগত মেহমানদের জন্য আমন্ত্রণপত্র পৌঁছে দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে।

এবারের মেলা প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, সারা বিশ্বে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেছে বাংলাদেশের এই মেলা। বিভিন্ন দেশের ব্যবসায়ীরা এই মেলায় অংশগ্রহণের জন্য সারাবছর অপেক্ষা করে। দেশীয় উদ্যোক্তরাও অপেক্ষা করে একইভাবে। অন্যান্য যেকোনও বছরের তুলনায় এবারের মেলা হবে ভিন্ন। কারণ ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, এবারই প্রথম নারী উদ্যোক্তাদের জন্য আলাদা কর্ণার করা হয়েছে। যা বিশ্বেও বিরল। তিনি জানান, সবরকম প্রস্তুতি সম্পন্ন। এখন শুধু উদ্বোধনের অপেক্ষা।

মেলায় অংশগ্রহণকারী দেশের ৪১টি প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে অংশগ্রহণ করছে। প্যাভিলিয়ন ক্যাটাগরিতে ১৯টি, মিনি প্যাভিলিয়ান ক্যাটাগরিতে দুটি আর প্রিমিয়ার স্টল ক্যাটাগরিতে ১৭টি আবেদন জমা পড়েছে।

এবারের মেলায় মোট স্টল থাকছে ৪৫৯টি। এর মধ্যে প্যাভিলিয়ন ৮১টি, মিনি প্যাভিলিয়ন ৫১টি। এছাড়া থাকছে ছয়টি দেশীয় এবং চারটি বিদেশি রেস্তোরাঁ। অারও আছে ৩১টি ফুডস্টল।

মেলায় প্রতিদিন আগত দর্শনার্থীর সংখ্যা এক লাখ হতে পারে বলে জানা গেছে। মেলার প্রবেশমূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য ৩০ টাকা আর অপ্রাপ্তবয়স্কদের জন্য ২০ টাকা।

অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার মেলায় সামান্য পরিবর্তন আনা হয়েছে। মেলায় নারী উদ্যোক্তাদের জন্য স্পেশাল জোন তৈরি করা হয়েছে। যিনি যে ব্যবসা করতে চান, সেই জোনে তা করতে পারবেন। ফরেন জোনের মাঝখান দিয়ে তৈরি করা হয়েছে রাস্তা। রয়েছে তিনটি ডিজিটাল পথনির্দেশক এবং দুটি শিশুপার্ক, যা এবারের নতুন আকর্ষণ। এছাড়া প্রতিবন্ধীদের প্রবেশের জন্য এবার থাকছে আলাদা ব্যবস্থা।

ঢাকা, ২৭ ডিসেম্বর (ওমেনঅাই)/এসএল/

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close