আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
সারাদেশ

থার্টিফার্স্ট নাইট উদযাপনে প্রস্তুত কক্সবাজার

coxbazer 30.12.14ওমেনআই:থার্টিফার্স্ট নাইট উদযাপন ও ইংরেজি নববর্ষ বরণে প্রস্তুত হয়েছে বিশ্বের বৃহত্তম সমুদ্র সৈকতের নগরী কক্সবাজার। এ উপলক্ষে হোটেল-মোটেলসহ পুরো পর্যটন ব্যবসা সাজানো হয়েছে অন্যরূপে।

২০১৪ সালকে বিদায় জানিয়ে নতুনের প্রত্যাশায় অনাগত সম্ভাবনার ২০১৫ সালকে বরণে দূর-দূরান্তে অনেক পর্যটক কক্সবাজারে চলে আসছে। এরই মধ্যে অনেক পর্যটক কক্সবাজারে সমাগম হয়েছে। সার্বিক নিরাপত্তায় প্রশাসনও নিয়েছেন সর্বোচ্চ প্রস্তুতি।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালের বিদায় লগ্ন থার্টিফার্স্ট নাইট উদযাপন ও ২০১৫ সাল বরণ উপলক্ষে পর্যটন নগরী কক্সবাজারকে অন্যভাবে সাজানো হয়েছে। সমুদ্র সৈকতসহ জেলার সব পর্যটন কেন্দ্রকে নতুভাবে ঢেলে সাজানো হয়েছে। সেই সঙ্গে পর্যটকদের নিরাপত্তা, চাহিদা ও ভ্রমণের আনন্দ বাড়িয়ে দেয়ার সব আয়োজন এরই মধ্যে সম্পন্ন হয়েছে।
কক্সবাজার জেলা পুলিশ সূত্র জানায়, থার্টিফার্স্ট নাইট উদযাপনকে কেন্দ্র করে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে পুলিশ। সার্বিক আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় ১ জন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ১২টি ভ্রাম্যমাণ আদালত ও ৮শ পুলিশ সদস্য কাজ করবে।

হোটেল মালিক সমিতি সূত্রে জানায়, নববর্ষ বরণ উপলক্ষে কক্সবাজার সব ধরনের হোটেল সুদৃশ্যভাবে সাজানো হয়েছে। অন্যান্য বছরের চেয়ে তার মাত্রা বেশি। হোটেল ‘ওশ্যান প্যারাডাইস’, ‘কক্স টুডে’, ‘লংবীচ’, ‘সী-গাল’, ‘সী-প্যালেস’সহ প্রায়ই হোটেলে বর্ণিল সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়েছে।

হোটেল-মোটেল গেস্টহাউস মালিক সমিতি সূত্রে জানা গেছে, কক্সবাজার ছোট-বড় সব ধরনের হোটেল-মোটেল ও গেস্টহাউসকে নতুনরূপে সাজানো হয়েছে। নববর্ষ উপলক্ষ্যে প্রায়ই হোটেল-মোটেল গেস্টহাউসে বিশেষ ছাড়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বিচ ম্যানেজম্যান্ট কমিটি সূত্রে জানা গেছে, নববর্ষ বরণে কক্সবাজারে আসা প্রায়ই পর্যটক কক্সবাজার সৈকতে অবগাহন করবেন। বিপুল পর্যটকদের সামাল দিতে নির্দিষ্ট বিচকর্মীদের পাশপাশি অতিরিক্ত কর্মী নিয়োগ করা হবে। পর্যটকদের আনন্দের মাত্রা বাড়িয়ে দিতে সমুদ্র সৈকততে এরই মধ্যে ভিন্ন আঙ্গিকে সাজানো হয়েছে। কাউন্ট ডাউন টু নাইট শিরোনামের একটি কনসার্ট আয়োজন করা হয়েছে। কনসার্টটি আয়োজন করেছে এসএ টিভি। এখানে গান করবেন জেমস, মিলা, বাংলাদেশ আইডলের মং, মন্টি, তামিম, জুয়েল, বৃষ্টি, সামি, পংকজ, শৌরিন, আরিফ এবং তালহা।

দেশ টিভির উদ্যোগে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের লাবণী পয়েন্টে আয়োজন করা হয়েছে ‘সৈকতে ঝংকার’ নামে একটি কনসার্ট। এতে সংগীত পরিবেশন করবে ব্যান্ড এলআরবি, দলছুট, ফিডব্যাক, হায়দার হোসেন এবং শাহনাজ বেলী।

হোটেল-মোটেল গেস্টহাউস মালিক সমিতির সভাপতি আবুল কাশেম সিকদার জানান, দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি স্থিতিশীল থাকায় প্রচুর পর্যটক আসবে। তা বিবেচনা করে কক্সবাজারের পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরাও সে অনুসারে প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে। পর্যটকের কোনো ধরনের ঘাটতি থাকবে না।

ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশনের (টুয়াক) সভাপতি এসএম কিবরিয়া বলেন, ‘পর্যটক বরণে সমুদ্রসৈকত, সেন্টমার্টিনসহ জেলার সব পর্যটন স্পট প্রস্তুত রয়েছে। সে অনুসারে আনুসাঙ্গিক প্রস্তুতিও রাখা হয়েছে।’

কক্সবাজারের পুলিশ সুপার শ্যামল কুমার নাথ বলেন, ‘যতই পর্যটক আসুক; নিরাপত্তার বিষয়ে তাদের কোনো অসুবিধা হবে না। সে জন্য জেলা পুলিশ বিশাল বহর নিয়ে প্রস্তুত রয়েছে।’

বিচ ম্যানেজম্যান্ট কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক মো. রুহুল আমিন বলেন, ‘চলতি মৌসুমে দেশের সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক শুরুতেই কক্সবাজারে আশানুরূপ পর্যটক আসছে। থার্টিফার্স্ট নাইট উপলক্ষে বিপুল পর্যটক সমাগমের আশা করছি। তার জন্য আমরা সর্বোতভাবে প্রস্তুত রয়েছি।’

ঢাকা, ৩০ ডিসেম্বর (ওমেনঅাই)/এসএল/

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close